kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

নেপালের কাছেও হার মেয়েদের

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নেপালের কাছেও হার মেয়েদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক : এশিয়ান সেন্ট্রাল জোন ভলিবলে নিজেদের পিছিয়ে থাকাটা বুঝতে পারল বাংলাদেশ মহিলা ভলিবল দল। টুর্নামেন্টে কাল টানা দ্বিতীয় ম্যাচ হেরেছে তারা নেপালের কাছে। দুর্বল আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ে শুরু করা মেয়েরা মালদ্বীপের বিপক্ষে পরের ম্যাচেই হোঁচট খেয়েছিল ৩-০ সেটে হেরে। কাল নেপালের কাছেও একই পরিণতি। ২৫-৭, ২৫-৬ ও ২৫-৬ পয়েন্টে হার শাহিদা পারভীনদের।

পয়েন্টই বলছে কতটা একতরফা ম্যাচ হয়েছে কাল মিরপুর ইনডোরে। মালদ্বীপের কাছে সরাসরি সেটে হারলেও প্রতিটি সেটই হয়েছিল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। ভাগ্য পাশে থাকলে ম্যাচের ফল অন্য রকমও হতে পারত। কিন্তু কাল নেপালের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি মেয়েরা। কোচ গোলাম মেহেদী বলেছেন, ‘ওরা ওদের স্বাভাবিক খেলাটাও খেলতে পারেনি আজ। নার্ভাস ছিল প্রত্যেকে।’ আগের ম্যাচে লড়াই করেও ৩-০ সেটে হারের পর ফেভারিট নেপালকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো শক্তিই যেন অবশিষ্ট ছিল না শাহিদা-সাবিনাদের। গত বছর নেপালে গিয়েও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। কাল হারল নিজেদের মাঠেই। বাংলাদেশ কোচ মেয়েদের কম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অনভিজ্ঞতাকেই দায়ী করেছেন এ জন্য। নেপাল, মালদ্বীপ টানা তিন জয়ে কালই আসরের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে। বাংলাদেশ ও কিরগিজস্তানের একটি করে জয়, দুই দলই হারিয়েছে আফগানিস্তানকে। বাংলাদেশ আজ শেষ ম্যাচ খেলতে নামবে কিরগিজদের বিপক্ষে।

ঘরের মাঠে বঙ্গমাতার নামে হচ্ছে এ আসর। অথচ এই টুর্নামেন্টের জন্য কোনো প্রস্তুতি ম্যাচই খেলেনি স্বাগতিকরা। জুলাইয়ে এসএ গেমসের জন্য যে অনুশীলন শুরু হয়েছিল, তা-ই এ টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি। মালদ্বীপ ও নেপালের কাছে হারে গেমসে এখন পদকের আশা করাটাও কঠিন হয়ে গেল শাহিদাদের জন্য। এই টুর্নামেন্টে কিরগিজদের হারিয়ে অবশ্য এখনো তৃতীয় হওয়ার সুযোগ আছে বাংলাদেশের। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে একটি ওয়ার্ম ম্যাচে শাহিদারা হেরেছিল ৩-২ ব্যবধানে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা