kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

অভিজ্ঞতার অভাবেই হেরেছে মেয়েরা

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিজ্ঞতার অভাবেই হেরেছে মেয়েরা

দেশে প্রথমবারের মতো হচ্ছে মেয়েদের আন্তর্জাতিক ভলিবল টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ মহিলা ভলিবল দল এর আগে কদাচিৎ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছে। সেই অনভিজ্ঞতাই ফুটে উঠেছে তাদের এই টুর্নামেন্টে। কাল নেপালের কাছে আসরে টানা দ্বিতীয় হারের পর বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম মেহেদী মুখোমুখি হয়েছিলেন কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের।

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : নেপালের বিপক্ষে এই পারফরম্যান্স নিয়ে কী বলবেন?

গোলাম মেহেদী : দেখুন, এই টুর্নামেন্টের আগে আমরা কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারিনি। মেয়েদের প্রায় সবাই নতুন। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা নেই বললেই চলে। তার পরও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে একটা পর্যায়ে তাদের আমরা নিয়ে এসেছি। আজ যে খেলাটা খেলছে এটা আসলে তাদের স্বাভাবিক খেলা না। ওরা মাঠে খুব নার্ভাস হয়ে গিয়েছিল। বারবার আমি চেষ্টা করেছি এটা কাটানোর জন্য, কিন্তু কাজ হয়নি। তারা যদি এ ধরনের ম্যাচ আরো বেশি খেলত তাহলেই সম্ভব হতো এটা কাটিয়ে ওঠা।

প্রশ্ন : তার মানে অভিজ্ঞতাতেই মূল ঘাটতি?

মেহেদী : হ্যাঁ, এটাই মূল কারণ। নেপালের মেয়েরা শুধু অভিজ্ঞ না, পেশাদারও। ওরা যে সার্ভিস করেছে সেটাতেই আমাদের মেয়েরা অভ্যস্ত না। তারপর নেই গেম টেম্পারমেন্ট, অনেকে আছে জীবনে প্রথম খেলছে। তার পরও একটু একটু করে আমরা এগোচ্ছি। আগে আমাদের খেলোয়াড়রা মাঝখানে ব্লক দিত না, এখন ব্লকেও যাচ্ছে। তবে রিসিভিংটা ভালো হচ্ছে না। রিসিভ ভালো হলে খেলা আরো ভালো হতো। সামনে সার্ভিসিংয়েও উন্নতি করতে হবে।

প্রশ্ন : সামনের এসএ গেমসে ভালো কিছুর আশা করাটা তো এখন কঠিন...

মেহেদী : এসএ গেমসে ভালো খেলে যত দূর এগোনো যায় সেই চেষ্টাই আমরা করব। পদকের কথা বলা যাবে না। নেপালের এই মেয়েরা তো থাইল্যান্ড, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কায় লিগ খেলে। তিন-চার বছর ধরে তারা একসঙ্গে খেলে। এখানে আসার আগেও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে এসেছে। কিন্তু আমাদের প্রস্তুতি তো সীমাবদ্ধ। ঘরের মাঠে খেলেই আমরা তৈরি হচ্ছি।

প্রশ্ন : প্রথমবারের মতো এই টুর্নামেন্ট হলো, মেয়েদের খেলার সুযোগ নিশ্চয় বাড়বে ভবিষ্যতে?

মেহেদী : আমিও সে আশাই করি। ফেডারেশনকে এ জন্য পরিকল্পনা নিতে হবে। খেলার সুযোগ বাড়াতে হবে, প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নিতে হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা