kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

শেষটা যেন ভালো রেজাল্ট দিয়ে করতে পারি

১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেষটা যেন ভালো রেজাল্ট দিয়ে করতে পারি

সিটি গ্রুপের ব্র্যান্ড ‘তীর’-এর পৃষ্ঠপোষকতায় অলিম্পিক স্বপ্ন ছুঁয়েছে আর্চারি। বাংলাদেশের প্রথম আর্চার হিসেবে যোগ্যতা অর্জন করে আগামী ২০২০ অলিম্পিকে অংশ নিতে যাচ্ছেন রোমান সানা। কাল প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আর্চারিতে তৃতীয় বছরের বাজেট ঘোষণার দিনে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে রোমান বলেছেন তাঁর অভিজ্ঞতা ও প্রত্যাশা নিয়ে।

প্রশ্ন : আর্চারিতে ‘তীর’-এর এই পৃষ্ঠপোষকতাকে আপনি কিভাবে মূল্যায়ন করবেন?

রোমান সানা : আসলে তীর কম্পানির সহযোগিতা ছাড়া আমি এত দূর আসতে পারতাম না। আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে উন্নতি, মাঠের খেলা থেকে শুরু করে সব কিছু, বিদেশে যাওয়ার সব কিছু তারা দিয়েছে। তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। আসলে তাদের ছাড়া আমি অচল ছিলাম। কারণ তারা আসার পর থেকে আমি রোমান সানা এত বিখ্যাত, আমাদের আর্চারি দলকে সবাই চিনছে। জানতে পারছে।

প্রশ্ন : অলিম্পিকে কোটা অর্জন, বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জয়, সর্বশেষ এশিয়া কাপে সোনা জয়, সব মিলিয়ে বছরটা তো দারুণ কাটিয়েছেন। শেষটা কেমন চান?

রোমান : হ্যাঁ, এ বছর আমাদের সাফল্যে ভরা। তবে শেষ ভালো যার সব ভালো তার। আমি চাই শেষটা যেন ভালো রেজাল্ট দিয়ে করতে পারি। ডিসেম্বরে এসএ গেমস, এখানে ভালো করাই আমাদের মূল লক্ষ্য।

প্রশ্ন : এসএ গেমসে ভারত কঠিন প্রতিপক্ষ, তাদের বিপক্ষে আপনি কেমন চ্যালেঞ্জ অনুভব করছেন?

রোমান : ভারত এসএ গেমসে অবশ্যই কঠিন প্রতিপক্ষ; কিন্তু আমরাও এখন অভিজ্ঞ। ইনশাআল্লাহ আমরা যে ছয়টা ইভেন্টে লড়াই করব সেখানে একটা না একটা গোল্ড পেতেই পারি।

প্রশ্ন : সাম্প্রতিককালে আপনি খুব ভালো করেছেন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে। ভারতীয় আর্চাররাও নিশ্চয় বসে নেই?

রোমান : ভারতে আমাদের যারা প্রতিপক্ষ, তাদের ব্যাপারে খোঁজ-খবর রাখছি। ওদের আমি আগে থেকেই চিনি। ওদের স্কোরও দেখি। ওরা কত মারছে আমরা কত মারছি। এই খোঁজখবরটা আমরাও নিয়মিত রাখি। এটা আমার প্রথম এসএ গেমস। গতবার জানেন তো চোটের কারণে আমার খেলা হয়নি। হতাশার ছিল সেটা। আশা করছি এবার আমি ভালো কিছু করব। আমার প্রথম লক্ষ্য ফাইনাল। ফাইনালে যেতে পারলে আমি সোনাও জিততে পারি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা