kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

প্রতিকূল পরিবেশে শামসুরের শতক

১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিকূল পরিবেশে শামসুরের শতক

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রত্যাশিতই ছিল, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাব পড়েছেও জাতীয় লিগের পঞ্চম পর্বে। গতকাল শুরু হওয়া এ পর্বের প্রথম দিনে বৃষ্টির কারণে টসই হতে পারেনি বরিশাল ও ঢাকায়। তবে খণ্ডিত সময়ের জন্য খেলা হয়েছে রাজশাহী ও বগুড়ায়। সিলেটের বিপক্ষে ঢাকা মেট্রোর অবস্থা বিশেষ সুবিধার না হলেও সেঞ্চুরি করেছেন মিডল অর্ডারের শামসুর রহমান। বৃষ্টিবিঘ্নিত দিনে মেট্রোর অভিজ্ঞ এ ব্যাটসম্যানই ব্যক্তিগত সাফল্যে উজ্জ্বলতম।

বৃষ্টি না হলেও মেঘলা আকাশের কারণে বগুড়ায় খেলা শুরু হয়েছে দেরিতে। আবার আলোস্বল্পতার কারণে খেলা বন্ধও হয়েছে নির্ধারিত সময়ের আগে। তাতে সব মিলিয়ে খেলা হয়েছে মোটে ৪১ ওভার। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ঢাকা বিভাগের ১১০ রান তুলতেই ইনিংসের অর্ধেকটা খুইয়ে ফেলায় হতাশার ছাপ স্পষ্ট। তবে বিনা রানে দুই ওপেনারকে হারিয়েও অত দূর যেতে পারায় খানিক স্বস্তিও নিশ্চয় আছে ঢাকার ড্রেসিংরুমে। শাহাদাত হোসেন ও সালাউদ্দিন শাকিলের পেসে বিপদ থেকে দলকে উদ্ধারের প্রাথমিক কাজটি করেছেন সোহরাওয়ার্দী শুভ। তাঁর ফিফটি আরো বড় বিপর্যয়ের থেকে রক্ষা করেছে রংপুর বিভাগকে।

রাজশাহীতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ঢাকা মেট্রোর ইনিংস ২০০ ছাড়িয়েছে শামসুর রহমানের সেঞ্চুরিতে। তাঁর এবং আল আমিনের মধ্যকার ১২৬ রানের পঞ্চম উইকেট জুটিই মেট্রোর ইনিংসের সেরা অংশ। সিলেটি পেসার রেজাউর রহমান ও বাঁহাতি স্পিনার এনামুল হক জুনিয়র ভাগাভাগি করে নিয়েছেন দিনে পতন ঘটা সবগুলো উইকেট।

ওদিকে ঢাকার মিরপুর এবং বরিশালে বাজে আবহাওয়ার কারণে টসও হতে পারেনি। তাই টায়ার ওয়ান-এর শীর্ষ দল খুলনা ও রাজশাহীর ম্যাচের ভাগ্য ঝুলে আছে প্রকৃতির হাতে। বরিশালে টায়ার টু-এর বরিশাল ও চট্টগ্রামের মধ্যকার ম্যাচেরও একই হাল, টসই হয়নি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : রংপুর-ঢাকা

রংপুর ৪১ ওভারে ১১০/৫ (সোহরাওয়ার্দী ৫৭, নাসির ব্যাটিং ৫, তানবির ব্যাটিং ১৫, শাহাদাত ২/৩৩, সালাউদ্দিন ২/৩২)।

ঢাকা মেট্রো-সিলেট : মেট্রো ৭৬ ওভারে ২৮২/৭ (শামসুর ১১৪, আল আমিন ৬৯, শরিফুল্লাহ ব্যাটিং ২১, রেজাউর ৪/৪৯, এনামুল জুনিয়র ৩/৬৯)।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা