kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

আমি ঠিক পথেই আছি

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমি ঠিক পথেই আছি

গত সামার অ্যাথলেটিকসে ২.১৫ মিটার লাফিয়ে এসএ গেমসে সোনা জয়ের স্বপ্ন দেখছেন মাহফুজুর রহমান। কিছুদিন আগে ভারতীয় জুনিয়র অ্যাথলেটিকসেও সোনা জিতেছেন এই হাইজাম্পার। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে সে আসরের অভিজ্ঞতা ও এসএ গেমসের প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেছেন তিনি

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : ভারতে জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপ খেলে এলেন, সোনা জিতলেন ওখানে, সব মিলিয়ে কেমন অভিজ্ঞতা হয়েছে?

মাহফুজুর রহমান : সব মিলিয়ে আলহামদুলিল্লাহ ভালোই হয়েছে। অনূর্ধ্ব-২০ প্রতিযোগিতা ছিল ওটা। আমি তো এসএ গেমসের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। তো ওই প্রস্তুতির মধ্যেই করেছি গেমসটা। একটা মিটে অংশ নেওয়ার আগে মূল অনুশীলনটা কমিয়ে প্রতিযোগিতার জন্য শরীরটাকে হালকা করতে হয় সেটা করিনি আমি। প্র্যাকটিস জাম্পের মতোই লাফিয়েছি ওখানে। যে কারণে স্কোরটা একটু কম হয়েছে। আশা করি গেমসে আমি সেরা দিয়েই লাফাতে পারব।

প্রশ্ন : ভারতে এই প্র্যাকটিস জাম্পটা আপনার মূল প্রস্তুতিতে কতটা সাহায্য করবে?

মাহফুজ : এতে করে বুঝেছি আমার প্রস্তুতিটা ঠিক পথেই আছে। অনুশীলনের মধ্যেই এই প্রতিযোগিতায় ২.১০ লাফাতে পেরেছি আমি, এটা অবশ্যই ভালো দিক। গেমসে ২.২০ কি ২.২২ লাফানোর লক্ষ্য আমার। তাতে সোনার লড়াইয়ে থাকতে পারব।

প্রশ্ন : এসএ গেমসে তো শীর্ষ সব অ্যাথলেটের বিপক্ষে খেলতে হবে, সেখানে এই জুনিয়র মিটে অংশ নেওয়াকে কিভাবে নিয়েছেন?

মাহফুজ : জুনিয়র মিটটা আমার কাছে মুখ্য ব্যাপার ছিল না। আমার নিজের পারফরম্যান্স দেখা দরকার ছিল একটা প্রতিযোগিতায়, এটাকে সেই সুযোগ হিসেবেই দেখেছি। আগে তো আমার পারফরম্যান্স এ রকম ছিল না। আগে ২.০০ বা ২.০৫ লাফাতাম। গত কিছুদিন হলো আমার পারফরম্যান্সটা বেড়েছে। সামার অ্যাথলেটিকসের আগে আগে আন্তঃবাহিনী গেমসে প্রথম ২.১২ লাফাই, এরপর সামারে ২.১৫ করলাম। গেমসের আগে আগে আরেকটি মিটে নিজেকে দেখে নেওয়ার সুযোগটা তাই কাজে লাগিয়েছি।

প্রশ্ন : যেমন অনুশীলন চলছে তাতে কতটা সন্তুষ্ট?

মাহফুজ : বিকেএসপিতে রফিকুল ইসলাম স্যারের অধীনে আমি প্রশিক্ষণ নিচ্ছি। উনি আমার নৌবাহিনীরও কোচ। তাঁর হাত ধরেই আমি এই পর্যন্ত এসেছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা