kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রোমাঞ্চ নিয়ে গেলেন টেস্টের ৮ জন

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রোমাঞ্চ নিয়ে গেলেন টেস্টের ৮ জন

সাকিব ভাই না থাকাটা আমাদের জন্য অনেক বড় চাপের। তবে আমাদের দলে মিরাজ, নাঈম, তাইজুল ভাই রয়েছেন। তাঁরা সাকিব ভাইয়ের অভাব কিছুটা পূরণ করতে পারবেন বলে মনে হয়। সাদমান ইসলাম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : টি-টোয়েন্টি সিরিজের মীমাংসাই হয়নি এখনো। টেস্ট সিরিজ শুরু হতে ঢের দেরি। তাই বলে সে প্রস্তুতি তো আর থেমে নেই বাংলাদেশের। টেস্ট স্কোয়াডের আট সদস্য কাল সকালে উড়ে গেছেন ভারত।

 

সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞায় হঠাৎই টেস্ট অধিনায়কত্ব এসে পড়ে মমিনুল হকের কাঁধে। কাল ভারতগামী উড়োজাহাজে তাঁর সঙ্গী ইমরুল কায়েস, সাদমান ইসলাম, সাইফ হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ এবং এবাদত হোসেন। চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজের আট সদস্য থেকে যাবেন টেস্টের জন্যও—মাহমুদ উল্লাহ, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন ও তাইজুল ইসলাম। ভারতের বিপক্ষে কাল টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচ। এরপর ১৪ নভেম্বর থেকে ইন্দোরে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। আর ২২ নভেম্বর থেকে কলকাতার দ্বিতীয় টেস্টটির তাৎপর্য কিছুটা আলাদা। এটি যে হবে দিবারাত্রির টেস্ট। বাংলাদেশ-ভারত দুটি দেশই তাদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দিবারাত্রির টেস্ট খেলবে ওই ইডেন গার্ডেনসে।

টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতের সঙ্গে সমানে সমান টক্কর দিচ্ছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি হারার আগে জিতেছে প্রথমটি। কাল তৃতীয় ম্যাচে নির্ধারিত হবে সিরিজের বিজয়ী। টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে বিশ্রাম দিয়েছিল ভারত। টেস্টে ফিরছেন তিনি। রবিচন্দ্রন অশ্বিন, মোহাম্মদ সামি, ইশান্ত শর্মা, উমেশ যাদবদের মতো পরীক্ষিতদের সামনে পরীক্ষা দিতে হবে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। তা নিয়ে অবশ্য খুব দুশ্চিন্তায় নেই বাংলাদেশের টেস্ট ওপেনার সাদমান ইসলাম। কাল দেশ ছাড়ার আগে তেমনটাই জানিয়ে যান তিনি, ‘ভারত অবশ্যই শক্তিশালী দল। কিন্তু ওদের নিয়ে আমরা খুব একটা ভাবছি না। ভারতের বোলারদের নিয়েও বিশেষ চিন্তা নেই। কারণ এর আগে আমরা অনেক ভালো ভালো দলের সঙ্গে খেলেছি। এ কারণেই এবার বাড়তি চাপ নিচ্ছি না। যদি সবাই নিজেদের খেলা খেলতে পারি, একে অন্যকে সমর্থন করতে পারি, তাহলে ভারতের বিপক্ষে ভালো ফলই হবে।’

ব্যাটিং নিয়ে আত্মবিশ্বাস আছে, তবে সাকিব না থাকায় কোহলি, রোহিত শর্মা, চেতেশ্বর পূজারা, আজিঙ্কা রাহানেদের সামনে বোলিংটা কেমন হবে, তা নিয়ে দুশ্চিন্তা লুকাতে পারেননি সাদমান। তবে অন্য স্পিনারদের ওপর ভরসা রাখতে চান তিনি, ‘সাকিব ভাই না থাকাটা আমাদের জন্য অনেক বড় চাপের। তবে আমাদের দলে মিরাজ, নাঈম, তাইজুল ভাই রয়েছেন। তাঁরা সাকিব ভাইয়ের অভাব কিছুটা পূরণ করতে পারবেন বলে মনে হয়।’

সাদমানের আরেক রোমাঞ্চ দ্বিতীয় টেস্ট নিয়ে। দিবারাত্রির টেস্টে খেলা হবে গোলাপি বলে। ভারত সফরে যাওয়ার আগে শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে দু-এক দিন মাত্র তেমন বলে অনুশীলন করেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ইডেন টেস্টে তাই কী হবে, আগে থেকে বলা মুশকিল। কিন্তু এ নিয়ে রোমাঞ্চ যে রয়েছে, তা স্পষ্ট  বলে যান সাদমান, ‘আমাদের জন্য প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট হতে যাচ্ছে এটি। ভারতের জন্যও শুনলাম তাই। এমন এক টেস্ট খেলা নিয়ে অবশ্যই রোমাঞ্চিত থাকব। আর চেষ্টা করব, সেখানে ভালো খেলার।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা