kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

এসে গেছেন বখতিয়ার

২১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এসে গেছেন বখতিয়ার

চট্টগ্রাম থেকে প্রতিনিধি : গত মৌসুমের সেরা ফুটবলার অবশ্যই ডেনিয়েল কলিনদ্রেস। দ্বিতীয় সেরা বাছতে গেলে কিন্তু বখতিয়ার দুশোবেকভের নামটাই আসবে আগে। কিরগিজস্তানের তরুণ হোল্ডিং মিডফিল্ডার, যিনি কিরগিজ জাতীয় দলেও এরই মধ্যে জায়গা পাকা করে ফেলেছেন, সেই বখতিয়ারকে আগামী মৌসুমে আবার বাংলাদেশে দেখা যাবে কি না, তা নিয়ে কিছুটা অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল। তবে পরশু সব অনিশ্চয়তা ভেঙে প্রতিভাবান এই মিডফিল্ডার আবার যোগ দিয়েছেন বসুন্ধরার ক্যাম্পে। চট্টগ্রামে কাল টানা দ্বিতীয় দিনের মতো অনুশীলনও করেছেন তিনি শেখ কামাল ক্লাব কাপের জন্য।

কোচ অস্কার ব্রুজনের জন্য বখতিয়ারের ফিরে আসা বড় পাওয়া, ‘আমি সত্যি খুশি যে বখতিয়ার এ মৌসুমেও আমাদের সঙ্গে থাকছে। গত মৌসুমে আমাদের সাফল্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় ছিল সে। ট্যাকটিক্যালি দারুণ, দলের প্রয়োজনে খেলতে পারে যেকোনো পজিশনে। আমার কাছে বখতিয়ার হলো ট্রাম্প কার্ডের মতো।’ ডেনিয়েল কলিনড্রেসও খুশি মিডফিল্ড সতীর্থকে ফিরে পাওয়ায়, ‘বখতিয়ারের ফিরে আসাটা দারুণ ঘটনা। আপনারা জানেন, গত মৌসুমে বাংলাদেশে খেলা অন্যতম সেরা বিদেশি ছিল সে। এই মৌসুমেও সে আমাদের সঙ্গে থাকছে, এটা খুবই ভালো খবর। আশা করি, এই মৌসুমটাও ও উপভোগ করবে।’

মূল পজিশন হোল্ডিং মিডফিল্ড হলেও বখতিয়ার গত লিগে যেকোনো আক্রমণাত্মক মিডফিল্ডারের ভূমিকায়ও দুর্দান্ত খেলেছেন। স্প্যানিশ সেন্টারব্যাক হোর্হে গোতর চলে যাওয়ার পর তো দু-একটি ম্যাচ স্টপার হিসেবেও খেলেছেন বখতিয়ার। বুঝতেই দেননি তখন এটা যে তাঁর মূল পজিশন না। কিরগিজ ২৪ বছর বয়সী এই ফুটবলার যিনি কিনা জাতীয় দলের হয়ে তাজিকিস্তান ও মিয়ানমারের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে গত দুটি ম্যাচেও খেলেছেন, এমন প্রতিভা নিয়ে এশিয়ার যেকোনো বড় লিগেও খেলার সামর্থ্য রাখেন তিনি।

বাংলাদেশে গত মৌসুম শেষ করার পর বখতিয়ারের এজেন্ট সেই চেষ্টাই নাকি করেছিলেন। কিন্তু কিংসের কাছ থেকেই আরো ভালো প্রস্তাব পাওয়ার পর আবার ফিরলেন বাংলাদেশেই। কাল চট্টগ্রামের বন্দর স্টেডিয়ামে ঘণ্টা দুয়েকের অনুশীলন শেষে বখতিয়ার নিজেই বলেছেন এমনটা, ‘গত মৌসুমে ঢাকা থেকে দারুণ কিছু স্মৃতি নিয়ে ফিরেছিলাম। কিন্তু আমার এজেন্টের কাছে আরো বেশ কিছু প্রস্তাব ছিল। তবে বসুন্ধরাই আরো ভালো প্রস্তাব দেওয়ায় আমি ফিরে এসেছি।’ মৌসুম শুরুর আগেই চোটের কারণে বাংলাদেশ জাতীয় দলের মিডফিল্ডার মাশুক মিয়াকে হারিয়েছে কিংস। বখতিয়ারের ফিরে আসাটা দলের জন্য তাই স্বস্তির খবরই। বাংলাদেশের ফুটবলের জন্যও ইতিবাচক এই মানের খেলোয়াড়দের ধরে রাখতে পারাটা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা