kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

তাই বলে রেলিগেশনের শঙ্কা!

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তাই বলে রেলিগেশনের শঙ্কা!

এমন দুঃসময় খুব কম সময়ই এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। সব শেষ ৩০ বছর আগে ইংলিশ লিগে অবনমন অঞ্চলে (পয়েন্ট টেবিলের শেষ তিন দল) গিয়েছিল তারা। স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন দায়িত্ব নেওয়ার তৃতীয় বছরের সময় সেটা। পরে অবশ্য ঘুরে দাঁড়িয়ে উঠে আসে রেলিগেশন অঞ্চল থেকে। আর খারাপ সময়টা কাটিয়ে ফার্গুসনই সবচেয়ে সফল ম্যানেজার ম্যানইউর। ওলে গানার শোলসকায়ের আবারও যেন ৩০ বছর পেছনে নিয়ে যেতে চলেছেন ঐতিহ্যবাহী দলটিকে। আগামীকাল লিভারপুলের বিপক্ষে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে হারলে আর অন্য ম্যাচগুলোর ফল বিপক্ষে গেলে রেলিগেশনের লাল অঞ্চলে নেমে যাবে ম্যানইউ।

আট ম্যাচ শেষে প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পয়েন্ট ৯। জয় দুটি, ড্র তিন ও হার তিন ম্যাচে। তারা এখন ১২ নম্বরে। সমান ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে লিভারপুল। দুইয়ে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির পয়েন্ট ১৬। এই আট ম্যাচে মাত্র ৯ গোল ম্যানইউর। সেখানে ম্যানসিটি ২৭ আর লিভারপুলের গোল ২০টি। এমন গোলখরাই বলছে ফরোয়ার্ডদের দুর্দশা। রোমেলু লুকাকুর মাতা গোলদাতা বিক্রি করে তাঁর বদলি না কেনার ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন শোলসকায়ের পর্যন্ত। এরই মাসুল দিয়ে এখন অবনমন শঙ্কায় তারা। আগামীকাল লিভারপুলের কাছে হারলে ম্যানইউ যেভাবে অবনমন অঞ্চলে যেতে পারে এরই একটা অঙ্ক কষা যাক।

১৩ ও ১৪ নম্বরে থাকা শেফিল্ড ইউনাইটেড আর ব্রাইটনের পয়েন্ট সমান ৯। ৮ পয়েন্ট নিয়ে এরপরে আছে অ্যাস্টন ভিলা, নিউক্যাসল। ১৭ ও ১৮ নম্বরে থাকা সাউদাম্পটন আর এভারটনের পয়েন্ট ৭। লিভারপুলের কাছে ১-০ গোলে হারলে ম্যানইউর গোল গড় কমে হবে ০। সে ক্ষেত্রে সমান পয়েন্ট পাওয়া শেফিল্ড ইউনাইটেডের পেছনে পড়বে শোলসকায়েরের দল। অ্যাস্টন ভিলা আজ ব্রাইটনের সঙ্গে ড্র করলে এ দুই দলেরও পেছনে পড়ে যাবে ম্যানইউ। তবে অ্যাস্টন ভিলা ১-০ গোলে জিতলে অঙ্কটা অন্য রকম হবে। তখন এ দুই দলের পেছনে পড়তে ম্যানইউকে হারতে হবে ৪-০ ব্যবধানে। এভারটন, নিউক্যাসল আর সাউদাম্পটন নিজেদের ম্যাচ জিতলে ম্যানইউ নেমে আসবে ১৮ নম্বরে! মানে রেলিগেশনের লাল অঞ্চলে। তবে দলের এতটা দুর্দশার কথা ভাবছেন না শোলসকায়ের। মালিকপক্ষ তাঁর ওপর আস্থা রাখায় ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় তাঁর কণ্ঠে,‘ কী করতে চলেছি এ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী আমি। আমাদের শুধু জয়ে ফিরতে হবে। সুযোগ তৈরি করতে হবে আর গোল করতে হবে।’ ডেইলি মেইল

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা