kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

পেস বোলাররাই বেশির ভাগ উইকেট নিয়েছে

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পেস বোলাররাই বেশির ভাগ উইকেট নিয়েছে

নিউজিল্যান্ডে সফল এক সফর শেষ করে এসেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল, ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ৪-১ ব্যবধানে। কেমন ছিল সফরটা, সেটা জানতেই অধিনায়ক আকবর আলীর মুখোমুখি কালের কণ্ঠ স্পোর্টস

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : সফল একটা সফর কাটল। কেমন ছিল সফরটা?

আকবর আলী : খুব ভালো। আমাদের ব্যাটসম্যানরা খুব ভালো করেছে। সবাই খুব ধারাবাহিক ছিল। তানজিদ টানা চার ম্যাচে হাফসেঞ্চুরি করেছে। জয় সেঞ্চুরি করেছে। একটি ম্যাচে বোলাররা ভালো করেনি, সেই ম্যাচটাই আমরা হেরেছি। তবে পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে একটি খারাপ দিন যেতেই পারে। সব মিলিয়ে খুব ভালো কেটেছে নিউজিল্যান্ড সফর।

প্রশ্ন : নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে তো মানিয়ে নিতে একটু সমস্যা হয় উপমহাদেশের দলগুলোর। উইকেট কেমন ছিল সেখানে?

আকবর : উইকেট স্পোর্টিং ছিল। পেসাররা সুবিধা পেয়েছে। আমাদের পেস বোলাররাই বেশি উইকেট নিয়েছে। মৃত্যুঞ্জয় দুটি ম্যাচের পর আর খেলতে পারেনি, একটু চোট ছিল। তাতেই ৫ উইকেট। শরিফুল ১১ উইকেট নিয়েছে, খুব ভালো বোলিং করেছে। আমরা প্রতিটি ম্যাচেই তিনজন করে পেস বোলার খেলিয়েছি। সামনে যুব বিশ্বকাপটা হবে দক্ষিণ আফ্রিকায়। সেখানে পেসারদের একটা বড় ভূমিকা থাকবে। নিউজিল্যান্ড সফরে সেই প্রস্তুতিটা হয়েছে।

প্রশ্ন : নিজের পারফরম্যান্স কেমন মনে হচ্ছে?

আকবর : খুব একটা খারাপ নয়, তবে শেষ ম্যাচে আরেকটু ভালো করতে পারতাম। যেহেতু ছয়ে ব্যাট করি, আমার ভূমিকাটা হচ্ছে ম্যাচ শেষ করে আসার, নয়তো ইনিংসের শেষ পর্যন্ত থেকে রানটা বাড়ানোর। দুটি হাফসেঞ্চুরি করেছি। সব মিলিয়ে বলব শেষ ম্যাচটি বাদে আমি আমার পারফরম্যান্সে খুশি।

প্রশ্ন : প্রস্তুতিটা কেমন ছিল আর সামনে কী আছে?

আকবর : আমাদের খুব ব্যস্ত সময় কেটেছে। ইংল্যান্ড সফর, শ্রীলঙ্কায় এশিয়া কাপ, এরপর নিউজিল্যান্ড। টানা খেলার আগে আমরা মিরপুরে ও খুলনায় একটা ক্যাম্প করেছিলাম। সেই ক্যাম্পেরই সুফল পাচ্ছি। নিউজিল্যান্ডে প্রস্তুতি ম্যাচসহ মাত্র পাঁচটি অনুশীলন সেশন পেয়েছিলাম। কন্ডিশনের সঙ্গে মানানোর খুব বেশি সময় ছিল না। তবু ফল যে ভালো হয়েছে সেটা বলব ওই ক্যাম্পের কারণেই। কোচিং স্টাফরা খুব খেটেছেন আমাদের পেছনে। কোচ, ফিল্ডিং কোচ—সবাই খুব পরিশ্রম করেছেন। সামনে শ্রীলঙ্কা আসছে, অনেক দিন পর হোম কন্ডিশনে খেলব। এটাও একটা চ্যালেঞ্জ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা