kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

রেকর্ডই ধাওয়া করছে রোনালদোকে!

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রেকর্ডই ধাওয়া করছে রোনালদোকে!

৬৯৯ নাকি ৭০০—একটা ধোঁয়াশা ছিলই। সেটা কাটিয়ে দিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। গত পরশু ইউক্রেনের বিপক্ষে গোল করে আনুষ্ঠানিকভাবে ৭০০-র ক্লাবে নাম লেখালেন পর্তুগিজ যুবরাজ। দুর্ভাগ্য রোনালদোর, এমন কীর্তির দিনে হেরে গেছে তাঁর দল। ইউরোর জন্য অপেক্ষাও বেড়েছে তাই।

পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী রোনালদো ষষ্ঠ ফুটবলার হিসেবে ক্লাব ও দেশের হয়ে পা রাখলেন ৭০০ গোলের মাইলফলকে। আলী দাইয়ের আন্তর্জাতিক ১০৯ গোলের রেকর্ড ভাঙার হাতছানি সামনে। পর্তুগালের হয়ে ৯৫ গোল করা এই কিংবদন্তি অবশ্য খুব বেশি মাথা ঘামাচ্ছেন না রেকর্ড নিয়ে, ‘রেকর্ড এমনিতেই হয়। আমি রেকর্ডের পেছনে ছুটি না, রেকর্ডই দৌড়ায় আমার পেছনে! সত্যিই জানি না, কতগুলো রেকর্ড গড়েছি আমি।’

বিবিসি তাদের একটি পরিসংখ্যানে গতকাল জানিয়েছে, ফুটবল ইতিহাসে একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে ক্লাব ও দেশের হয়ে ৮০০-র বেশি গোল করার কীর্তি জোসেফ বাইকানের। চেক প্রজাতন্ত্র ও অস্ট্রিয়ার এই ফুটবলার ১৯৩১ থেকে ১৯৫৫ সালে করেন এই কীর্তি। সর্বোচ্চ গোলে পরের দুটি জায়গা দুই ব্রাজিলিয়ান রোমারিও ও পেলের। রোমারিওর গোল ৭৭২ ও একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে তিনটি বিশ্বকাপ জেতা পেলের ৭৬৭টি।

হাঙ্গেরির কিংবদন্তি ফেরেঙ্ক পুসকাস ৭৪৬ ও জার্ড মুলার করেছেন ৭৩৫ গোল। তাঁদের পর ষষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে ৭০০-র মাইলফলক ছুঁলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। স্পোর্তিং লিসবনের হয়ে ৫টি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সিতে ১১৮, রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ৪৫০, জুভেন্টাসের পক্ষে ৩২ আর পর্তুগালের জার্সিতে তাঁর গোল ৯৫টি। সমসাময়িক খেলোয়াড়দের মধ্যে ‘সিআরসেভেন’-এর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসির গোল ৬৭২টি। বিবিসি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা