kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

প্রস্তুতিতে বাংলাদেশ

ভারতের দুর্ভাবনা রক্ষণভাগ নিয়ে

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারতের দুর্ভাবনা রক্ষণভাগ নিয়ে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত আইএসএলেও ভারতীয় ডিফেন্ডারদের মধ্যে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পেয়েছেন সন্দেস ঝিঙ্গান। ভারতীয় জাতীয় দলের রক্ষণভাগেরও মূল স্তম্ভ কেরালা ব্লাস্টার্স অধিনায়ক। বাংলাদেশ ম্যাচের আগে সেই ঝিঙ্গানকেই হারিয়ে ইগর স্টিমাকের উদ্বেগ কম নয়। এটা ঠিক যে সল্ট লেকে এপারের ফুটবল দলটির বিপক্ষে আক্রমণ ছাড়া কিছুই ভাবছেন না ক্রোয়েশিয়ান কোচ। তবু সেন্টার ব্যাক পজিশনে ঝিঙ্গানের বিকল্প বের করা এখন বড় মাথা ব্যথা হয়ে দাঁড়িয়েছে স্টিমাকের।

কাল তাঁর ঘোষিত চূড়ান্ত দলে বিকল্প যে দুজন জায়গা পেয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ৩২ বছর বয়সী আনাস এডাথোডিকা পুরো নব্বই মিনিট ম্যাচ খেলেন না অনেক দিন। দ্বিতীয়জন নরেন্দের গালত আবার একেবারেই নবীন। ১৮ বছর বয়সী সেন্টার ব্যাক ভারতীয় একাডেমি দল ইন্ডিয়ান অ্যারোজের হয়ে একটি মৌসুমই খেলেছেন শুধু, জাতীয় দলে অভিজ্ঞতা তিন ম্যাচের। ঝিঙ্গানের অনুপস্থিতিতে এর আগে তিন ব্যাক খেলিয়েও ভুগেছেন স্টিমাক ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে, তাজিকিস্তানের কাছে সে ম্যাচে ৪-২ গোলে হারে ভারত। সেন্টার ব্যাক পজিশনে আদিল খানের সঙ্গী তাই কে হন সেটাই দেখার। ভারতীয় পত্রিকায় বাংলাদেশি মিডফিল্ডার মামুনুল ইসলাম অবশ্য কাল পরিষ্কারভাবেই বলেছেন যে ভারতের ডিফেন্স নিয়ে এই দুর্ভাবনা বাংলাদেশকে সুবিধা দেবে না খুব একটা, ‘আমি বিশ্বাস করি ভারতীয় দলে তাঁর জায়গা নেওয়ার মতো যোগ্য অনেকেই আছে। দলে জায়গা পেলে তারাই সুযোগটা কাজে লাগাবে।’

সল্ট লেকে এপারের ফুটবল দলটির বিপক্ষে আক্রমণ ছাড়া কিছুই ভাবছেন না ক্রোয়েশিয়ান কোচ। তবু সেন্টার ব্যাক পজিশনে ঝিঙ্গানের বিকল্প বের করা এখন বড় মাথা ব্যথা হয়ে দাঁড়িয়েছে স্টিমাকের।

পছন্দের ৪-২-৩-১ ফরমেশনেই খেলাতে পারেন স্টিমাক। দুই সাইড ব্যাক মান্দার সিং দেশাই ও প্রিতম কোটাল। হোল্ডিং মিডফিল্ডেও অভিজ্ঞ রাউলিন বোর্হেসকে পাচ্ছেন না এই ম্যাচে স্টিমাক কার্ডের কারণে। তাঁর পজিশনে ফিরতে পারেন ভিনিত রাই। পাশে তরুণ অনিরুদ্ধ থাপাই থাকছেন, কাতারের বিপক্ষেও দুর্দান্ত খেলেছেন এই মিডফিল্ডার। অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবে সাহাল আব্দুল সামাদ। দুই উইংয়ের ডান দিকে উদান্তা সিং বাংলাদেশের রক্ষণের জন্য বড় মাথা ব্যথার কারণ হবে নিশ্চিত। অন্য প্রান্তে আশিক কুরনাইনও গতি, অভিজ্ঞতায় স্ট্রাইকার সুনীল ছেত্রীকে দারুণ সঙ্গ দেবেন। জ্বরের কারণে কাতার ম্যাচে খেলতে না পারা ছেত্রী বাংলাদেশের বিপক্ষে মুখিয়েই থাকবেন জাল খুঁজে পেতে। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ওমানের বিপক্ষেও প্রথম গোল করেছেন তিনি। বাংলাদেশের বিপক্ষে স্টিমাক এই ফরমেশন ভেঙে দুই স্ট্রাইকার খেলানোর ভাবনায়ও যেতে পারেন। গুয়াহাটিতে ক্যাম্প শেষ করে আজই কলকাতা পা রাখছে ভারতীয় দল। পরশু সেখানে পৌঁছে বাংলাদেশ দল অবশ্য কাল পুরো সেশন অনুশীলনও সেরে নিয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা