kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

কলকাতায়

নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে ভারতে জেমির দল

১২ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে ভারতে জেমির দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বাংলাদেশের ফুটবল কি বদলে গেছে বা যাচ্ছে? জাতীয় দলের সাবেক কোচ ও ফুটবলার সাইফুল বারী পরশুর ম্যাচ দেখার পর জোর গলাতেই বলেছেন, ‘আমাদের ফুটবল যে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে, জাতীয় দলের খেলা যে বদলে গেছে, তার জলজ্যান্ত প্রমাণ দেখেছে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম ভরা দর্শকরা এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের সামনে বাংলাদেশ যে পারফরম্যান্স দেখিয়েছে তাতে।’ বসুন্ধরা কিংসকে প্রথম মৌসুমেই লিগ চ্যাম্পিয়ন করা স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোনও মাঠে বসে খেলাটি দেখে বলেছেন, ‘এ সাহসী পারফরম্যান্স। বাংলাদেশ ফুটবল যে গত এক-দেড় বছরে অনেকটাই উন্নতি করেছে। তা দেখা গেছে এদিন। ম্যাচটি ১-১ হলেও কেউ অবাক হতো না।’

যে কাতারকে গোলশূন্য রুখে দিয়ে গত এশিয়ান কাপ খেলা ভারতই ভাবছে তারা তাদের ইতিহাসের অন্যতম সেরা ম্যাচ খেলে ফেলেছে। সেই কাতারের বিপক্ষেই পয়েন্টের সম্ভাবনা জাগানো বাংলাদেশ নিশ্চিতভাবেই পিছিয়ে নেই খুব একটা। কাল কলকাতায় পৌঁছে জেমি ডেও হুঙ্কার ছেড়েছেন, ‘ভারত তো শুধু ১ পয়েন্ট এগিয়ে আমাদের চেয়ে।’ বিশ্বকাপ বাছাইয়ে প্রথম ম্যাচটি ভারত ঘরের মাঠে হেরেছে ওমানের কাছে, পরের ম্যাচে কাতারের সঙ্গে ড্র। বাংলাদেশ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে সেই পয়েন্টেরই অপেক্ষায় ভারতের বিপক্ষে। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে পরশু রাতের স্নায়ুক্ষয়ী অথচ আত্মবিশ্বাস সঞ্চারী ম্যাচটির বাংলাদেশ দল একদমই সময় নষ্ট করেনি, কাল সকালেই পৌঁছে গেছে কলকাতায়। বিকেলে জামাল ভূঁইয়ারা রিকভারি সেশনও সেরে নিয়েছেন। ১৫ অক্টোবর যুব ভারতী ক্রীড়াঙ্গনে ভারত-বাংলাদেশের ধুন্ধুমার লড়াই। কলকাতায় অন্তত ম্যাচটির আবহ তেমনি। ধারণা করা হচ্ছে প্রায় ৬০ হাজার দর্শক উপভোগ করবে দুই বাংলার এই ফুটবল লড়াই। ভারতীয় কোচ ইগর স্টিমাকও কাতার ম্যাচের পর থেকেই দর্শকদের তাতাচ্ছেন মাঠে এসে ব্লু টাইগারদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য। তাঁদের মন রাঙাতে ৯০ মিনিট আক্রমণাত্মক ফুটবলের প্রতিশ্রুতি ছিল তাঁর কণ্ঠে। ঢাকায় কাতারের বিপক্ষে জামাল ভূঁইয়াদের পারফরম্যান্সের পর নতুন করে কী পরিকল্পনা সাজাতে বসেছেন তিনি!

গুয়াহাটির সে ম্যাচে উত্তর ভারতের দলটিকে অবশ্য হারাতেও পারেনি স্টিমাকের দল। সুনীল ছেত্রীর গোলে ম্যাচটি তারা ড্র করেছে। সল্ট লেকে সেই খেদ মেটানোরও নিশ্চিত চেষ্টা থাকবে ভারতীয় ফরোয়ার্ডদের। কাতারের বিপক্ষে প্রত্যাশা মেটানো বাংলাদেশের সামনেও তাই নতুন চ্যালেঞ্জ।

তবে কাল দলের মিডফিল্ডার অনিরুদ্ধ থাপা বলেছেন কঠিন একটা ম্যাচই হতে যাচ্ছে এটি, ‘বাংলাদেশের ম্যাচও কঠিন হবে আমাদের জন্য। তারা মোটেও সহজ প্রতিপক্ষ নয়। কাতারের বিপক্ষে যেভাবে খেলেছি, সেখান থেকে অবশ্যই ভিন্ন হবে এই ম্যাচে আমাদের খেলার ধরন। আমরা জয়ের জন্যই ঝাঁপাব। বাংলাদেশ কিন্তু একইভাবেই খেলবে। এবং তাদেরও লক্ষ্য জয়।’ প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলতে শুরুতে গোল পাওয়ার ওপরই জোর দিচ্ছেন চেন্নাইন এফসিতে খেলা এই তরুণ মিডফিল্ডার। প্রতিপক্ষ আক্রমণ সামলে কাউন্টারে যাওয়াটাই জেমির দলের মূল বৈশিষ্ট্য হয়ে গেছে ঠিক। আরো একটা বৈশিষ্ট্য হলো প্রেসিং। আনন্দবাজারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারেও জেমি বলেছেন, ‘ভারতীয় ফুটবলারদের পায়ে বেশি সময় বল রাখতে দেব না আমরা। পুরো দলটাকে তাই লড়তে হবে একাট্টা হয়ে।’ কাতারের বিপক্ষে ম্যাচ শেষেই বলেছিলেন এই পারফরম্যান্স অবশ্যই ভারতের বিপক্ষে খেলার আগে উদ্দীপ্ত করবে দলকে। কলকাতায় পৌঁছে অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেছেন আবার নতুন উদ্যমেই ঝাঁপাতে যাচ্ছেন তাঁরা, ‘সামনে আরো তিনটি দিন হাতে আছে। কাতার ম্যাচের ক্লান্তি ভুলে ভারতের বিপক্ষে নতুন উদ্যম নিয়ে ঝাঁপাতে চাই আমরা। এটা আরেকটি বড় ম্যাচ আমাদের জন্য। গ্রুপে এখনো আমাদের কিছু পাওয়ার আছে। ভারতের বিপক্ষে সেই লক্ষ্যেই খেলব আমরা। আমার মনে হয় ম্যাচটি ৫০-৫০। ভারত ৫৫-ও হতে পারে। তবে আমরা জয়ের জন্যই খেলব।’ কাতার ম্যাচে দুর্দান্ত ডিফেন্স করে একটি পয়েন্ট নেওয়া ভারত বাংলাদেশ ম্যাচের আগে বড় ধাক্কাও খেয়েছে তাদের অন্যতম ডিফেন্ডার সন্দেস ঝিংগানকে হারিয়ে। কেরালা ব্লাস্টার্সের এই রাইট ব্যাক ৯ অক্টোবর নর্থ ইস্ট ইউনাইটেডের বিপক্ষে গোড়ালিতে চোট পেয়ে এই ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছেন। আশঙ্কা করা হচ্ছে মৌসুমই শেষ হয়ে গেছে তাঁর। গুয়াহাটির সে ম্যাচে উত্তর ভারতের দলটিকে অবশ্য হারাতেও পারেনি স্টিমাকের দল। সুনীল ছেত্রীর গোলে ম্যাচটি তারা ড্র করেছে। সল্ট লেকে সেই খেদ মেটানোরও নিশ্চিত চেষ্টা থাকবে ভারতীয় ফরোয়ার্ডদের। কাতারের বিপক্ষে প্রত্যাশা মেটানো বাংলাদেশের সামনেও তাই নতুন চ্যালেঞ্জ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা