kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

সবারই নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সবারই নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : যে ম্যাচ খেলে প্রথম খ্যাতির আলোয় আলোকিত হয়েছিলেন তামিম ইকবাল, সেই ম্যাচে তাঁর সিনিয়র সতীর্থ ছিলেন আফতাব আহমেদ। ২০০৭ বিশ্বকাপের সেই ভারত ম্যাচের পর পেরিয়ে গেছে এক যুগ। এত দিন পর তারা আবার এক দলে। দুই ভূমিকায় অবশ্য। আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া ২১তম জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) তামিম সেই আগের ভূমিকায় থেকে গেলেও চট্টগ্রামের হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হচ্ছে কোচ আফতাবের।

কোচ হওয়ায় অন্য যেকোনো কিছুর চেয়ে জাতীয় দলের সাবেক ব্যাটসম্যান দলে তামিমের উপস্থিতির প্রভাবই দেখতে চান বেশি। আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ঢাকা মেট্রোর মুখোমুখি হচ্ছে তাঁর দল। সেই দলের একাধিক ক্রিকেটারের অভিষেক হচ্ছে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও। তামিমের উপস্থিতিতে তাঁরাও উপকৃত হবেন বলে আশা আফতাবের, ‘এটি অনেক বড় পাওয়া। কাল (আজ) সম্ভবত আমাদের ৪-৫ জন ক্রিকেটারের অভিষেক হবে। যাদের অভিষেক হবে, তারা তামিমের সঙ্গে একই ড্রেসিংরুম শেয়ার করবে। এর চেয়ে বড় ব্যাপার আর কিছু হতে পারে না। তা ছাড়া তামিমও অনেক দিন পর আসছে। ও ভালো কিছু করার জন্যই এসেছে আশা করি। তাতে আমাদের চট্টগ্রাম দল এবং দলের ক্রিকেটারদের জন্যও ভালো হবে।’ সামনে ভারত সফরের দুই ম্যাচ দিয়ে যখন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ঢুকে পড়ার অপেক্ষায় বাংলাদেশ, তখন মাঝে বেশ কিছু বছর হেলায় হওয়া এনসিএলের চাকচিক্য এবার বাড়ছে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক হওয়ায়। ভারত সফরের আগে সবারই চাওয়া, জাতীয় ক্রিকেটাররা যেন দীর্ঘ পরিসরের ম্যাচ প্রস্তুতি পারফরম করেই সারেন। আবার অন্য ক্রিকেটারদের জন্যও প্রথম দুই রাউন্ড বিরাট সুযোগ হয়েই আসছে। তারকাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পারফরম করার ফল তো আরো বড় সুযোগও নিয়ে আসতে পারে। দারুণ কিছু করে কেউ না কেউ নিশ্চয়ই বড় পরিসরে সুযোগ পাওয়ারও দাবি জানাতে পারেন।

তরুণ ক্রিকেটারদের জন্য এবারের এনসিএল তাই অনেক বড় মঞ্চ। যে মঞ্চে একাধিক দলেই বড় কোনো না কোনো তারকা আছেন। আজ দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে চট্টগ্রামের প্রতিপক্ষ ঢাকা মেট্রোতেই যেমন আছেন মাহমুদ উল্লাহ। যাঁর উপস্থিতিতে পুরো দলই রোমাঞ্চিত বলে জানিয়েছেন ঘরোয়া ক্রিকেটের আরেক পরীক্ষিত পারফরমার ইলিয়াস সানী। এই বাঁহাতি স্পিনার বললেন, ‘যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের একজন পারফরমার ঘরোয়া ক্রিকেটে আসে, তখন এর অনেক বড় প্রভাব পড়ে। গত বছর সে খেলেনি, এবার আছে। এটি আমাদের জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি।’ ২৫ অক্টোবর থেকে ভারত সফরের অনুশীলন শিবির শুরুর আগে আরো একটি রাউন্ড খেলবেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। তাঁদের জন্য রান করে কিংবা উইকেট নিয়ে বড় সফরের আগে আত্মবিশ্বাস যথাসম্ভব বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ। তরুণদের জন্য সুযোগ তারকাদের সামনে পারফরম করে নিজেদের মেলে ধরার। দুই শ্রেণির ক্রিকেটারই যদি সুযোগটি কাজে লাগায়, তাহলে শুরু থেকেই এনসিএলও জমজমাট হয়ে উঠবে। সম্ভাব্য সে জমাট লড়াইয়ে আজ থেকেই শুরু হচ্ছে আরো তিনটি ম্যাচ। রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় স্তরের আরেক ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে বরিশাল-সিলেট। ফতুল্লায় প্রথম স্তরের ম্যাচে ঢাকার বিপক্ষে রাজশাহীর হয়ে নামছেন মুশফিকুর রহিমও। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে এই স্তরেরই আরেক ম্যাচে রংপুরের মুখোমুখি হচ্ছে আসরের সবচেয়ে তারকাবহুল দল খুলনা। তা নয়তো কী? ১৪ জনের দলে তারকাদের নামগুলো দেখুন—ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন এবং মুস্তাফিজুর রহমান। এঁদের মধ্যে শেষেরজন ছাড়া বাকি সবারই প্রথম ম্যাচে খেলার কথা আছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা