kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পাঁচ বছর পর আবার জার্মানি-আর্জেন্টিনা

৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পাঁচ বছর পর আবার জার্মানি-আর্জেন্টিনা

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পরাশক্তিদের দ্বৈরথ রীতিমতো ডালভাত। আন্তর্জাতিক ফুটবলে তা নয়। এই দেখুন না, আজ প্রীতি ম্যাচে যে মুখোমুখি হচ্ছে জার্মানি-আর্জেন্টিনা, তা পাঁচ বছর পর! ক্রিকেটে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া কিংবা ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা অথবা অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের পাঁচ বছর ধরে ম্যাচ হবে না—ভাবা যায়!

২০১৪ সালে আলবিসেলেস্তে-ডাই মেনশ্যাফট মুখোমুখি হয় সর্বশেষ। তাতে ৪-২ গোলে জয় আর্জেন্টিনার। কিন্তু উল্লাসে ভেসে যাওয়া কিংবা প্রতিশোধের তৃপ্তি তাতে ছিল না। সেটি যে নিতান্তই এক প্রীতি ম্যাচ। এর মাস দুয়েক আগে ব্রাজিলের মারাকানায় বিশ্বকাপে ফাইনালের মুখোমুখিতে জেতে তো জার্মানি। সেটিও নির্ধারিত ৯০ মিনিট পেরিয়ে অতিরিক্ত সময়ের শেষ দিকে মারিও গোেজর গোলে। অর্থহীন এক প্রীতি ম্যাচ জয় সে ক্ষতে প্রলেপ দেবে কিভাবে!

আজ বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ক্লাবের মাঠের লড়াইটিও প্রীতি ম্যাচ। তাতে আবার নেই লিওনেল মেসি। মেসিহীন আর্জেন্টিনাকেই তাই ঘরের মাঠে পাচ্ছে জার্মানি। প্রীতি ম্যাচে দুই দলের সর্বশেষ পাঁচ মুখোমুখিতে চার জয় আলবিসেলেস্তেদের; বাকি ম্যাচ ড্র। তাতে অবশ্য জার্মানির মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ার কথা নয়। কারণ যখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন, তখন ঠিকই জ্বলে ওঠে জার্মানরা। ২০০৬ এবং ২০১০ বিশ্বকাপ থেকে আর্জেন্টিনাকে বিদায় করেছে তারা, ২০১৪ ফাইনালেও ম্যাচের সঙ্গে জিতেছে বিশ্বকাপ।

এখন দুই দেশই আছে পুনর্গঠন প্রক্রিয়ায়; ২০১৮ বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর। রাশিয়ায় দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় আর্জেন্টিনার, আর ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে গিয়ে প্রথম রাউন্ডের গণ্ডিই পেরোতে পারেনি জার্মানি। ইওয়াখিম লোভ দলকে সাজাচ্ছেন নতুন করে। ফলও মিলছে। ইউরো বাছাই পর্বে নিজেদের গ্রুপে শীর্ষে আছে পাঁচ ম্যাচে চার জয়ে। আর্জেন্টিনা এনেছে নতুন কোচ লিওনেল স্কালোনিকে। তাঁর অধীনে কোপা আমেরিকায় হয়েছে তৃতীয়। আর সর্বশেষ ছয় ম্যাচে চার জয় থাকায় আকাশি-নীলদের আত্মবিশ্বাসের কমতি নেই। শুধু মেসি না থাকাতেই যত দুশ্চিন্তা।

জার্মানির দুশ্চিন্তার অবশ্য আরো কিছু কারণ রয়েছে। ইনজুরির কারণে স্ট্রাইকার টিমো ভেরনার গেছেন ছিটকে। ছিটকে যাওয়াদের দীর্ঘ তালিকায় ইলকে গুনদোয়ান, টনি ক্রোস, জোনাস হেক্টর, মাথিয়াস জিন্টারদের সঙ্গে যুক্ত হলো ওই নামটি। কোচ লোভের কণ্ঠে তাই হতাশা, ‘রবিবার সারা দিন ফোনে ফোনে কাটিয়েছি। তাতে খারাপ খবর ছাড়া আর কিছু পাইনি। এতজন একসঙ্গে ইনজুরির কারণে খেলতে না পারাটা আমাদের কাজ কঠিন করে দিয়েছে। কারণ তরুণ দলটির স্থিতি খুব প্রয়োজন। আবার এটিও ঠিক, এই ইনজুরিগুলো অন্যদের জন্য সুযোগ তৈরি করেছে।’

আর্জেন্টিনার দলে মেসির অনুপস্থিতি যেমন সুযোগ করে দিয়েছে পাউলো দিবালা, লাউতারো মার্তিনেসদের মতো তরুণদের। পরেরজন তা কাজে লাগান দারুণভাবে। গত মাসে মেক্সিকোর বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে করেন হ্যাটট্রিক। দিবালা ও অন্যরা আজ সে পদাঙ্ক অনুসরণ করলে জমজমাট দ্বৈরথের প্রত্যাশা করাই যায়।

হোক না প্রীতি ম্যাচ, না থাকুক এর কোনো গুরুত্ব—তবু জার্মানি-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথ বলে কথা! তাতে রোমাঞ্চ না থাকলে চলে! এএফপি

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা