kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাফুফের পেশাদারিত্বের নমুনা!

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক :  বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের এ কেমন পেশাদারিত্ব! ১৫ সেপ্টেম্বরে পাঠানো চিঠির জবাব ক্লাব হাতে পেয়েছে ২৩ তারিখে। এতে করে বসুন্ধরা কিংসের আর খেলা হলো না ইন্ডিয়ান সুপার লিগের দলের বিপক্ষে!

অ্যাতলেতিকো ডি কলকাতা একটি প্রীতি ম্যাচ খেলার প্রস্তাব দিয়েছিল বসুন্ধরা কিংসকে। বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন ক্লাবও সেটা লুফে নিয়ে খুব ইতিবাচক হয়েছিল। তারা চেয়েছিল কলকাতায় গিয়ে ২৯ তারিখ প্রীতি ম্যাচটি খেলতে। এ জন্য তারা জাতীয় দলের ক্যাম্পে থাকা তাদের খেলোয়াড় চেয়েছিল। আর এই চাওয়ার কথা জানিয়ে গত ১৫ সেপ্টেম্বর বসুন্ধরা কিংস বাফুফের বরাবর চিঠি দিয়েছিল। গতকাল সন্ধ্যায় মিলেছে এই চিঠির জবাব। সেটা হাতে পেয়েই কিংস প্রেসিডেন্ট ইমরুল হাসানের আক্ষেপ, ‘আমরা কি বাফুফের তরফ থেকে আরেকটু আন্তরিকতা ও পেশাদারিত্ব আশা করতে পারি না। এত দেরিতে তারা জবাব দিয়েছে, তখন আর কিছুই করার নেই।’ বাফুফে কালকের চিঠিতে খেলোয়াড় ছাড়া হবে না বলে দিয়েছে। ‘অথচ তাদের ভুটানের সঙ্গে প্র্যাকটিস ম্যাচ নিশ্চিত হয়েছে দুদিন আগে। তার আগে আমাদের কিন্তু খেলার অনুমতি দিয়ে দিতে পারত। তাতে করে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের একটি ক্লাব দলের সঙ্গে খেলে আমাদের খেলোয়াড়রা উপকৃত হতো।’ এটা একটি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কেরও বিষয়। দুই দেশের ক্লাব এভাবে খেলতে শুরু করলে সামগ্রিকভাবে ফুটবলের উন্নতি হয়। বাফুফের অপেশাদার আচরণে ফুটবলের ক্ষতি হচ্ছে অনেকখানি। অথচ ক্লাবের পেশাদারিত্বের দাবি করে মুখে ফেনা তুলে ফেলছেন বাফুফে কর্তারা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা