kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রাজা সেই নাদাল

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজা সেই নাদাল

চার ঘণ্টা ৫০ মিনিটের মহাকাব্য। পরতে পরতে ছড়ানো রোমাঞ্চ। প্রথম দুই সেট জিতে রাফায়েল নাদাল ইউএস ওপেন ফাইনালটা যখন একতরফা করছিলেন, তখনই দানিয়েল মেদভেদেভের লড়াই। ফিরে আসার অনন্য নজির গড়ে এই রাশানও জেতেন দুই সেট। শেষ সেটে আর পেরে ওঠেননি মেদভেদেভ। ৭-৫, ৬-৩, ৫-৭, ৪-৬, ৬-৪ গেমে জিতে ইউএস ওপেনের রাজা সেই নাদালই।

ইউএস ওপেনে চতুর্থ আর গ্র্যান্ড স্লাম ক্যারিয়ারে ১৯তম শিরোপা জয় নিশ্চিত হতেই নাদাল দুই হাত ছড়িয়ে শুয়ে পড়েন কোর্টে। আকাশের দিকে তাকিয়ে কৃতজ্ঞতা জানান সৃষ্টিকর্তাকে। এরপর চোখের জল মুছতে মুছতে ধরা গলায় বলেন, ‘আমার ক্যারিয়ারের অন্যতম আবেগী রাত। ম্যাচটি যেমন নাটকীয়তায় শেষ হলো, সেটা ভোলা যাবে না। আমি আবেগ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে গেছি। সব সময় সম্ভব হয় না সেটা। এই জয়ের বিশাল তাৎপর্য আমার কাছে। স্নায়ুর কঠিন পরীক্ষা নিয়েছে ম্যাচটি।’

ইউএস ওপনে নাদাল জিতলেন ক্যারিয়ারের ১৯তম গ্র্যান্ড স্লাম। তাঁর সামনে শুধু ২০ গ্র্যান্ড স্লাম নিয়ে রজার ফেদেরার। তবে ফেদেরারও যা পারেননি ৩৩ বছর বয়সী নাদাল করলেন সেটাই। বয়স ৩০ বছর ছাড়িয়ে যাওয়ার পর জিতেছেন সবচেয়ে বেশি পাঁচটি গ্র্যান্ড স্লাম। উন্মুক্ত যুগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বয়সী হিসেবে জিতেছেন ইউএস ওপেন। ১৯৭০ সালে কেন রোজওয়াল নিউ ইয়র্কে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন ৩৫ বছরে। চার ঘণ্টা ৫০ মিনিটের ফাইনালটা সময়ের হিসাবে ইউএস ওপেনের দ্বিতীয় দীর্ঘতম। ২০১২ সালে চার ঘণ্টা ৫৪ মিনিটের ফাইনালে নোভাক জোকোভিচকে হারিয়েছিলেন অ্যান্ডি মারে। ১৯৮৮ সালের ফাইনালে একই সময়ে ম্যাটস উইল্যান্ডার হারিয়েছিলেন ইভান ল্যান্ডলকে। এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা