kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সেরেনা নাকি আন্দ্রেস্কু?

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সেরেনা নাকি আন্দ্রেস্কু?

১৯৯৯ সালে প্রথম ইউএস ওপেন জেতেন সেরেনা উইলিয়ামস। বিয়াংকা আন্দ্রেস্কুর তখন জন্মই হয়নি! নতুন ইতিহাস গড়ার পথে আজকের ইউএস ওপেন ফাইনালে সেই আন্দ্রেস্কুই বাধা সেরেনার। সেমিফাইনালে এলিনা সভিতোলিনাকে ৬-৩, ৬-১ গেমে বিধ্বস্ত করেছেন ২৩ গ্র্যান্ড স্লাম জয়ী এই কিংবদন্তি। তাও মাত্র ৭০ মিনিটে। বিয়াংকা আন্দ্রেস্কু আরেক সেমিফাইনালে ৭-৬, ৭-৫ গেমে হারান বেলিন্দা বেনচিচকে। আজকের ফাইনাল জিতলে মার্গারেট কোর্টের ২৪ গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসাবেন সেরেনা। এ নিয়ে অবশ্য উত্তেজনায় কাঁপছেন না মোটেও, ‘কোর্টের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেলেও এখনো খেলে যেতাম আমি। এই রেকর্ড করার অনেক সুযোগ পেয়েছি, হয়তো সামনেও পাব। আমি শান্ত আছি। কারণ এমন একটা যুগে খেলছি, যখন আমার সঙ্গে লড়ছে অসাধারণ সব খেলোয়াড়।’

সেরেনা-আন্দ্রেস্কুর ম্যাচ কোর্টে গড়ানোর আগেই রেকর্ড হয়েছে একটা। উন্মুক্ত যুগে দুই ফাইনালিস্টের এত বেশি বয়সের ব্যবধান দেখা যায়নি আর। গত দুই বছর ইউএস ওপেনের বাছাই পর্বের বাধাই পার হতে পারেননি আন্দ্রেস্কু। সেই টিনএজারের সামনে এখন কানাডার প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউএস ওপেন জয়ের সুযোগ। তাঁর যেন বিশ্বাসই হচ্ছে না ব্যাপারটা, ‘অবাস্তব মনে হচ্ছে। সেরেনার মতো তারকার বিপক্ষে ফাইনাল খেলা মানে স্বপ্ন সত্যি হওয়া। এক বছর আগে কেউ যদি বলত ইউএস ওপেন ফাইনাল খেলব, পাগলই বলতাম তাঁকে!’ সেরেনার সঙ্গে ক্যারিয়ারে দেখা হয়েছে একবার। চোটের জন্য ম্যাচের মাঝপথে সরে দাঁড়িয়েছিলেন সেরেনা।

সন্তান জন্ম দেওয়ার পর এ নিয়ে চতুর্থ গ্র্যান্ড স্লাম ফাইনালে সেরেনা। আগের তিনবার আশা জাগিয়েও পারেননি মার্গারেট কোর্টকে ছুঁতে। সেই রেশ কাটিয়ে আরো একবার ইউএস ওপেনের ফাইনালে তিনি। গত পরশু সেমিফাইনালে এলিনা সভিতোলিনাকে হারানোটা ছিল এই টুর্নামেন্টে সেরেনার ১০১তম জয়। তাতে পাশে বসেছেন ইউএস ওপেনে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জেতা ক্রিস এভার্টের। আজ শিরোপা জিতলে ম্যাচের পাশাপাশি ইউএস ওপেনে এভার্টের ছয় গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের কীর্তি ছাড়িয়ে যাবেন সেরেনা। সেই সঙ্গে সন্তান জন্ম দেওয়ার পর উন্মুক্ত যুগে চতুর্থ খেলোয়াড় হিসেবে হাতছানি রয়েছে গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের। তাঁর আগে কীর্তিটা আছে মার্গারেট কোর্ট, ইভোনা গুলাগং ও কিম ক্লাইস্টার্সের। তাঁদের পাশে বসার আরো একটি সুযোগ হাতছাড়া হবে না তো সেরেনার? এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা