kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সাঁতারের জাপানিজ কোচ

নেপালের উচ্চতাই মূল চ্যালেঞ্জ

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নেপালের উচ্চতাই মূল চ্যালেঞ্জ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : কাঠমাণ্ডুতে অন্যান্য দেশের প্রতিদ্বন্দ্বী ছাড়াও বাড়তি আরেকটা চ্যালেঞ্জ নিতে হবে অ্যাথলেটদের, সেটা হলো উচ্চতা। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৪০০ ফুট উঁচুতে পারফরম করতে বাড়তি কিছুরই প্রয়োজন হয়। সাঁতারের নতুন জাপানি কোচ তাকেও ইনোকি কাল ঢাকায় পা রেখেই এসএ গেমসের প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এই উচ্চতার চ্যালেঞ্জের কথাই বলেছেন সবার আগে, ‘সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এই উচ্চতায় পারফরম করাটা সহজ নয়। হুট করে গিয়েই ভালো কিছু করা যাবে না। সবচেয়ে ভালো হতো আমরা আগেভাগে যদি ওখানে গিয়ে বা এ রকম অন্য কোথাও গিয়ে প্রস্তুতির সুযোগ পেতাম।’

মাত্র তিন মাসের সময় নিয়ে তিনি ঢাকায় এসেছেন। এই সময়ে একটি গেমসের জন্য খেলোয়াড়দের তৈরি করাটাও বিরাট কঠিন কাজ। কী করে তিনি সেই চ্যালেঞ্জটা সামলাবেন, এমন প্রশ্নে হংকং সাঁতার দলের সাবেক কোচ আশ্বস্তই করতে চেয়েছেন, ‘এই সময়ের মধ্যে বিস্তারিত কাজের সুযোগ নেই। আমি প্রথমে সাঁতারুদের দেখব, দেখব ঠিক কোন জায়গাটায় ওদের একটু ঘষামাজা করে দিলে পারফরম্যান্স অনেকটা এগিয়ে যাবে। আমি সে চেষ্টাই করব।’ এসএ গেমসে গতবার বাংলাদেশের চারটি সোনার দুটিই এসেছে সাঁতার থেকে। এই রেকর্ডটাও তাকেওর লক্ষ্য ঠিক করে দিচ্ছে—‘এবার আমরা আরো ভালো কিছুরই চেষ্টা করব’ বলে প্রতিশ্রুতিও তাঁর। তবে সেই চেষ্টার পথেই নেপালের উচ্চতা এখন তাঁর সামনে এক নম্বর বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। ফেডারেশন বা বিওএ কি এর সমাধান দিতে পারবে?

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা