kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ওপেনিং নিয়ে দুর্ভাবনায় দুই দলই

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ওপেনিং নিয়ে দুর্ভাবনায় দুই দলই

বল ও জার্সির রং বদলের সঙ্গে সঙ্গে ভাগ্যেরও কী নিদারুণ পরিবর্তন! ডেভিড ওয়ার্নার ও জেসন রয়, বিশ্বকাপে নিজ দলের হয়ে ইনিংসের সূচনায় দুজনেই ছিলেন দারুণ সফল। ওয়ার্নারের রান ১০ ইনিংসে ৬৪৭, দুই ইনিংস কম খেলে রয়ের ৪৪৩। অথচ বিশ্বকাপের পর অ্যাশেজ শুরু হতে হতে সেই ধার চলে গেল দুজনের ব্যাট থেকে। তিন টেস্টে ছয় ইনিংসে এখন পর্যন্ত একটি মাত্র হাফসেঞ্চুরি, বাকি ৫ ইনিংসে দুই অঙ্কেও যেতে পারেননি ওয়ার্নার। অন্যদিকে রয়েরও একই অবস্থা। চারটি ইনিংসে দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি, বাকি দুটিতে ১০ আর ২৮! হেডিংলির নাটকীয় জয়ের পর অ্যাশেজে ১-১ সমতা, ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে এগিয়ে যাওয়ার লড়াই। তার আগে দুই দলেরই দুশ্চিন্তার নাম ওপেনিং।

ইনিংসের সূচনায় তিন টেস্টে ওয়ার্নার পেয়েছেন দুজন সঙ্গী। ইংল্যান্ড তিন টেস্টেই খেলিয়ে গেছে রোরি বার্নস আর রয়কে। বার্নস একটি শতরান, একটি অর্ধশত রানের ইনিংস খেলে নিজের জায়গাটা নিঃসন্দেহে ধরে রাখছেন। তবে রয়কে খুব সম্ভব ম্যানচেস্টারে দেখা যাবে না ইনিংসের সূচনায়। বিবিসির সূত্র জানাচ্ছে, রয়কে চারে নামিয়ে জো ডেনলিকে উদ্বোধনে পাঠানোর চিন্তা-ভাবনা করছে ইংল্যান্ডের টিম ম্যানেজমেন্ট। অস্ট্রেলিয়া দলে স্মিথ ফিরলে তাঁকে জায়গা দিতে একজনকে বাইরে যেতেই হবে। সে ক্ষেত্রে হ্যারিসকে সরিয়ে উসমান খাজাকে ঠেলে দেওয়া হতে পারে ইনিংসের শুরুতে। ডার্বিশায়ারের সঙ্গে ট্যুর ম্যাচে হ্যারিস আর খাজা মিলেই ইনিংসের গোড়াপত্তন করেছিলেন, হ্যারিস করেন ৬৪ রান আর খাজা ৭২। খাজাকে অধিনায়ক বানিয়ে টিম পাইনকে বসিয়ে রাখার একটা ছকের কথাও শোনা গিয়েছিল ট্যুর ম্যাচে খাজাকে অধিনায়কত্ব করতে দেখে। অথচ সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক মার্ক টেলর খাজাকে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে একাদশেই দেখছেন না, ‘ইনিংসের শুরুতে ওয়ার্নার ও হ্যারিসের টিকে থাকা উচিত। ওরা মাত্র একটি টেস্ট খেলল, হ্যারিসের এখনো নিজেকে প্রমাণ করতে হবে। লাবুশানেকে রাখতেই হবে, আমার মনে হয় বাদ পড়া উচিত খাজার। কারণ ইদানীং সে রান করছে না। আমি খুব বেশি পরিবর্তনের পক্ষপাতী নই। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা এমন একটি ম্যাচ হেরেছি, যেটি আমরা জিততে পারতাম আর অ্যাশেজ আমাদের হতো।’ বিবিসি, সিএ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা