kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

সামনে গেমস বলে অ্যাথলেটরা সিরিয়াস ছিল

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সামনে গেমস বলে অ্যাথলেটরা সিরিয়াস ছিল

ডিসেম্বরে এসএ গেমসের আগে এবারের সামার মিটে নিজেদের পরখ করার সুযোগ পেয়েছেন অ্যাথলেটরা। নতুন চারটি রেকর্ড হয়েছে এবার। এসএ গেমসে সোনা, রুপা এখন দূরের ব্যাপার, ব্রোঞ্জের মানে পারফরম্যান্স আছে কয়েকজন অ্যাথলেটের। এসব নিয়েই কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেছেন অ্যাথলেটিকস কোচ আব্দুল্লাহেল কাফি

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : সব মিলিয়ে কেমন হলো এবার জাতীয় অ্যাথলেটিকস?

আব্দুল্লাহেল কাফি : ভালো হয়েছে। যথেষ্ট প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল। ছেলেদের ১০০ মিটার স্প্রিন্টই দেখেছেন কতটা হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। সেনাবাহিনী অনেক দিন পর দ্রুততম মানব পেয়েছে। সামনে এসএ গেমস বলে অ্যাথলেটরা খুব সিরিয়াস ছিল এই আসরে নিজেকে প্রমাণ করার জন্য।

প্রশ্ন : আসরের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য পারফরমার কে, হাসান মিয়া নাকি মাহফুজুর রহমান?

কাফি : দুজনের পারফরম্যান্সই উল্লেখযোগ্য। মাহফুজ খুব ভালো লাফিয়েছে। এসএ গেমসে ওকে নিয়ে আমরা আশা করতেই পারি। ১০০ মিটারে হাসানের ফেরাটাও দারুণ ব্যাপার। শারীরিকভাবেও ও দারুণ শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। গত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের পর থেকে ও বেশ উন্নতি করেছে। এসএ গেমসে ওকে নিয়েও আমি দারুণ আশাবাদী।

প্রশ্ন : হাসান, মাহফুজসহ চার অ্যাথলেটের পারফরম্যান্স এবার এসএ গেমসে পদক পাওয়ার উপযোগী, এটা নিয়ে কী বলবেন?

কাফি : ছেলেদের রিলে দলও কিন্তু ভালো করেছে। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী মিলিয়ে গেমসে আমরা একটা ভালো রিলে দল পাব আশা করি। তাতে পদকের সম্ভাবনা থাকবে। আর জহির রায়হানের টাইমিং এবার হয়তো অতটা ভালো হয়নি, তারও কারণ আছে। তবে আমি আশা করি, গেমসের আগে ও সেরা ফর্মে চলে যাবে। আর হাইজাম্পে রুমকিও বেশ ভালো করেছে। শিরিন রেকর্ড গড়েছে ২০০ মিটারে। টাইমিংটা আরেকটু কমিয়ে আনতে পারলে গেমসে ওরও সম্ভাবনা থাকবে।

প্রশ্ন : ডিসেম্বরের আগে নিশ্চয় সেই সুযোগ আছে সবারই?

কাফি : হ্যাঁ, এই সময়টা কাজে লাগাতে পারলে অবশ্যই টাইমিংয়ে উন্নতি আনা সম্ভব। আমার বিশ্বাস অ্যাথলেটরা এই সিরিয়াসনেসটা ধরে রাখবে বাকি সময়টাতেও। আগের আসরগুলোর তুলনায় এই আসরে টাইমিংয়ে উন্নতি হয়েছে বেশির ভাগ খেলোয়াড়েরই। এটা অবশ্যই ইতিবাচক দিক। আমি আশা করি এই ইতিবাচকতা নষ্ট হবে না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা