kalerkantho

লিভারপুলের রাতে পয়েন্ট খুইয়েছে রিয়াল

২৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



লিভারপুলের রাতে পয়েন্ট খুইয়েছে রিয়াল

চেষ্টা করেছিল আর্সেনাল। প্রতিরোধও গড়েছিল। কিন্তু রাজসিক লিভারপুলের সামনে তা পাত্তা পায় কিভাবে! বিরতির ঠিক আগে এবং ঠিক পরের ঝড়ে ‘গানার’দের উড়িয়ে ইংলিশ লিগের নতুন মৌসুমে শতভাগ জয়ের রেকর্ড অক্ষুণ্ন রাখল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। একমাত্র দল হিসেবে!

প্রথম দুই রাউন্ডের জয়ে সে সিংহাসনের যৌথ অধিকার ছিল লিভারপুল ও আর্সেনালের। পরশু এ দুই দল মুখোমুখি হওয়ায় রোমাঞ্চ ছড়ায় খুব। ৯০ মিনিট শেষে সে রোমাঞ্চের রেণু শুধুই লিভারপুলের। ৩-১ গোলের জয়ে ৩০ বছরের লিগ শিরোপাখরা ঘোচানোর অভিযান আরো জোরালোভাবে শুরু হয়েছে বলে! পাশাপাশি লিগ ম্যাচে টানা জয়ের ক্লাব রেকর্ডে নাম লেখানোর জন্যও। ১৯৯০ সালের এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত লিগে টানা ১২টি ম্যাচ জেতার সেই পুরনো রেকর্ড। সময়টা খেয়াল করে দেখুন। ‘অল রেড’দের সর্বশেষ লিগ শিরোপা জয়ের মৌসুম থেকে টেনে দীর্ঘ সাফল্যখরার প্রথম মৌসুম পর্যন্ত। পরশুর জয়টি ছিল লিগে টানা দ্বাদশ; যার শুরু গত মৌসুমের শেষ ৯ ম্যাচে। এবারের মৌসুমের প্রথম তিন ম্যাচ জিতে পূর্বসূরিদের সে রেকর্ডে ভাগ বসালেন সালাহ-ফিরমিনো-মানেরা। তাহলে কি লিগ শিরোপাখরাও ঘুচবে?

কুসংস্কার কিংবা কাকতালে বিশ্বাসী লিভারপুল সমর্থকদের আশাবাদী হওয়ার কারণ রয়েছে বৈকি।

পরশুর ম্যাচটি লিভারপুল খেলেছেও দুর্দান্ত। বিরতির মিনিট চারেক আগে জোয়েল মাতিপের হেডে এগিয়ে যায়। বিরতির মিনিট চারেক পর পেনাল্টি থেকে সালাহ দ্বিগুণ করেন ব্যবধান। নিজেদের পেনাল্টি এরিয়ায় নির্বোধের মতো জার্সি টেনে ফাউল করা দাভিদ লুইজের দায় তৃতীয় গোলেও। এবার ফাবিনহোর পাসে ওই ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডারকে ধোঁকা দিয়ে পেরিয়ে দুর্দান্ত গোল সালাহর। লিভারপুল কোচ ক্লপ তাই ভীষণ উচ্ছ্বসিত, ‘মৌসুমের শুরুর দিকেই আমার দল খেলল দুর্দান্ত এক ম্যাচ। শক্তি-উদ্দীপনা-লোভ-আবেগে ভরপুর পারফরম্যান্স। আর্সেনালের মতো ভালো দলের বিপক্ষে অমনটাই প্রয়োজন ছিল।’

লিভারপুল যখন স্বর্ণসময়ে প্রত্যাবর্তনের সৌরভ পাচ্ছে, তাদের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তখন তলিয়ে যাচ্ছে ক্রমশ। লিগের নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচ জিতেছিল; পরেরটি ড্র। আর পরশু তো ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে ১-২ গোলে হেরেই গেল। জর্ডান আইয়ুর গোলে প্রথমার্ধে পিছিয়ে থাকার পর ৭০ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরানোর সুযোগ আসে। কিন্তু পেনাল্টি থেকে গোল করতে পারেন না মার্কাস রাশফোর্ড। ৮৯তম মিনিটে ড্যানিয়েল জেমসের গোলে তবু মুখরক্ষা বলে মনে হচ্ছিল। কিন্তু ইনজুরি সময়ে গোল খেয়ে হেরেই যায় ম্যানইউ। তবে জিতেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। সের্হিয়ো আগুয়েরোর জোড়া গোলের সঙ্গে রাহিম স্টার্লিংয়ের লক্ষ্যভেদে সিটিজেনরা ৩-১ গোলে হারিয়েছে বোর্নমাউথকে।

স্প্যানিশ লা লিগায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেই পয়েন্ট খুইয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। রিয়াল ভায়াদোদিলের সঙ্গে ড্র করেছে ১-১ গোলে। দুই ম্যাচেই রিয়ালের একাদশে ছিলেন না গ্রীষ্মে ৩০০ মিলিয়ন ইউরোরা বেশি খরচ করে কেনা পাঁচ ফুটবলারের কেউ। এডেন হ্যাজার্ড ও ফেরলান্দ মেনিদ ইনজুরিতে; লুকা ইয়োভিচ ও এদার মিলিতাও বেঞ্চে এবং রদ্রিগো অভিজ্ঞতা বাড়াচ্ছেন ‘বি’ দলে। জিনেদিন জিদানের ভরসা তাই পুরনোরাই। এমনভাবেই যে, গ্রীষ্মে নিশ্চিতভাবে দল ছাড়ার পথে থাকা গ্যারেথ বেল ও হামেস রদ্রিগেসকে পর্যন্ত রাখতে হয় একাদশে।

গড়পড়তা রিয়াল তবু পার পেয়ে যাবে বলে মনে হচ্ছিল ৮২তম মিনিটে করিম বেনজিমার গোলে। কিন্তু ৮৮তম মিনিটে সের্হি গার্দিওলার লক্ষ্যভেদে ২ পয়েন্ট হারিয়ে বার্নাব্যু ছাড়তে হয় জিদাদের দলকে। ম্যাচ শেষে তাঁর হতাশা অনুমেয়, ‘তেতো স্বাদে শেষ হলো ম্যাচটি। কেননা আমরা গোল করার কঠিনতম কাজটি করেছিলাম, কিন্তু সময়ের দাবি মিটিয়ে আমাদের আরেকটু নেতিবাচক হওয়া উচিত ছিল।’ এ ছাড়া লা লিগার ম্যাচে সেল্তা ভিগো ১-০ গোলে ভ্যালেন্সিয়াকে হারিয়েছে। ১-১ ড্র হয়েছে গেতাফে-আথলেতিক বিলবাও ম্যাচ।

ইংল্যান্ড ও স্পেনে নতুন লিগ মৌসুম শুরু হয়েছে আগেই। ইতালিতে পরশু। তাতে টানা নবম শিরোপা জয়ের অভিযানে ছোটা জুভেন্টাসের শুরু পারমাকে ১-০ গোলে হারিয়ে। গোলদাতার নামটি চমক জাগানিয়া; ডিফেন্ডার জর্জিও কিয়েল্লিনি। ১৪ বছরের জুভ ক্যারিয়ারে এটি তাঁর মাত্র ২৭তম গোল। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর ম্যাচ শেষ হয়েছে গোল না পাওয়ার হতাশায়। নিউমোনিয়ার কারণে ডাগআউট না থাকা জুভেন্টাসের নতুন কোচ মরিসিও সারির জয়ের শুরুতে নিশ্চয়ই আনন্দিত। লিগের আরেক রোমাঞ্চকর ম্যাচে নাপোলি ৪-৩ গোল হারিয়েছেন ফিওরেন্তিনাকে।

জার্মান বুন্দেসলিগায় দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম জয় পেয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। রবার্ত লেভানদোস্কির হ্যাটট্রিকে শালকেকে ৩-০ গোলে হারায় তারা। এএফপি

মন্তব্য