kalerkantho

এখনই অবসরে ‘না’ মাশরাফির

১৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এখনই অবসরে ‘না’ মাশরাফির

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দুপুরের কিছু পরে বিসিবি সভাপতির রুম থেকে বেরিয়ে আসেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। এরপর আক্ষরিক অর্থেই পড়িমড়ি তাঁর পিছু নেয় গণমাধ্যম। সম্ভাব্য অবসর নিয়ে যদি কিছু বলেন! তা বলেননি। তবে বোর্ডকে নিজের মনোভাব জানিয়েছেন স্পষ্ট। তাতেই স্পষ্ট, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে আয়োজন করে মাশরাফিকে বিদায় দেওয়ার যে পরিকল্পনা বিসিবির, সেটি বাস্তবায়িত হচ্ছে না।

আদৌ কি মাঠ থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলতে পারবেন মাশরাফি? সে প্রশ্নটি অমীমাংসিতই থেকে যাচ্ছে।

তাঁর অবসর নিয়ে অনেক গুঞ্জন। হরেক গুজব। বহু কথাবার্তা। মাশরাফি বিন মর্তুজার কাছ থেকে এ বিষয়ে নির্দিষ্ট কিছু জানা যায়নি এত দিন। বোর্ডের তরফ থেকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ আয়োজনের কথা বলা হয়েছে গণমাধ্যমে। কিন্তু মাশরাফিকে সেটি আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছে কালই। তাতে সম্মতি না জানিয়ে আরো সময় চেয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। নতুন কোচ নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি অবসর নিয়েও মাশরাফির সঙ্গে কথা হওয়ার কথা জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান, ‘মাশরাফি বোর্ডে এসেছিল দুই কারণে। সাকিবের সঙ্গে কোচ নিয়ে আলাপ করেছি; যেহেতু সে একজন অধিনায়ক। মাশরাফিও অধিনায়ক; তাই তাকেও জানানো হলো। আরেকটি ব্যাপার, জিম্বাবুয়ের সঙ্গে একটি ওয়ানডের আয়োজন করব কি না—সে ব্যাপারে জিজ্ঞেস করেছিলাম। ও কী মনে করে। ও মনে করে, যেহেতু আগামী মার্চের (জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম সিরিজ) আগে আমাদের কোনো ওডিআই নেই। সে জন্য এক্ষুনি সিদ্ধান্ত না জানাতে হলে তার জন্য সুবিধা হয়। দুই মাস পরে হলে মাশরাফি সিদ্ধান্ত নিতে পারবে যে, ওর পরিকল্পনা কী। এমনটাই ও চিন্তা করেছে। আমরা বলেছি, ঠিক আছে।’

তবে ব্যাপারটি নিয়ে বোর্ড যে খানিক বিরক্ত, সেটি প্রকাশ পেয়েছে বিসিবি সভাপতি নাজমুলের আরেক কথায়। মাশরাফিকে বিদায়ের সুযোগ দিয়ে যেমন ইতিবাচক দৃষ্টান্ত রাখতে চাইছে, সব সিনিয়রদের বেলায় তেমন করা হবে কি না—এমন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি এভাবে, ‘জিনিসটি শুধু বোর্ড দিয়ে হয় না। এটি খেলোয়াড়ের মাথায়ও চিন্তা আসতে হয়। ধরেন একজন খেলোয়াড় যদি চিন্তা করে যে আমি যাব না, আমাকে বাদ দিয়ে দিন—তাহলে লাভ কী হলো? এটা তো আমরা চাই না। আমরা ভালোভাবে, সুন্দরভাবে এসব ব্যাপার করতে চাই। তবে সিদ্ধান্ত তার কাছে। সে যদি সিদ্ধান্ত নিতে পারে তাহলে নেবে। তা না হলে বোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে। আমরা তাদেরকে সুযোগ দেব সব সময় ভালোভাবে সব কিছু করার।’

মাশরাফিকে বলেননি বোর্ড সভাপতি। তবে মাশরাফিকে কেন্দ্র করেই বলা। তাতেই অমন প্রশ্ন।

মন্তব্য