kalerkantho

নেইমার হয়ে যেতে পারেন রিয়ালেরও

১০ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নেইমার হয়ে যেতে পারেন রিয়ালেরও

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়ার ইচ্ছা খোলাখুলিই জানিয়েছেন পল পগবা। এই ফরাসি মিডফিল্ডারকে যে ভীষণ পছন্দ জিনেদিন জিদানের, সেটিও গোপন করেননি রিয়াল মাদ্রিদ কোচ। দুয়ে দুয়ে চার তাই মিলে যাওয়ার কথা। কিন্তু সেটি বোধকরি এই গ্রীষ্মের দলবদলে হচ্ছে না।

আর এখানেই দৃশ্যপটে চলে আসছেন নেইমার। পগবার না আসার আশঙ্কায় প্যারিস সেন্ত জার্মেই থেকে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের রিয়াল মাদ্রিদে আসার সম্ভাবনা তাই বেড়েছে বহুগুণ।

স্প্যানিশ লা লিগায় দলবদলের সময়সীমা ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। পগবাকে দলে টানার জন্য তাই এখনো রিয়াল মাদ্রিদের হাতে আছে সপ্তাহ তিনেক সময়। তবে তা শুধুই কাগজ-কলমে। পরশু ইংল্যান্ডের দলবদলের সময় পেরোনোর সমান্তরালেই আসলে শেষ হয়ে যায় ফরাসি মিডফিল্ডারের মাদ্রিদ যাওয়ার সম্ভাবনা। এমনিতেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তাঁকে ছাড়তে চায় না। তার ওপর পগবাকে ছেড়ে দিলে এখন বিকল্প হিসেবে অন্য কাউকে কিনতেও পারবে না। রিয়াল তাই পগবা থেকে মনোযোগ সরিয়ে তা ফেলছে নেইমারের ওপর।

‘নেইমার আবার দৃশ্যপটে ফিরেছে। আর রিয়াল মাদ্রিদও মনে করছে, ফরোয়ার্ড লাইনে বড় এক তারকার অভাব রয়েছে’— লিখেছে স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা। পিএসজি ছাড়ার জন্য মরিয়া নেইমার। ফরাসি ক্লাবটিও তাঁকে ধরে রাখার জন্য ব্যাকুল না। তবে দুই বছর আগে বার্সেলোনা থেকে তাঁকে কেনার জন্য যে ২২২ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেছিল দলটি, তা ফেরত পেতে চায়। নইলে অন্তত এর অর্ধেক অর্থ এবং বাকিটা খেলোয়াড় অদল-বদলে পুষিয়ে নেওয়ার ইচ্ছা। ওই দ্বিতীয় ধরনের দলবদলেই নেইমারকে পাওয়ার সুযোগ রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদের। বার্সেলোনারও।

স্প্যানিশ দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবের দরজা এখন খোলা ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের জন্য। তাঁর ইচ্ছা পুরনো ক্লাব বার্সেলোনায় প্রত্যাবর্তন, এমনটাই জানিয়েছে আরেক দৈনিক মুন্দো দেপোর্তিভো, ‘এটি স্পষ্ট যে, নেইমার বার্সেলোনায় ফিরতে চায়।’ দিয়ারিও স্পোর্ত এর সঙ্গে যোগ করেছে, ‘বার্সার জন্য সুবিধা হলো, মেসি-সুয়ারেসদের সঙ্গে নেইমারের আবার খেলার আগ্রহ। মাঠের ফুটবলে ওদের দারুণ বোঝাপড়া; মাঠের বাইরেও দুর্দান্ত বন্ধুত্ব।’

তবে পিএসজির সঙ্গে বার্সেলোনার সম্পর্কটা ঠিক বন্ধুত্বপূর্ণ নয়। এখানটাতেই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের ভবিষ্যৎ বার্নাব্যুতে দেখছে মার্কা, ‘বার্সায় যাওয়া নেইমারের অগ্রাধিকার না; ও সবচেয়ে বেশি করে চায় পিএসজি ছাড়তে। সেই ক্লাবের সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের দারুণ সম্পর্ক। বার্সেলোনার সঙ্গে যেটি ঠিক উল্টা।’ আর শেষ পর্যন্ত নেইমারের দলবদলে তাঁর নিজের লাভটাই বড় করে দেখছে স্পোর্ত, ‘বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদের মধ্যে যে ক্লাবই ওকে নিতে পারে, সেটি অন্য ক্লাবের জন্য হবে বড় আঘাত। অবশ্যই এখন নেইমারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, সে কোন ক্লাবে খেলবে। বার্সেলোনা চায়, ও যেন নু ক্যাম্পে ফেরার আশাবাদ প্রকাশ্যে জানায়। কিন্তু তাতে ঝুঁকি আছে। যদি বার্সা-পিএসজির মধ্যে কোনো সমাঝোতা না হয়, তাহলে ফ্রান্সের রাজধানীতে তৃতীয় বছরের মতো আটকে যাবেন নেইমার।’

সেটি হবে সোনার খাঁচায় আটকে যাওয়ার শামিল! এএফপি

মন্তব্য