kalerkantho

ম্যানসিটির হ্যাটট্রিক নাকি লিভারপুলের প্রথম!

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



ম্যানসিটির হ্যাটট্রিক নাকি লিভারপুলের প্রথম!

প্রাক-মৌসুম প্রীতি বিনিময়ের পালা শেষ। এবার প্রতিযোগিতার পালা। শনিবার মাঠে গড়াচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ২৮তম মৌসুম। বিদেশ বিভুঁই ঘুরে, বিশ্রাম নিয়ে, নতুন করে দল গুছিয়ে; সব রকম প্রস্তুতি সেরে তৈরি ইংল্যান্ডের শীর্ষ ২০ ফুটবল দল। প্রিমিয়ার লিগে এবারে উঠে এসেছে নরউইচ সিটি, শেফিল্ড ইউনাইটেড আর অ্যাস্টন ভিলা। গত মৌসুমের তিনটি দল হারিয়েছে জায়গা, তারা হচ্ছে ফুলহাম, কার্ডিফ সিটি ও হাডার্সফিল্ড টাউন। শেষ পর্যন্ত একটাই প্রশ্ন সামনে রেখে শুরু হচ্ছে সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফুটবল লিগ। সেই লাখ টাকার প্রশ্নটা হচ্ছে, এবার কি হ্যাটট্রিক হবে ম্যানচেস্টার সিটির নাকি আক্ষেপ ঘুচবে লিভারপুলের?

প্রথম বিভাগ আমলে ম্যানসিটি সব শেষ শিরোপা জিতেছিল ১৯৬৭-৬৮ মৌসুমে। এরপর যখন তারা ইংল্যান্ডের ‘টপ ফ্লাইট ট্রফি’ জিতল, তত দিনে হয়ে গেছে প্রিমিয়ার লিগ। ২০১১-১২ মৌসুমে শিরোপা জিতে তারা কাটাল খরা, এরপর বানের জলের মতোই প্রিমিয়ার লিগ ট্রফি আসতে লাগল ইস্ট এন্ডে। ২০১৩-১৪ মৌসুমেও তারা চ্যাম্পিয়ন হলো। পেপ গার্দিওলা এসে নিজের প্রথম মৌসুমে তো শিরোপা জেতাটা ছেলেখেলা বানিয়ে ফেললেন, ম্যানসিটি চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ১৯ পয়েন্টের ব্যবধানে। তবে পরের মৌসুমে টের পেয়েছেন প্রিমিয়ার লিগের ঝাঁজটা। শেষ দিনে এসে নিষ্পত্তি হয়েছে লিগের, তাও মাত্র ১ পয়েন্টের ব্যবধানে। লিভারপুল একটা সময়ে ৭ পয়েন্ট এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত পারেনি প্রিমিয়ার লিগ জয়ের আক্ষেপ ঘোচাতে। নাম বদলের আগে, প্রথম বিভাগে ১৮ বারের লিগ চ্যাম্পিয়নরা প্রিমিয়ার লিগ আমলে যে একবারও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। সেই আক্ষেপ ঘোচানোর এর চেয়ে বড় সুযোগ আর কি আসবে? অ্যানফিল্ডের বাসিন্দারা অবশ্য ভরসা রাখছেন তাদের ইউরোপসেরা বানানো কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের ওপর।

প্রিমিয়ার লিগ আমলে শিরোপা জয়ের হ্যাটট্রিক করার কৃতিত্ব একটা দলেরই আছে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ১৯৯৮ থেকে ২০০১, টানা তিন মৌসুম ট্রফি গিয়েছিল ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। এরপর আবার ২০০৭ থেকে ২০০৯, টানা তিন শিরোপা। যদিও রেড ডেভিলদের সাম্প্রতিক দিনকাল একদমই ভালো যাচ্ছে না। ওদিকে ম্যানচেস্টার ক্রমশ লাল থেকে নীলে বদলে যাচ্ছে। নগর প্রতিদ্বন্দ্বীরা যদি এই কীর্তিও ছুঁয়ে ফেলে, তাহলে বোধ হয় অক্ষম ক্ষোভই সম্বল হয়ে থাকবে ম্যানইউ সমর্থকদের। রক্ষণের জোর বাড়াতে এরই মধ্যে আকাশছোঁয়া দামে হ্যারি ম্যাগুয়ারকে কিনেছে ম্যানইউ। এই মৌসুমেই একেবারে শুরু থেকে পূর্ণকালীন কোচ হিসেবে দায়িত্ব শুরু করতে যাচ্ছেন ওলে গানার শোলসকায়ের। সাবেক এই খেলোয়াড়ের ওপর একটা সময়ে দারুণ আস্থা রেখেছিলেন সমর্থকরা, কিন্তু ‘সারথি’ পূর্ণ মেয়াদে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যে জয়রথ বসে যায় ম্যানইউর! ঘরে ফিরেছেন ফ্র্যাংক ল্যাম্পার্ডও। চেলসির সাবেক ফুটবলার এখন চেলসির কোচের দায়িত্বে। প্রায় দুই দশক পর, প্রথম কোনো ইংরেজকে দেখা গেল চেলসির কোচের চেয়ারে। তিন বছরের জন্য চেলসির সঙ্গে চুক্তি ল্যাম্পার্ডের। খেলোয়াড়ি জীবনের সাফল্য কোচ হিসেবে অনূদিত করতে পারলে হয়তো মেয়াদটা আরো বাড়বে। ২০ দলের কোচ তালিকায় চোখ বোলালে পাওয়া যাবে অনেক বড় বড় নাম, যাঁরা জাতীয় দলকে কোচিং করিয়েছেন কিংবা আগে লিগ শিরোপা জিতেছেন। উনাই এমেরি, ম্যানুয়েল পেল্লেগ্রিনি, ব্রেন্ডন রজার্স, রয় হজসনরা তো আছেনই, অন্যরাও কম যান না। তাঁদের ভিড়ে, কিছুদিন আগেও মাঠে খেলোয়াড় হিসেবে দৌড়ে বেড়ানো শোলসকায়ের, ল্যাম্পার্ডরা কেমন করবেন সেটাও দেখবার বিষয় হবে। মূল লড়াইটা যে ক্লপ আর গার্দিওলার মধ্যেই হবে, সেটা অনেকটাই নিশ্চিত। তবে আসরটা ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ বলেই অঘটনের শঙ্কা জোরালো। এই দুইয়ের ডুয়েলকে ত্রিমুখী লড়াইয়ে পরিণত করতে পারেন মুরিসিও পচেত্তিনো!

গত মৌসুমের রানার্সআপ লিভারপুলের বিপক্ষে প্রিমিয়ারে উঠে আসা নরউইচের ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগের এবারের মৌসুম। শুক্রবার রাতে এই একটিই ম্যাচ। পরের দুটো দিন শনিবার ও রবিবারে ব্যস্ত সূচী। শনিবার ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শিরোপাধারী ম্যানচেস্টার সিটি শুরু করতে যাচ্ছে সপ্তম শিরোপার অভিযান। একই দিনে নবাগত শেফিল্ড খেলবে বোর্নমাউথের সঙ্গে, সন্ধ্যায় টটেনহাম মুখোমুখি হবে অ্যাস্টন ভিলার। রবিবার, লিগের গোড়াতেই বড় ম্যাচ। মুখোমুখি ম্যানইউ-চেলসি। সেটাও ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে!

লিগ শুরুর আগে গার্দিওলা বললেন, গোটা আসরে যে দল মনোযোগ আর স্বাস্থ্য ধরে রাখতে পারবে শিরোপা তারই জেতা সম্ভব, ‘প্রিমিয়ার লিগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে আসরজুড়ে মনোযোগ আর খেলোয়াড়দের সুস্থতা ধরে রাখা। এই আসরটা অন্যগুলোর চেয়ে আলাদা, কারণ এখানে প্রতি সপ্তাহান্তেই মাঠে নামতে হচ্ছে। চ্যাম্পিয়নস লিগে একটি-দুটি ম্যাচেই অনেক কিছু হয়ে যেতে পারে। এই মৌসুমে যদি আমি একটা কিছু চাই, সেটা হচ্ছে শিরোপা।’ হুমকি তো দিয়েই রেখেছেন গার্দিওলা, অন্যরা কি শুনছেন!

অন্যদিকে কমিউনিটি শিল্ডে ম্যানসিটির কাছে টাইব্রেকারে হারার পর আজই মাঠে নামছে লিভারপুল। অন্য সব দল যখন দলবদলে মুঠো মুঠো টাকা খরচ করছে, তখন ইউরোপের চ্যাম্পিয়নরা বেশ চুপচাপ। ক্লপ এই ব্যপারে বলেছেন,‘ অন্যরা টাকা খরচ করছে দেখে কখনোই টাকা খরচ করে খেলোয়াড় কেনা উচিত না। এই দলটা দেখলে কি মনে হয় আমাদের আরও খেলোয়াড় দরকার?’ এই মৌসুমে দুটো বাড়তি শিরোপা জেতার সুযোগ লিভারপুলের সামনে। লিগ, কাপ, লিগকাপ, চ্যাম্পিয়নস লিগের সঙ্গে উয়েফা সুপার কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপ। তাই ক্লপকে বেঞ্চের শক্তি বাড়াতে দিতে হবে বাড়তি মনোযোগ।

এবারের মৌসুম থেকেই প্রিমিয়ার লিগে বাধ্যতামূলক হচ্ছে ভিএআরের ব্যবহার। বাড়ছে সরাসরি সম্প্রচার করা ম্যাচের সংখ্যা, সেই সঙ্গে ভিডিও স্ট্রিমিং চ্যানেলে খেলা দেখানো। সব মিলিয়ে আরো একটি জমজমাট মৌসুমের অপেক্ষা ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে। উত্তেজনার ৩৮ সপ্তাহের এই তো শুরু!

মন্তব্য