kalerkantho

বরখাস্ত হাতুরাসিংহের মামলার হুমকি

৭ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরখাস্ত হাতুরাসিংহের মামলার হুমকি

বরখাস্ত নাকি পদত্যাগ—দেখার ছিল এটুকুই। শ্রীলঙ্কার কোচ হিসেবে চন্দিকা হাতুরাসিংহের দিন যে ফুরিয়ে এসেছে, তা বোঝা গেছে আগেই। অবশেষে তাঁকে বরখাস্তের সিদ্ধান্তই নিতে চলেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে দায়িত্ব নিচ্ছেন বোর্ডের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) জেরম জয়ারত্নে।

‘বোর্ডের কর্মকর্তাদের এক সভা রয়েছে। সেখানে হাতুরাসিংহের চুক্তি বাতিল করে জয়ারত্নেকে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য নিয়োগ দেব’—শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট সেক্রেটারি মোহন ডি সিলভা বলেছেন এমনটাই। বিশ্বকাপের পরই দেশটির ক্রীড়ামন্ত্রী হারিন ফার্নান্ডো জাতীয় দলের কোচিং স্টাফ বদলে ফেলার নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এর পর থেকেই হাতুরাসিংহের সঙ্গে বিদায়ের পথ খুঁজছিল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট।

সেটি খুব সহজ ছিল না। কারণ ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশ থেকে বিদায়ের পর শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের দায়িত্ব নেন হাতুরাসিংহে। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সঙ্গে তাঁর চুক্তি তিন বছরের। সেই চুক্তির মাঝপথে ‘সম্মানজনক’ উপায়ে সরে দাঁড়ানোর সুযোগ তাঁকে দিয়েছিল বোর্ড। কিন্তু সে ক্ষেত্রে আর্থিক ক্ষতিপূরণ যথেষ্ট পরিমাণে পাবেন কি না, তা নিয়ে সন্দিহান হাতুরাসিংহে ও পথে হাঁটেননি। বোর্ড সেক্রেটারি ডি সিলভার কথাতেই সেটি স্পষ্ট, ‘আলোচনায় হাতুরাসিংহে মোটেই নমনীয় ছিলেন না। সে কারণে আমরা তাঁকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তবে বরখাস্ত হলেও কি ছেড়ে দেওয়ার পাত্র বাংলাদেশের এই সাবেক কোচ? শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের বিপক্ষে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দিয়ে রেখেছেন হাতুরাসিংহে। তাতে বোর্ডের কাছ থেকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ হয়তো পাবেন, তবে শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের কোচের দায়িত্বে থাকা হচ্ছে না নিশ্চিতভাবে। গত দেড় বছরে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সঙ্গে অনেক ঝামেলাতেই জড়িয়েছেন হাতুরাসিংহে। আর বিশ্বকাপে যখন দল সেমিফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়, এর পর থেকেই তাঁর নিয়তি লেখা হয়ে যায় একরকম।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজে কোচ হয়ে ফিরবেন তাই জয়ারত্নে। ২০১৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলেন যিনি। শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের মন্তব্য, ‘কোচ হিসেবে জেরম সবার সঙ্গে ভালোভাবে মিশে যেতে পারেন। তিনি কথাবার্তা বলেন খোলামেলা। ব্যাটিংয়ের বিশেষজ্ঞ তিনি।’ ডেইলি নিউজ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা