kalerkantho

স্মিথের স্বপ্নের মতো ফেরা

৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্মিথের স্বপ্নের মতো ফেরা

অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি স্টিভ ওয়াহর কাছেও এই স্মিথ অবিশ্বাস্য, ‘তার মতো আমি কাউকে দেখেনি। প্রস্তুতিতে একটুও ঘাটতি নেই। এত বল খেলতেও কাউকে দেখিনি। আর যখনই ও ক্রিজে নামছে তখন দল অচেতন প্রায়। কিন্তু সে জানত ওকে কী করতে হবে।’

স্টিভেন স্মিথের কীর্তিকে ব্যাখ্যা করার জন্য উপমা, বিশেষণেরও ঘাটতি পড়ে যাচ্ছে বিশ্লেষকদের। হবেই বা না কেন। টেস্ট ক্রিকেটের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যানের নিজের কাছেই যে মনে হচ্ছে, ‘এটা স্বপ্নের মতো ফেরা।’ পরশু খেলা শেষে সেই অনুভূতির কথা জানিয়েছেন তিনি এভাবে, ‘নিজের সামর্থ্য নিয়ে কখনো সংশয় তৈরি হয়নি। তার পরও এভাবে ফিরব সত্যি ভাবতে পারিনি। এটা আমার স্বপ্নের মতো ফেরা। অ্যাশেজের প্রথম টেস্টেই জোড়া সেঞ্চুরি, এ রকম আর কোনো কীর্তি নেই আমার কোনো ফরম্যাটেই। এটা অনন্য এক অর্জন হয়ে থাকবে আমার কাছে।’

নিজের আনন্দটাকে এতটুকু আড়াল করতে চাননি অস্ট্রেলীয় এই ব্যাটসম্যান, ‘ক্রিসমাসের সকালে যে অনুভূতি হয়, তেমনই লাগছে আমার।’ কাল টেস্ট জয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর সেই আনন্দ আরো বহুগুণে বেড়ে যাওয়ারই কথা তাঁর। বল টেম্পারিং কাণ্ডে ১২ মাসের নির্বাসন কাটিয়ে বিশ্বকাপে ঠিক জ্বলে উঠতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ার এই নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান। অ্যাশেজের শুরুটা হলো অবিশ্বাস্য। অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি স্টিভ ওয়াহর কাছেও এই স্মিথ অবিশ্বাস্য, ‘তার মতো আমি কাউকে দেখেনি। প্রস্তুতিতে একটুও ঘাটতি নেই। এত বল খেলতেও কাউকে দেখিনি। আর যখনই ও ক্রিজে নামছে তখন দল অচেতন প্রায়। কিন্তু সে জানত ওকে কী করতে হবে। ইংল্যান্ড কী করতে চাইছে। সব কিছুর জবাবই তার ব্যাটে ছিল। এই স্মিথ অবিশ্বাস্য।’ ওয়াহ নিজে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে টানা দুই ইনিংসে সেঞ্চুরি করে অস্ট্রেলিয়াকে টেস্ট জিতিয়েছেন। স্মিথের ব্যাটে তারই পুনরাবৃত্তির পর প্রশংসা আগল খুলেছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক, ‘অবিশ্বাস্য তার রানক্ষুধা, টেকনিক। প্রতিটি বল যেন কম্পিউটারের দক্ষতায় মোকাবেলা করেছে সে।’

স্মিথ বলেছেন তিনি তাঁর স্বাভাবিক খেলাটাই শুধু খেলতে চেয়েছেন, ‘যতক্ষণ ক্রিজে ছিলাম আগে-পিছের অন্য কিছু নিয়েই ভাবিনি। আমি শুধু আমার স্বাভাবিক খেলাটা খেলে যেতে চেয়েছি। প্রথম ইনিংসে লম্বা সময় ক্রিজে থাকার সুবিধাটা দ্বিতীয় ইনিংসেও কাজে লাগিয়েছি। তাতে বলগুলো খেলা আমার জন্য সহজ হয়েছে।’ এই পারফরম্যান্সে চতুর্থ দিন শেষেই জয়ের আভাস পেয়েছিলেন অস্ট্রেলীয় এই তারকা। ৩৯৮ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত মুখ থুবড়েই পড়েছে ইংল্যান্ড। অনন্য কীর্তি গড়ে ম্যাচ জেতানো স্মিথের জন্য প্রশংসা তাই সবখানে। ইংল্যান্ডের ব্যাটিং কোচ গ্রাহাম থর্প যেমন বলেছেন, ‘স্মিথ অসাধারণ এক ব্যাটসম্যান। যারাই তার এই ব্যাটিং দেখেছে প্রশংসা না করে পারবে না।’ ক্রিকইনফো

মন্তব্য