kalerkantho

মুখোমুখি প্রতিদিন

কোচ না বদলালে এসএ গেমস খেলব না

৩ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোচ না বদলালে এসএ গেমস খেলব না

১৪ জন ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়কে নিয়ে এসএ গেমসের ক্যাম্প শুরু হয়েছে গত ৩০ জুলাই থেকে। ক্যাম্প শুরুর দুই দিনের মাথায় বেঁকে বসেছেন দুই শাটলার শাপলা আক্তার ও এলিনা সুলতানা। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে ক্যাম্প বর্জনের কারণ ব্যাখ্যা করেছেন এলিনা সুলতানা

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : আপনি এখনো এসএ গেমসের ক্যাম্পে যোগ দেননি। ক্যাম্পে যোগ দেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন...

এলিনা সুলতানা : ক্যাম্পে যে দুজন কোচ রাখা হয়েছে, তাঁদের কাছ থেকে শেখার কিছু নেই। তাই আমি আর শাপলা ক্যাম্পে যোগ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দুই কোচ মারুফ আলম ও গৌতম পাল আমাদের কী শেখাবেন। দুজনের চেয়ে কোচিং কোর্সে আমি এগিয়ে। দুজনই ‘লেভেল-ওয়ান’ কোর্স করা আর আমি করেছি লেভেল-টু কোর্স।

প্রশ্ন : মানে দুই কোচ নিয়েই আপনাদের আপত্তি?

এলিনা : তাঁদের মান নিয়ে আমাদের আপত্তি। খেলোয়াড়রা ক্যাম্প করে কিছু শেখার জন্য। দুই কোচ যেমন কোচিং কোর্সে আমার পেছনে, তেমনি ব্যাডমিন্টন ক্যারিয়ারেও কখনো জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হতে পারেননি। আমি এবার জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে দ্বিতীয় হলেও আগে অনেক শিরোপা জিতেছি। আর শাপলা এবার ত্রিমুকুট জয়ী। তারও আছে লেভেল-ওয়ান কোর্স করা সার্টিফিকেট। তাহলে কিভাবে আমরা নিম্নমানের দুই কোচের অধীনে ক্যাম্পে যোগ দিই। তাই আমরা ফেডারেশন সভাপতি বরাবর চিঠি দিয়ে এর সুরাহা করার অনুরোধ জানিয়েছি।

প্রশ্ন : কিন্তু বিদেশি কোচ আসারও তো সম্ভাবনা আছে?

এলিনা : বিদেশি কোচ হয়তো আসবেন, কিন্তু তাঁরাই তো সহকারী হয়ে থাকবেন। তাঁরাই যাবেন এসএ গেমসে। তাঁদের জায়গায় লেভেল-টু কোর্স করা এনায়েতকে নেওয়া যেত। সেটা তারা ইচ্ছা করেই নেয়নি। দেশে এখন লেভেল-টু করা কোচ আছে তিনজন। আমি ছাড়া নিখিল ভাই ও এনায়েত। আমি তো খেলোয়াড় হিসেবেই আছি আর নিখিল ভাই মালয়েশিয়ায় কোচিং করাচ্ছেন।

প্রশ্ন : কোচ না বদলালে কী করবেন?

এলিনা : ফিবছর আমরা প্র্যাকটিস করি, খেলি দেশকে কিছু দেওয়ার জন্য। আমরা আশা করি, মাননীয় সভাপতি যুক্তি দিয়ে বিচার করবেন বিষয়টা। পরিবর্তন না করলে এসএ গেমস খেলব না, এটাই আমাদের সিদ্ধান্ত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা