kalerkantho

সোমবার । ২৬ আগস্ট ২০১৯। ১১ ভাদ্র ১৪২৬। ২৪ জিলহজ ১৪৪০

তবু আর থাকবেন না বেইলিস

এবারের গ্রীষ্ম ইংল্যান্ডের সামনে নিয়ে এসেছে অবিশ্বাস্য এক সুযোগ। কাল নিউজিল্যান্ডকে হারাতে পারলে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জিতবে; এরপর অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর হাতছানি। কোচ ট্রেভর বেইলিসের শিষ্যদের জন্য এই জোড়া অর্জন তো খুবই সম্ভব বলে মনে হচ্ছে।

১৩ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তবু আর থাকবেন না বেইলিস

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের জন্য অ্যাশেজ জয়ের চেয়ে বড় কিছু হতে পারে না। বিশ্বকাপ জয়? তাও সম্ভবত না। কিন্তু অ্যাশেজ তো তারা জিতেছে বহুবার; বিশ্বকাপ কখনোই না। আর এবারের গ্রীষ্ম ইংল্যান্ডের সামনে নিয়ে এসেছে অবিশ্বাস্য এক সুযোগ। কাল নিউজিল্যান্ডকে হারাতে পারলে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জিতবে; এরপর অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর হাতছানি। কোচ ট্রেভর বেইলিসের শিষ্যদের জন্য এই জোড়া অর্জন তো খুবই সম্ভব বলে মনে হচ্ছে।

অথচ সেটি হলেও ইংল্যান্ড কোচের দায়িত্বে আর থাকছেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ওই কোচ!

২০১৫ বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়ে ইংল্যান্ড। এর মাসখানেক পর দলটির কোচ হিসেবে আনা হয় ওই অস্ট্রেলিয়ানকে। অ্যাশেজ দিয়ে শুরু; চার বছর পর আরেক অ্যাশেজ দিয়ে বিদায় জানাবেন বলে মনস্থির করেছেন বেইলিস। বিশ্বকাপ ও অ্যাশেজ জয়ও বদলাতে পারবে না তাঁর সিদ্ধান্ত, ‘আমি সব সময় বিশ্বাস করি, একটি চক্রপূরণে চার-পাঁচ বছর যথেষ্ট সময়। সেটি আপনি ভালো করেন কিংবা খারাপ। অ্যাশেজের পর ইংল্যান্ডের ড্রেসিংরুমে কোচ হিসেবে নতুন কাউকে দরকার। আশা করি, দলকে তিনি উন্নতির আরেক ধাপে নিয়ে যেতে পারবেন।’

সেটি তো ভবিষ্যতের জন্য তোলা। আপাতত বিশ্বকাপ জয়ই ইংল্যান্ডের ধ্যান-জ্ঞান। চার বছর আগে এলোমেলো এক দলের দায়িত্ব নেওয়ার পর সেটিকে এ পর্যায়ে আসতে দেখাটা ভীষণ তৃপ্তির বেইলিসের জন্য, ‘ইংল্যান্ডের আগের বিশ্বকাপটি মোটেই ভালো কাটেনি। এরপর আমরা সবাই মিলে বসলাম; পরিকল্পনা করলাম কিভাবে ২০১৯ বিশ্বকাপ জেতা যায়। সে স্বপ্নপূরণের খুব কাছাকাছি চলে আসতে পারায় দারুণ লাগছে।’ তাই বলে এখনই উৎসবে ভেসে যাচ্ছে না ইংল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে স্বাগতিকদের গায়ে ফেভারিটের তকমা লাগিয়ে দেওয়া হলেও তা নিয়ে সতর্ক বেইলিস, ‘এজবাস্টনে সেমিফাইনাল জেতার পর আমরা ড্রেসিংরুমে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছি। সবাই বুঝতে পেরেছি যে, এখনো আমরা কিছু জিতিনি। জানি, আমাদের ফেভারিট ধরে ফাইনালের আগে ভীষণ শোরগোল হবে। তবে ওসব কথা আমরা মোটেই কানে তুলব না।’

ওই ফেভারিট তকমা যে ট্রফি জেতাবে না, তা ভালো করেই জানেন বেইলিস। শিষ্যদের তাই ওসব থেকে দূরে রাখছেন। মনে করিয়ে দিচ্ছেন তাঁদের করণীয়, ‘গত চার বছরে আমরা যেভাবে ক্রিকেট খেলেছি, সেভাবে খেলার দিকেই মনোযোগ দিতে হবে। ওভাবে খেলেই আমরা এখন বিশ্বকাপ ফাইনালে উঠেছি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচেও একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে।’

আর তা যদি করতে পারে ইংল্যান্ড, তাহলে তাদের বিপক্ষে বাজি ধরবেন কে! এএফপি

মন্তব্য