kalerkantho

এবার অবশেষে উৎসব করবেন তিতে!

৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লুই ফেলিপ্পে স্কলারি এবং দুঙ্গা, এই দুটি নামের চেয়ে আদেনর লিওনার্দো বাচ্চি সংক্ষেপে ‘তিতে’ নামটা তুলনামূলকভাবে অপরিচিতই ছিল ফুটবলের আন্তর্জাতিক অঙ্গনে। খেলোয়াড়ি জীবন তিতের শেষ হয়ে গিয়েছিল ২৭ বছরেই, হাঁটুর চোটে। কোচ হিসেবেও সাও পাওলো বা সান্তোসের মতো ব্রাজিলের জগদ্বিখ্যাত কোনো ক্লাবের ডাগআউটে দাঁড়ানোর অভিজ্ঞতা নেই। এর পরও ২০১৫ সালের কোপা আমেরিকার শতবর্ষ আসরে ব্রাজিলের ভরাডুবির পর দুঙ্গাকে যখন বিদায় জানাল ব্রাজিলের ফুটবল কনফেডারেশন, তখন পরবর্তী কোচ যে তিতে হবেন সেটা অনেকেই ভাবেননি।

কোরিন্থিয়ানসের সাবেক এই কোচের হাতে সেলেসাওদের দায়িত্বটা তুলে দিয়ে দারুণ দূরদর্শিতার পরিচয় দিয়েছে সিবিএফ। প্রথম সংবাদ সম্মেলন যখন করেন তিতে, তখন ব্রাজিলের বিশ্বকাপ খেলাটা একটু দোদুল্যমান, বাছাই পর্বে অবস্থা করুণ। সেখান থেকে স্বাগতিকদের বাইরে প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপে জায়গা নিশ্চিত করেছে ব্রাজিল। বিশ্বকাপেও খেলেছে  কোয়ার্টার ফাইনালে। ভালো খেলেও দুর্ভাগ্যজনক হারের কারণে ছিটকে গেছে ব্রাজিল, তাই তিতের চাকরিটাও থেকে যায়। কোপা আমেরিকার শুরুতেও ব্রাজিল ছিল খানিকটা নিষ্প্রভ, দর্শকরা শুনিয়েছিল দুয়োধ্বনি। কিন্তু ম্যাচ যত মাঠে গড়িয়েছে, ব্রাজিলকে ততই ধারালো দেখিয়েছে। সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ২-০ গোলের জয়টা খুব সম্ভবত মন জুগিয়েছে ব্রাজিলের ফুটবলের বড়কর্তাদেরও। তাই কোপা আমেরিকার ফাইনালের কিকঅফের আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ফাইনালে ফল যা-ই হোক তিতেই থাকবেন ব্রাজিলের কোচ।

দিন তিনেক আগেই সরকারি বার্তায় সিবিএফ জানিয়েছে, ‘ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন তাদের কোচিং স্টাফের ওপর আস্থা রাখছে এবং নিশ্চিত করছে তাদের নিয়োগ স্থায়ীকরণ করা হয়েছে।’ অর্থাৎ কোপা আমেরিকার ফাইনালের পর তিতেই থাকছেন কোচ। যদিও তিতের সহকারীদের ভেতর দুজন চলে যাচ্ছেন। ফরাসি লিগ ওয়ানের দল লিওঁর কোচ হতে চলে যাচ্ছেন সহকারী ও সাবেক ব্রাজিলিয়ান লেফটব্যাক সিলভিনহো। দলীয় সমন্বয়ক এদু গ্যাসপার চলে যাচ্ছেন আর্সেনালের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পদে।

তবে তিতে আছেন। ড্রেসিংরুমে জনপ্রিয়তার নিরিখে তিতেই এগিয়ে। পিএসজি ডিফেন্ডার মারকুইনহোস বলেছেন, ‘কোপার ফল যা-ই হোক না কেন, তিতেকেই আমরা কোচ হিসেবে চাই। তিনি কোচ হিসেবে দারুণ, মানুষ হিসেবেও চমৎকার, বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার পরও পরিসংখ্যান তাঁর পক্ষে। এবং সেটা ভালো। তিতে ব্রাজিলের হয়ে ভালো করছেন, তাঁর ওপর গোটা দলের শ্রদ্ধা ও আস্থা আছে।’ আরেক ব্রাজিলিয়ান তারকা রিয়াল মাদ্রিদে খেলা কাসেমিরোও বলেছেন, ‘উনি অনেক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতেছেন, তিনি একজন বিজয়ী। উনি তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে কোচের পদে আছেন এবং  শতকরা ৮০ ভাগ ক্ষেত্রেই জয়ী হয়েছেন। তিতে আমাদের মানসিকভাবে শক্ত করেছেন, এটাকে অস্থিতিশীল করবেন না।’

পরিসংখ্যান ও ড্রেসিংরুম দুটিই আছে তিতের। নেই জাতীয় দলের হয়ে জেতা বড় কোনো শিরোপা। সেই আক্ষেপ ঘোচানোর জন্য সামনে পেরুকে পাচ্ছেন তিতে, যাদের গ্রুপ পর্বে হারানো হয়েছে ৫-০ গোলে! ব্রাজিলের বিখ্যাত সব কোচের তালিকায় নামটা তোলার জন্য এর চেয়ে সহজ সুযোগ বোধ হয় আর কেউই পাবেন না! স্পোর্টসস্টার

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা