kalerkantho

শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছেন রোডস

৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছেন রোডস

লন্ডন থেকে প্রতিনিধি : রয়্যাল ল্যাংকাস্টার হোটেল থেকে কোথাও বেরোনোর পথে বান্ধবীকে বলছিলেন স্টিভ রোডস, ‘সেপ্টেম্বরে ফিরছি লন্ডনে।’ তার মানে ২০১৯ বিশ্বকাপের সঙ্গেই শেষ হচ্ছে না হেড কোচ পদে এ ইংলিশম্যানের চাকরি। অন্তত জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহের শ্রীলঙ্কা সফরে রোডসই পথ দেখাবেন বাংলাদেশ দলকে। তবে পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ এবং ফিজিও তিহান চন্দ্রমোহনের আর ফেরা হচ্ছে না বাংলাদেশে। গত পরশু লন্ডনের অভিজাত পাড়ার একটি হোটেলে বোর্ড সভাপতির নেতৃত্বে জনা আটেক পরিচালকের সভায় এসব একরকম নিশ্চিতই হয়ে গেছে।

সে সভায় উপস্থিত ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান অবশ্য বলেছেন, ‘আমাদের কোচিং স্টাফের বেশ কয়েকজনের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ ছিল এই বিশ্বকাপ পর্যন্ত। এর পরপরই যেহেতু একটা সফর রয়েছে, সে কারণে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।’ এ জাতীয় সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয় বোর্ড সভায় অনুমোদনের পর। তবে গতকালের অনানুষ্ঠানিক সভাতেই কোচিং স্টাফদের ‘রোডম্যাপ’ করা হয়ে গেছে নিশ্চিত করেছে বিশ্বস্ত একটি সূত্র।

তাতে প্রথমেই সিদ্ধান্ত হয়েছে তিহানের চুক্তি নবায়ন না করার বিষয়টি। বিশ্বকাপ চলাকালে একের পর এক ইনজুরি আক্রান্ত ক্রিকেটারদের যথাযথ শুশ্রূষা করতে পারেননি বলে ক্রিকেটারদের অভিযোগকে আমলে নিয়েছেন বোর্ড কর্তারা। তাঁর জায়গায় দলের সাবেক ফিজিও দক্ষিণ আফ্রিকার বিভব সিংহকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টাও শুরু হয়ে গেছে।

পেস বোলিং কোচ পড়ে কোর্টনি ওয়ালশের দক্ষতা নিয়ে সংশয় অনেক পুরনো। তাই তাঁর চুক্তি নবায়ন না করে শ্রীলঙ্কা সফরে চাম্পাকাকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে পরশুর সভায়। ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জি, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুকের চুক্তি নবায়নের পক্ষে মত দিয়েছেন সবাই। তবে শ্রীলঙ্কায় ম্যাকেঞ্জি যাচ্ছেন না ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে। কম্পিউটার অ্যানালিস্ট শ্রীনিবাস চন্দ্রশেখর এরই মধ্যে দুই বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন বিসিবির সঙ্গে।

তবে সবচেয়ে আলোচিত প্রধান কোচ রোডসের ভবিষ্যৎ। ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত চুক্তির মেয়াদ থাকলে তাঁকে তার আগেই বিদায় জানানোর পক্ষে বোর্ড। কিন্তু ঘাড়ের ওপর শ্রীলঙ্কা সফর থাকায় নতুন কোচ নিয়োগের পর্যাপ্ত সময় হাতে নেই। তাই শ্রীলঙ্কা সফরে যাচ্ছেন রোডস। উপযুক্ত কাউকে খুঁজে পেলে হয়তো ওটাই হবে বাংলাদেশের কোচ পদে তাঁর শেষ অ্যাসাইনমেন্ট।

মন্তব্য