kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

রিজার্ভ ডে প্রসঙ্গে আইসিসির ব্যাখ্যা

১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



রিজার্ভ ডে প্রসঙ্গে আইসিসির ব্যাখ্যা

বৃষ্টি বাগড়া দিয়েছিল ১৯৯৯ সালে ইংল্যান্ডে হওয়া সব শেষ বিশ্বকাপেও। বৃষ্টির শঙ্কায় আয়োজকরা রেখেছিলেন রিজার্ভ ডে, তাই পরিত্যক্ত হয়নি দুটির বেশি ম্যাচ। অথচ এবারের বিশ্বকাপের দুই সপ্তাহ না যেতে পণ্ড তিন তিনটি ম্যাচ। গত পরশু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ ভেসে যাওয়ার পর আইসিসির সমালোচনা করেছেন বাংলাদেশি কোচ স্টিভ রোডসও। তবে বৃষ্টির শঙ্কার পরও রিজার্ভ ডে না রাখা নিয়ে সাফাই গাইলেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন। এমনিতে লম্বা টুর্নামেন্টটা আরো দীর্ঘ হওয়া ঠেকাতে নাকি রাখা হয়নি রিজার্ভ ডে, ‘আসলে ধারণার চেয়ে দ্বিগুণ বৃষ্টি হচ্ছে এখন। রিজার্ভ ডে রাখলে টুর্নামেন্টটা দীর্ঘ হতো, আরো জটিলতর করে তুলত বিশ্বকাপকে। দৈর্ঘ্য বাড়লে অনেক দিকেই এর প্রভাব পড়বে—যেমন পিচ প্রস্তুত করা, দলগুলোর যাত্রার সময়সূচি ও বিশ্রামের রুটিন, থাকার জায়গা, অফিশিয়াল ও ভলান্টিয়ার পাওয়া ইত্যাদি। জড়িত আছে সরাসরি সম্প্রচারের ব্যাপারও। রিজার্ভ ডে রাখলেই যে পরের দিন বৃষ্টি হবে না এর নিশ্চয়তা নেই। তবে সেমিফাইনাল আর ফাইনালে কিন্তু রিজার্ভ ডে থাকছে।’ আইসিসি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা