kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

তাহলে বিশ্বকাপ শেষ ধাওয়ানের?

১২ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দুই ম্যাচ না যেতেই বড় ধাক্কা ভারতের। বুড়ো আঙুলের চোটে বিশ্বকাপে অন্তত তিন সপ্তাহ খেলতে পারবেন না ওপেনার শিখর ধাওয়ান। আঙুলে স্ক্যানের পর ধরা পড়েছে চিড়। তাতে তিন সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে বাঁহাতি এই ওপেনারকে। বিসিসিআইয়ের একটি সূত্রের অনুমান, পুরো ফিট হয়ে ফিরতে ধাওয়ানের লেগে যেতে পারে এক মাস। দক্ষিণ আফ্রিকা আর অস্ট্রেলিয়ার মতো প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে বিশ্বকাপ শুরু করা বিরাট কোহলির দলের জন্য বড় আঘাত এটা।

ধাওয়ানের চোটে ভারতীয় দলে ঋষভ পান্টের যোগ দেওয়ার খবর জানিয়েছিল টাইমস অব ইন্ডিয়া। তবে বিসিসিআই নিশ্চিত করেছে এখনই রিপ্লেসমেন্ট চাচ্ছে না তারা।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নাথান কোল্টার-নাইলের বাউন্সারে বুড়ো আঙুলে ব্যথা পান শিখর ধাওয়ান। মাঠ ছাড়েননি তবু। ব্যথা নিয়ে খেলেছেন ১০৯ বলে ১৬ বাউন্ডারিতে ১১৭ রানের ইনিংস। হয়েছিলেন ম্যাচ সেরাও। ব্যথার জন্য অবশ্য ফিল্ডিং করেননি ধাওয়ান। ড্রেসিংরুমে আঙুলে ঘষতে দেখা যায় আইসপ্যাক। এমন সতর্কতাতেও কাজ হয়নি। গতকাল আঙুলে স্ক্যান করার পর ধরা পড়ে চিড়। ডাক্তাররা পরামর্শ দিয়েছেন তিন সপ্তাহ বিশ্রামের। এ জন্য দলের সঙ্গে যোগ দেননি নটিংহামে। এখানেই আগামীকাল নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবেন কোহলিরা। এই ম্যাচটির পাশাপাশি ধাওয়ানের খেলা হবে না পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ড আর বাংলাদেশের বিপক্ষে। এর মধ্যে ফিট হয়ে গেলে সম্ভাবনা থাকবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ আর সেমিফাইনাল খেলার।

ধাওয়ান না থাকায় দলের ভারসাম্য নষ্ট হওয়ার জোগাড় ভারতের। রোহিত শর্মার সঙ্গে ওপেনিংয়ে কাকে পাঠানো হবে—বেশি আলোচনা সেটা নিয়ে। সম্ভাবনায় এগিয়ে লোকেশ রাহুল। তাঁর ক্যারিয়ারের শুরুটা ওপেনার হিসেবে। ২০১৬ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ইনিংসের উদ্বোধন করে অপরাজিত ছিলেন ১০০ রানে। এরপর তিন থেকে ছয়—সব পজিশনে ব্যাট করার অভিজ্ঞতা আছে তাঁর। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সব শেষ ম্যাচে ছয় নম্বরে নেমে ৬ বলে করেছিলেন ১১*।

মাথাব্যথার চার নম্বর পজিশন নিয়ে উদ্বেগ বাড়বে আরো। কারণ ওপেনিংয়ে শিখর ধাওয়ান থাকলে চারে ম্যাচ পরিস্থিতি অনুযায়ী লোকেশ রাহুল বা হার্দিক পাণ্ডেকে খেলানোর পরিকল্পনা ছিল দলের। লোকেশ রাহুল ওপেন করলে এই পজিশনে হয়ত আনতে হবে বিজয় শঙ্কর বা কেদার যাদবকে। সমস্যার সমাধানে চাওয়া হয়েছে রিজার্ভ বেঞ্চে থাকা ঋষভ পান্টকে। বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলে ঋষভ পান্টকে না নেওয়ায় নির্বাচকদের সমালোচনা করেছিলেন সুনীল গাভাস্কারের মতো কিংবদন্তি। আইপিএলে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে নিজের দাবি জানিয়ে রেখেছিলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। শিখর ধাওয়ানের ইনজুরিতে বিশ্বকাপ দরজাটা শেষ পর্যন্ত খুলেনি তাঁর। যদিও বিশেষ সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছিল, ‘ধাওয়ানের ইনজুরির ধরন জেনেই টিম ম্যানেজমেন্ট পান্টকে পাঠানোর অনুরোধ জানায়।’ টাইমস অব ইন্ডিয়া

মন্তব্য