kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

৩৫৮ তাড়া করেও কঠিন উইকেট চাইছে ইংল্যান্ড

বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরি

১৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৩৫৮ তাড়া করেও কঠিন উইকেট চাইছে ইংল্যান্ড

রান তাড়া করতে নামো আর জেতো? লক্ষ্য যতই হোক, ইংল্যান্ডের বর্তমান দল সহজ করে ফেলেছে সব। পাকিস্তান ব্রিস্টলে ৩৫৮ করেও পারল না এউইন মরগানের দলকে আটকাতে। জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জিতেছে ৩১ বল হাতে রেখে! এ নিয়ে দেশের মাটিতে টানা ১৫ ম্যাচ রান তাড়া করে জিতল বিশ্বকাপের হট ফেভারিটরা। তাই এখন একটু কঠিন পিচের খোঁজে অধিনায়ক এউইন মরগান।

বিশেষ করে যেসব পিচে বল দ্রুত ব্যাটে আসে না সেখানে রান পান না ইংলিশরা। চ্যাম্পিয়নস ট্রফি সেমিফাইনালে কার্ডিফে পাকিস্তানের কাছে এ রকম ধীরগতির পিচে হেরেছিল ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপের আগে সে রকম উইকেটে খেলার সুযোগ চান মরগান, ‘৩৫৮ তাড়া করে যেভাবে জিতলাম সেটা গর্ব করার মতো। বিশ্বকাপ যত এগোবে পিচগুলো ততই ভাঙতে থাকবে। ভারত, পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান ও স্পিনাররা ভালো করে এমন উইকেটে। তাই সিরিজের বাকি দুই ম্যাচে ভঙ্গুর উইকেটে খেলতে চাই।’

জনি বেয়ারস্টো ও জেসন রয় ১৮তম ওভারে গড়েছিলেন ১৫৯ রানের উদ্বোধনী জুটি। ৫৫ বলে ৮ বাউন্ডারি ৪ ছক্কায় ৭৬ করা জেসন রয়কে ফেরান ফাহিম আশরাফ। অন্য প্রান্তে জনি বেয়ারস্টো আগুন ঝরাচ্ছিলেন শুরু থেকে। সপ্তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি করা এই ওপেনার থামেন ৯৩ বলে ১৫ বাউন্ডারি ৫ ছক্কায় ১২৮ করে। ম্যাচসেরার পুরস্কার নিয়ে আইপিএলের প্রশংসা করলেন তিনি, ‘আইপিএলে নানা খেলোয়াড় আর কোচের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখবেন আপনি। আমিই যেমন ওয়ার্নারের কাছ থেকে শিখেছি অনেক। বিশ্বকাপের আগে এমন ইনিংসে আমি খুশি।’ এ ছাড়া জো রুট ৩৬ বলে ৪৩, বেন স্টোকস ৩৮ বলে ৩৭ আর মইন আলী খেলেন ৩৬ বলে ৪৬ রানের ইনিংস। জুনাইদ খান, ফাহিম আশরাফ ও ইমাদ ওয়াসিমের শিকার ১টি করে উইকেট।

এর আগে ইমাম-উল-হকের ক্যারিয়ার সেরা ১৫১-তে পাকিস্তান পায় ৯ উইকেটে ৩৫৮ রানের পুঁজি। বোলারদের ব্যর্থতায় হারতে হয়েছে তবু। এটা ওয়ানডেতে টানা আট হার পাকিস্তানের। এর পরও ইতিবাচকতার খোঁজে অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ, ‘অধিনায়ক হিসেবে বলব, ৩৬০ রানের লক্ষ্য তাড়া করে বিপক্ষকে জিততে দেখা ভালো কিছু নয়। এর পরও কিছু ইতিবাচকতা ছিল। দুই ওপেনার ছন্দে আছে বিশ্বকাপের আগে। আসিফ আলী দুর্দান্ত।’ বিবিসি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা