kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রোমাঞ্চের রাত ইউরোপে

১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রোমাঞ্চের রাত ইউরোপে

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কি আরেকটি প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখবে, আয়াক্স কি লিখে চলবে নতুন রূপকথা! ইউরোপে আজ রোমাঞ্চের রাত। নু ক্যাম্পে বার্সেলোনা আতিথ্য দেবে ম্যানইউকে, তুরিনে জুভেন্টাস আয়াক্সকে।

ন্যু ক্যাম্প, ম্যানইউ আর ওলে গানার শোলসকায়ের মিলে এক অনবদ্য রাতের কথা মনে করায়। যে রাতে সুপার সাব শোলসকায়ের এই বার্সার মাঠেই ম্যানইউর ট্রেবল জেতা গোলটা করেছিলেন। ২০ বছর পর সেই শোলসকায়েরের বার্সেলোনায় ফেরা আরেকটি প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখতেই। ডেভিড ময়েস, লুই ফন হাল, হোসে মরিনহোতে যখন নাভিশ্বাস উঠে গিয়েছিল রেড ডেভিলদের তখনই একদা অ্যালেক্স ফার্গুসন শিষ্য শোলসকায়ের তাদের নিয়ে এলেন মুক্ত বাতাসে। এতটাই যে, প্যারিস সেন্ত জার্মেইয়ের কাছে প্রথম লেগ ২-০তে হেরেও চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ ষোলোর সেই ‘টাই’ তারা জিতে নেয় প্যারিসে গিয়ে। কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সার কাছে আবারও হার নিজের মাঠে। নু ক্যাম্পে তাই আজ আরেকটা প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখতেই হবে শোলসকায়েরের দলকে।

ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় এই ন্যু ক্যাম্প রীতিমতো দুর্গ অন্য দলগুলোর জন্য। এখানে সেই ২০১৩ সাল থেকে বার্সা হারেনি ইউরোপের কোনো ম্যাচ। ৩০ ম্যাচে জয় ২৭টিতেই। ২০১৩-তে সর্বশেষ তাদের হারের স্বাদ দিয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখ। সেই আসর থেকে এ পর্যন্ত একমাত্র ২০১৪-১৫ মৌসুম ছাড়া প্রতিটিতেই অবশ্য কাতালানরা বিদায় নিয়েছে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে। আজ ম্যানইউর বিপক্ষে সেই শেষ আটের জুজু তাড়ানোর চ্যালেঞ্জও এর্নেস্তো ভালভের্দের দলের।

সেই ১৯৯৫-এ চতুর্থবারের মতো ইউরোপিয়ান এ আসর জেতা আয়াক্স গত ২২ বছরের মধ্যে আর শেষ চারে পা রাখতে পারেনি। আজ জুভেন্টাসের মাঠে যাচ্ছে তারা সেই স্বপ্ন নিয়ে। প্রথম লেগে দারুণ খেলে ক্রুইফ অ্যারেনায় ড্র করেছে তারা ১-১ গোলে। শেষ ষোলোতে রিয়াল মাদ্রিদকে তাদেরই মাঠে ৪-১ গোলে হারানো দলটি আজ তুরিনেও খেলবে সেই অনুপ্রেরণা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। জুভেন্টাসের মূল অনুপ্রেরণা অবশ্যই ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। প্রথম লেগে অসাধারণ একটি গোল করে বুঝিয়েও দিয়েছেন যে কারো স্বপ্ন ভাঙার জন্য তিনি একাই যথেষ্ট। মৌসুমের শুরুতে যেমন স্বচ্ছন্দে এগিয়েছে জুভেন্টাস, শেষভাগে অবশ্য ততটা গতি নেই তাদের খেলায়। সিরি ‘এ’ শেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে দুটি ছোট দলের কাছে তারা হেরেছে। আজ আয়াক্সের বিপক্ষে ফিরতি লেগের আগেই তাদের হারের স্বাদ দিয়েছে স্পাল। সেই ম্যাচে অবশ্য সিআরসেভেন বিশ্রামে কাটিয়েছেন। আজ নতুন উদ্যম নিয়েই তাঁর মাঠে নামার কথা।

ম্যানইউর মাঠে প্রথম লেগে নাকে আঘাত পাওয়া লিওনেল মেসি ছিলেন না শনিবার হুয়েস্কার সঙ্গে গোলশূন্য ড্রয়ের ম্যাচে। সেই ম্যাচে বিশ্রাম পেয়েছেন লুই সুয়ারেস, জেরার্দ পিকে, সের্হিয়ো বুশকেত্জ, ইভান রাকিটিচরাও। ইউরোপীয় রাত মাতাতে আজ সবাই নামছেন। চোট কাটিয়ে ওঠা ওসমান দেম্বেলেকে আগের ম্যাচে সুযোগ দেননি ভালভের্দে। গতিময় এই উইঙ্গার আজ শুরু থেকেই থাকতে পারেন মাঠে। প্রথম লেগে আত্মঘাতী গোল করা ম্যানইউর লুক শ এই ম্যাচে খেলতে পারবেন না টানা তিনটি হলুদ কার্ডের জন্য। শোলসকায়ের একাদশে ফিরিয়েছেন নেমানিয়া মাতিচ আর বার্সার সাবেক খেলোয়াড় অ্যালেক্সিস সানচেসকে। তবে সবাইকে ছাপিয়ে শোলসকায়ের নিজেই এই ম্যাচের আগে আলোচনায় ’৯৯-এর সেই রাতের কারণে। এরপর দুইবার মাত্র তাঁকে ন্যু ক্যাম্পে দেখা গেছে, একবার ছেলেকে নিয়ে গিয়েছিলেন এল ক্লাসিকো দেখতে, আরেকবার এই মৌসুমেই শেষ আটের আগে আগে বার্সা-অ্যাতলেতিকো ম্যাচ দেখতে। তবে আজ সেই পুরনো চ্যালেঞ্জ নিয়ে ফেরা, ’৯৯-এর নস্টালজিয়া নতুন চ্যালেঞ্জ থেকেই মনোযোগ ফিরিয়ে দেবে না তো আর, শোলসকায়ের সেই শঙ্কাটা জানেন বলেই সতর্ক, ‘এটা ঠিক সেই গোলটার ভিডিও আমার কয়েক মিলিয়নবার দেখা হয়ে গেছে, সবাই দেখা হলেই সেই গল্প করে। তবে এই মুহূর্তে কালকের ম্যাচেই আমার পুরো মনোযোগ। যা করার এখানেই আমি করতে চাই। সত্যি বলতে আমার তর সইছে না।’ রোমাঞ্চের সেই স্বাদ নিতে তর সইছে না যে ফুটবলপ্রেমীদেরও। গোলডটকম, মার্কা

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা