kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জয় নিয়েই ফিরছেন যুবারা

২৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জয় নিয়েই ফিরছেন যুবারা

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রত্যাশার সীমানা ছুঁয়ে বাহরাইন থেকে একটি জয় নিয়েই ফিরছেন বাংলাদেশের যুবারা। বাহরাইন, ফিলিস্তিনের বিপক্ষে দারুণ লড়াইয়ের পর দুর্বল শ্রীলঙ্কাকে হারানোটাই ছিল প্রত্যাশিত। কাল খলিফা স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে সেই লঙ্কানদের ২-০ গোলে হারিয়েই এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্ব শেষ করল অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দল।

ম্যাচের ১৮ মিনিটেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় লাল-সবুজ। তাতে আরো বড় ব্যবধানেই জয়ের সম্ভাবনা জেগেছিল। কিন্তু সেই ব্যবধান বাড়ানোর নেশায় প্রতিপক্ষের বক্সের মুখে সব কিছু আর নিখুঁত হয়নি। তাতে ২ গোল নিয়েই শেষ পর্যন্ত সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে জেমি ডের শিষ্যদের। ম্যাচের পঞ্চম মিনিটেই দলকে এগিয়ে দেন বিপলু আহমেদ। বাঁ দিক দিয়ে বল নিয়ে বক্সের ভেতর ঢুকে ডান পায়ের জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেছেন এই উইঙ্গার। গত বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপেও লাওসের বিপক্ষে বাংলাদেশের একমাত্র জয়ে জয়সূচক গোলটি এসেছিল তাঁর পা থেকে। বিপলুকে সেই ফর্মে অবশ্য পাওয়া যায়নি আর, লিগেও না, সর্বশেষ কম্বোডিয়া ম্যাচেও ছিলেন সাদামাটা। আর বাহরাইনেই প্রথম দুই ম্যাচে বাংলাদেশের দারুণ লড়াকু পারফরম্যান্সেও বিপলুকে যেন ঠিক পাস মার্ক দেওয়া যাচ্ছিল না। তবু জেমি আস্থা রেখেছিলেন তাঁর ওপর, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দারুণ এই গোলে এর প্রতিদানও দিলেন শেখ রাসেলের ফুটবলার। ১৮ মিনিটে বাংলাদেশের দ্বিতীয় গোলটি টুটুল হোসেনের ভলিতে। এ টুর্নামেন্টেও লং থ্রো বাংলাদেশের বড় অস্ত্র। প্রতিপক্ষের সীমানায় থ্রো ইনের সুযোগ হলেই রবিউল হাসান লম্বা রান আপে বল ফেলছেন বক্সের ভেতর। বাহরাইন, ফিলিস্তিনের দীর্ঘদেহী ডিফেন্ডারদের ভিড়ে সেই বলগুলো কাজে লাগানো না গেলেও কাল শ্রীলঙ্কার বক্সে প্রথম সুযোগটাই কাজে লাগান টুটুল। রবিউলের থ্রো ইনে সাইড ভলি নিয়েছেন এই সেন্টার ব্যাক, লঙ্কান গোলরক্ষক সেই বল ফেরানোর কোনো সুযোগই পাননি।

২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশ এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ বাছাই পর্ব খেলছে, এত বছরের মধ্যে এটাই প্রথম জয়। এর আগে ভারতের সঙ্গে একটা গোলশূন্য ড্র ছিল শুধু ২০১৫ সালে। বাংলাদেশের এই দলটার বীজ বপন হয়েছিল ২০১৭ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ সাফে। যে আসরে গোল ব্যবধানে রানার্স-আপ হন মাহবুবুর রহমানরা, সেই আসরেই ৩-০-তে পিছিয়ে পড়ে ভারতকে ৪-৩ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইয়ে এ দলটিই তাজিকিস্তানকে রুখে দিয়েছিল, উজবেকিস্তানের কাছে হেরেছিল শেষ সময়ের আত্মঘাতী গোলে। তারাই এশিয়াডে কাতারকে হারানোর কীর্তি গড়েছে। এই টুটুল, বিপলুদের হাত ধরে এশিয়ান অনূর্ধ্ব-২৩ বাছাইয়েও প্রথম জয় ধরা দেবে, তাতে আর অবাক হওয়ার কী! বাহরাইন থেকে মাথা উঁচু করেই ফিরছেন তাই এই ফুটবলাররা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা