kalerkantho

মেসি গোল করলেন, করালেনও

১৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মেসি গোল করলেন, করালেনও

পুরস্কারটা লুকা মডরিচের হাতে উঠলেও শ্রেষ্ঠ ফুটবলারের প্রশ্নে পৃথিবী আসলে লিওনেল মেসি আর ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, এই দুই ভাগে বিভক্ত। ভক্তকুলে বিবাদ থাকলেও বৈরিতা নেই দুজনের মধ্যে। আগের রাতে দুই গোলের ব্যবধান ঘুচিয়ে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠে হ্যাটট্রিক করে জুভেন্টাসকে জিতিয়েছেন রোনালদো। পরের রাতে ন্যু ক্যাম্পে মেসি করেছেন জোড়া গোল আর জোড়া অ্যাসিস্ট। তাবৎ পৃথিবীর ভক্তকুলকে প্রতিনিয়ত বিস্মিত করে চলেছেন এই দুজন। লিওঁর বিপক্ষে ৫-১ গোলে বার্সেলোনার জয় নিশ্চিত করার পর মাইক্রোফোনের সামনে মেসি প্রশংসা করে গেলেন রোনালদোর। এ যেন এক বীরের প্রতি আরেক বীরের টুপিখোলা সালাম!

সমীকরণটা সহজই ছিল বার্সেলোনার। নিজের মাঠে গোল না খেয়ে একবার লক্ষ্য ভেদ করলেই চলে যাওয়া যাবে শেষ আটে। আগের লেগের ৯০ মিনিট কোনো গোল হয়নি, ন্যু ক্যাম্পে ১৭ মিনিটেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। লুই সুয়ারেসকে করা ফাউলের জরিমানায় পেনাল্টি, তা থেকে গোল করতে ভুল হয়নি মেসির। ৩১ মিনিটে ফিলিপে কৌতিনিয়োর গোলে ২-০ হয় স্কোরলাইন, শেষ আটের টিকিট তখনই চলে আসে কাতালানদের হাতে। ৫৮ মিনিটে তুসার্তের গোল খানিকটা রোমাঞ্চ ফেরায় খেলায়, কিন্তু এরপর দুই মিনিটের ভেতর দুই গোলে তালা পড়ে লিওঁর কফিনে। ৭৮ মিনিটে গোলটা করেন মেসি, ৮০ মিনিটে করান জেরার্দ পিকেকে দিয়ে। ৮৭ মিনিটে আরো একটা গোল বার্সেলোনার, এবার খাতায় নাম তোলেন কৌতিনিয়োর বদলি নামা উসমান দেম্বেলে।

সহজ জয়ের পর মেসি প্রশংসা করলেন আগের রাতে অসম্ভব এক জয়ের নায়ক রোনালদোর, ‘ক্রিস্তিয়ানো আর জুভেন্টাস যেটা করেছে সেটা মনে রাখার মতো।  ৩ গোল করে জাদুকরী একটা রাত কেটেছে রোনালদোর।’ শেষ আটে এখন রোনালদোর জুভেন্টাসও হতে পারে মেসিদের সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ। মেসি অবশ্য সব প্রতিপক্ষকেই দেখছেন সমান চোখে, ‘সব প্রতিপক্ষই কঠিন। আয়াক্সের কথাই ধরা যাক। তারা তরুণ একটা দল আর কাউকে ভয় পায় না। যার সঙ্গেই খেলা পড়ুক না কেন, সেটা কঠিনই হবে।’ লিওঁর ম্যাচটি নিয়ে মেসির মন্তব্য, ‘ওরা ২-১ করে ফেলার পর খেলাটা কিছুটা কঠিন হয়ে গিয়েছিল, তার আগ পর্যন্ত ওরা কিছু করেনি। সৌভাগ্যক্রমে আমরা ৩-১ করে ফেলি এরপর স্বস্তি ফিরে আসে।’

আজই শেষ আটের ড্র। বার্সার কাছে হেরে যাওয়াতে চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে শেষ ফরাসি দলটাও নিল বিদায়। অন্যদিকে লিভারপুল বায়ার্নকে বিদায় করে দেওয়ায় শেষ আটের চার দলই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের, নেই কোনো জার্মান প্রতিনিধিও! উয়েফা

মন্তব্য