kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

শফিউল জেতালেন মোহামেডানকে

১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শফিউল জেতালেন মোহামেডানকে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : স্কোরবোর্ডে ২৬ রান তুলতেই গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের ৬ উইকেট হাওয়া। যার মধ্যে পাঁচ ব্যাটসম্যানই শিকার পেসার শফিউল ইসলামের। এই অবস্থা থেকে ১৮২ রান পর্যন্ত যাওয়াটা কম কী! তাতেও ঢাকা প্রিমিয়ার বিভাগ ক্রিকেট লিগে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের জয় ঠেকাতে পারেনি গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।

প্রতিপক্ষের মতো ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মোহামেডানও। ৮৭ রানে হারায় ৬ উইকেট। কিন্তু অধিনায়ক রকিবুল হাসানের অপরাজিত ৮২ রানে ৩ উইকেটে ম্যাচ জেতে একসময়ের পরাশক্তিরা।

বিকেএসপির এই ম্যাচের মতো মিরপুরের কালকের ম্যাচটিও তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। খেলাঘরকে ১৯৫ রানে অল আউট করে দিয়ে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জেতে ২ উইকেটে; ৪৭তম ওভারের শেষ বলে গিয়ে। ফতুল্লার ম্যাচটি অবশ্য একেবারেই একতরফা। সেখানে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবকে ১৭৫ রানে অল আউট করে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব ম্যাচ জিতে নেয় ৯ উইকেটে। ওপেনার সাইফ হাসানের অপরাজিত ৮৩ এবং তিনে নামা ফরহাদ হোসেনের অপরাজিত ৬৬ রানে সহজ জয়ে লিগ শুরু করে প্রাইম দোলেশ্বর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

মোহামেডান-গাজী গ্রুপ : গাজী গ্রুপ ৪৫.২ ওভারে ১৮২ (শামসুল ৭১*, তৌহিদ ৫৬; শফিউল ৫/৩২)।  মোহামেডান ৪৫.২ ওভারে ১৮৩/৭ (রকিবুল ৮২*, সোহাগ ২৯; কামরুল ২/১৯)। ফল : মোহামেডান  ৩ উইকেটে জয়ী। ম্যান অব দ্য ম্যাচ : শফিউল ইসলাম।

খেলাঘর-প্রাইম ব্যাংক : খেলাঘর ৪৬.৫ ওভারে ১৯৫ (অমিত ৩৬; আরিফুল ৪/২৪, কাপালি ৩/২০)। প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ৪৭ ওভারে ১৯৬/৮ (রুবেল ৪৬; ইরফান ৩/৪০)।

ফল : প্রাইম ব্যাংক ২ উইকেটে জয়ী। ম্যান অব দ্য ম্যাচ : আরিফুল হক।

প্রাইম দোলেশ্বর-শাইনপুকুর

শাইনপুকুর ৪৭.১ ওভারে ১৭৫ (দেলোয়ার ৪০*; ফরহাদ রেজা ৩/৩২)। প্রাইম দোলেশ্বর ৪৩.৪ ওভারে ১৭৬/১ (সাইফ ৮৩*, ফরহাদ হোসেন ৬৬*; সোহরাওয়ার্দী ১/১৮)। ফল : প্রাইম দোলেশ্বর ৯ উইকেটে জয়ী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা