kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পোর্ট এলিজাবেথে এক দিনে ১৯ উইকেট

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পোর্ট এলিজাবেথে এক দিনে ১৯ উইকেট

পেসাররা আগুনই ঝরাচ্ছেন পোর্ট এলিজাবেথের স্যান্ট জর্জেস পার্কে। আগের দিনের ৩ উইকেটে ৬০ রান নিয়ে খেলতে নেমে শ্রীলঙ্কা অল আউট ১৫৪-তে। জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় দিন অল আউট ১২৮ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কা দুই উইকেট হারানোয় এক দিনেই উইকেটের পতন ১৯টি। প্রথম ইনিংসে প্রোটিয়া দুই পেসার কাগিসো রাবাদা ৪ ও দুয়ানে অলিভিয়েরের শিকার ৩ উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকার ১০ উইকেটের ৭টিই লঙ্কান পেসারদের। জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার দরকার ১৯৭ রান। জবাবে ২ উইকেট হারিয়ে ৬০ রানে দিন শেষ করেছে সফরকারীরা। ওসাদা ফার্নান্দো ১৭ ও কুশল মেন্ডিস ব্যাট করছিলেন ১০ রানে। জয়ের জন্য আজ শ্রীলঙ্কার দরকার ১৩৭ রান ও প্রোটিয়াদের ৮ উইকেট।

প্রথম দিন ২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন লাহিরু থিরিমানে। গতকাল দিনের শুরুতেই ২৯ করে দুয়ানে অলিভিয়েরের হাতে ক্যাচ দেন এই ওপেনার। ২০১৭ সালের নভেম্বর ইডেনে ভারতের বিপক্ষে ৫১ রানের পর সব শেষ ১১ ইনিংসে কোনো ফিফটি নেই তাঁর। ডারবানে রূপকথার ১৫৩ রানের ইনিংসে ম্যাচ জিতিয়েছিলেন কুশল পেরেরা। কিন্তু পোর্ট এলিজাবেথে ২০ রান করে কাগিসো রাবাদার বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন কুইন্টন ডি কককে।

৮ নম্বরে নামা নিরোশান ডিকেলা কিছুটা প্রতিরোধ না গড়লে আরো লেজে-গোবরে হতে পারত শ্রীলঙ্কার ইনিংস। তাঁর ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে ৩৬ বলে ৪২ রানে লঙ্কানদের ইনিংস পার হয় ১৫০। শেষ পর্যন্ত লাঞ্চের আধাঘণ্টা আগে অল আউট ১৫৪ রানে। লাসিথ এমবুলদেনিয়া আগের দিন কাগিসো রাবাদার ফিরতি ক্যাচ নিতে গিয়ে ব্যথা পেয়েছিলেন বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলে। চোট না সারায় গতকাল ব্যাট করতে পারেননি লঙ্কান এই বোলার। কাগিসো রাবাদা ৩৮ রানে ৪ ও দুয়ানে অলিভিয়ের নেন ৬১ রানে ৩ উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকা পায় ৬৮ রানের লিড।

দ্বিতীয় ইনিংসে শুরুতেই ফেরেন ডিন এলগার। প্রথম ইনিংসে ৬ করা এই ওপেনার এবার ২ রানে বিশ্ব ফার্নান্দোর বলে ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে নিরোশান ডিকেলাকে। ১০ রানে ১ উইকেটে লাঞ্চে যায় প্রোটিয়ারা। চাপটা বাড়ে চা বিরতির সময় ৯১ রানে ৫ উইকেটে পরিণত হলে। হাশিম আমলা ৩২, এইদেন মারক্রাম ১৮, তেম্বা বাভুমা ৬ ও কুইন্টন ডি কক ফেরেন ১ রানে। চা বিরতির পরও ফাফ দু প্লেসিস ছাড়া প্রতিরোধ গড়তে পারেননি কেউ। প্রোটিয়া অধিনায়ক অপরাজিত ৫০ রানে। সুরঙ্গা লাকমল ৪, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ৩ ও কুশন রাজিথার উইকেট ২টি। ক্রিকইনফো

সংক্ষিপ্ত স্কোর

দক্ষিণ আফ্রিকা : ২২২ ও ৪৪.৩ ওভারে ১২৮ (দু প্লেসিস ৫০*, আমলা ৩২, মারক্রাম ১৮; লাকমল ৪/৩৯, সিলভা ৩/৩৬, রাজিথা ২/২০)।

শ্রীলঙ্কা : ৩৭.৪ ওভারে ১৫৪ (ডিকেলা ৪২, থিরিমানে ২৯, কুশল ২০; রাবাদা ৪/৩৮, অলিভিয়ের ৩/৬১) ও ১৩ ওভারে ৬০/২ (করুনারত্নে ১৯, ফার্নান্দো ১৭* ; রাবাদা ১/১৮)।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা