kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

পরীক্ষা দিলেন সঞ্জিত-নাহিদুল

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরীক্ষা দিলেন সঞ্জিত-নাহিদুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম বিভাগ থেকে এসে হারানোর খাদে গিয়েও দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। সদ্যঃসমাপ্ত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে প্রথম দেখায় সহজ দুটো ক্যাচ ফেলে খলনায়কই যেন হতে বসেছিলেন আলিস ইসলাম। তবে ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে হ্যাটট্রিকসহ ৪ উইকেট নিয়ে উল্টো নায়ক বনে যাওয়া ঢাকা ডায়নামাইটসের এ অফস্পিনারের অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হয় সেদিনই। তবে আলিস একা নন, আম্পায়ারদের চোখে সন্দেহজনক মনে হয়েছে আরো দুজন অফস্পিনারের অ্যাকশনও। তাঁরা হলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের সঞ্জিত সাহা এবং রংপুর রাইডার্সের নাহিদুল ইসলাম।

নিয়মানুযায়ী শুদ্ধীকরণের একটি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়েও যেতে হবে এই তিন অফস্পিনারকে। তবে আপাতত এর অংশ হতে পারছেন না আলিস। কারণ বিপিএলের সিলেট পর্বে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে পড়া এই অফস্পিনারের বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষায় বসতে সময় লাগবে আরো। তবে সঞ্জিত ও নাহিদুলদের পরীক্ষা কাল হয়ে গেল মিরপুরের একাডেমি মাঠে। যেখানে নানা রকম ডেলিভারিতে তাঁদের অ্যাকশনের ভিডিও ধারণ করেছেন এই শুদ্ধীকরণ কার্যক্রমের প্রধান নাসির আহমেদ। বাংলাদেশ দলের সাবেক এই উইকেটরক্ষক প্রাথমিক কাজ সেরে নিয়ে বলছিলেন, ‘সঞ্জিত, নাহিদুল ও প্রথম বিভাগের একজন বোলারের পরীক্ষা আমরা নিয়েছি। ১৮টি করে ডেলিভারি নিয়েছি। স্টক ডেলিভারি, দ্রুত গতির ডেলিভারি এবং বৈচিত্র্য।’ ধারণ করা ভিডিও নিয়েই এখন বিশ্লেষণে বসবেন নাসির। দেখবেন তাঁদের অ্যাকশন আসলেই কতটা সন্দেহজনক কিংবা সন্দেহমুক্ত। তাই এই পরীক্ষার ফলের ওপরও নির্ভর করছে অভিযুক্তদের আসন্ন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলার ব্যাপারটি, ‘আজকের পরীক্ষার ফলাফল পেতে চার-পাঁচ দিন লেগে যাবে। যদি দেখি যে অ্যাকশন ঠিকই আছে, তাহলে প্রিমিয়ার লিগে খেলতে পারবে।’ যদিও সঞ্জিতের ব্যাপারটি অন্যদের চেয়ে আলাদা। কারণ এর আগেও এই তরুণ দুইবার প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছেন। অ্যাকশন শোধরানোর ছাড়পত্র নিয়ে দুইবারই ফিরেছেন। কিন্তু আবারও সন্দেহের বেড়াজালে তিনি। তবে এবারের সন্দেহে নির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ নেই বলে জানালেন নাসির, ‘ওর ব্যাপারটি ইন্টারেস্টিং। কারণ ওর বিরুদ্ধে এবার নির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ নেই। আম্পায়াররা বলেছেন কিছু ডেলিভারিতে সমস্যা আছে। কিন্তু কোন ডেলিভারিতে, তা নিয়ে কিছু বলা হয়নি। তাই আম্পায়ারদের সঙ্গেও বসতে হবে ম্যাচের ভিডিও নিয়ে। বিপিএলের সব ম্যাচেরই তা আছে। তা দেখেই আমরা একটি সিদ্ধান্ত নেব।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা