kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অ্যাতলেতিকোর আতঙ্ক হয়ে ফিরছেন রোনালদো

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অ্যাতলেতিকোর আতঙ্ক হয়ে ফিরছেন রোনালদো

অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের দুঃখ কী? উত্তরটা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো হলে ভুল বলা হবে না। মাদ্রিদ ডার্বিতে এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি গোল তাঁর। দুটি হ্যাটট্রিক আছে অ্যাতলেতিকোর মাঠেই। ইউরোপে ডিয়েগো সিমিওনের দলের আতঙ্ক তিনি ২০১৪-এর চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল থেকে।

রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে সে ম্যাচে এগিয়ে গিয়েও ৪-১ এ হার, শেষ মুহূর্তের পেনাল্টি থেকে গোল করে রোনালদোর সেই পেশি প্রদর্শনী—রোজি ব্লাংকোদের ভোলার নয়। ২০১৬-তে সেই জ্বালা জুড়াবে কী, আবারও রোনালদোর আঘাত, ফাইনালে ১-১ সমতা শেষে টাইব্রেকারে রিয়ালের জয় নিশ্চিত করা গোলটি যে পর্তুগিজ তারকারই। পরের বছরই আবার দেখা সেমিফাইনালে। সেবার রোনালদো সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে প্রথম লেগের হ্যাটট্রিকেই ‘টাই’ একপেশে করে ফেলেন। এই রোনালদো আবারও মাদ্রিদে, জার্সি বদলে ফেললে কী হবে, পুরনো শত্রুকেই যে আতিথ্য দিতে হবে ডিয়েগো সিমিওনেকে। এই ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরার বাড়তি তাগিদও পর্তুগিজ তারকার। জুভেন্টাসে যোগ দেওয়ার পর প্রথমবার স্পেনে ফেরাটা তাঁর কলঙ্কিত হয়েছে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠের ম্যাচের ২৮ মিনিটেই লাল কার্ড দেখে। জুভেন্টাসের জিততে যদিও কোনো সমস্যা হয়নি সে ম্যাচে। তবু সেই স্মৃতি মুছে দিয়ে এবারের ফেরাটা নিশ্চিতভাবেই রাঙাতে চাইবেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকা। মাসিমিলিয়ানো আল্লেগ্রি বলছেন, শেষ ষোলোর এ অ্যাওয়ে ম্যাচে অন্তত একটি গোল বের করাটাই তাঁর দলের জন্য হবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। দায়িত্বটা রোনালদোর কাঁধে দিয়ে বোধহয় নিশ্চিন্তই থাকতে পারেন জুভেন্টাস কোচ। রিয়ালের জার্সি গায়ে ২২ গোল করা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে এবারও নিশ্চয় খালি হাতে ফিরতে চাইবেন না সিআরসেভেন। এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা