kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গোল করেই চলেছেন এমবাপ্পে

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গোল করেই চলেছেন এমবাপ্পে

নেইমার, কাভানি নেই। তাতে কী? কিলিয়ান এমবাপ্পে তো আছেন। বিশ্বকাপজয়ী এই তারকার কাঁধে ভর করে আরো একটা বাধা পার হলো পিএসজি। গত পরশু ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে তাঁর একমাত্র গোলে পিএসজি হারিয়েছে সেইন্ত এঁতিয়েকে।  লিগ ওয়ানে এই মৌসুমে সর্বোচ্চ ১৯ গোল এখন এমবাপ্পের। গত সপ্তাহে চ্যাম্পিয়নস লিগেও গোল করে ম্যানইউর মাঠে দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন এই তরুণ। ইতালিয়ান সিরি ‘এ’তে নিয়মিত অধিনায়ক মাউরো ইকার্দিকে দল থেকে বাদ দেওয়া ইন্টার মিলান ২-১ গোলে হারিয়েছে সাম্পদোরিয়াকে। তবে তোরিনোর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে শিরোপা রেস থেকে আরো পিছিয়েছে নাপোলি। স্প্যানিশ লা লিগায় ভিয়ারিয়ালের মাঠে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত সেভিয়া। আর ভ্যালেন্সিয়া-এস্পানিয়লের ম্যাচটি শেষ হয়েছে গোলশূন্য ড্রতে।

চোটে পড়া নেইমার আর কাভানিহীন পিএসজিকে টানছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। গত পরশু সেইন্ত এঁতিয়ের বিপক্ষে ১-০ গোলে জেতা ম্যাচে ৭৩ মিনিটে লক্ষ্য ভেদ করেন তিনি। দানি আলভেসের উঁচু করে বাড়ানো বল পেনাল্টি স্পটের কাছে পেয়ে দারুণ ভলিতে জালে জড়ান এই তরুণ। এর আগে ২০তম মিনিটে আনহেল দি মারিয়ার ক্রস অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে নিয়ন্ত্রণে নিলেও গোলরক্ষককে সোজা বল মেরে সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেছিলেন তিনি। এর পরও এই মৌসুমে ১৯ গোল নিয়ে লিগ ওয়ানের শীর্ষে এমবাপ্পে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭ গোল তাঁরই সতীর্থ কাভানির। আর নেইমারের গোল ১৩টি। ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু জয়ের দৌড়েও ভালোভাবে আছেন এমবাপ্পে। ২২ গোল নিয়ে ইউরোপে সবাইকে পেছনে ফেলেছেন লিওনেল মেসি। জুভেন্টাসের হয়ে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো আর পিএসজির জার্সিতে এমবাপ্পের গোল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯টি। গত পরশুর জয়ে লিগ ওয়ানে দুইয়ে থাকা লিলের চেয়ে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে গেছে পিএসজি। ২৩ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৬২ আর ২৫ ম্যাচে লিলের ৫০। মানে একপ্রকার ধরাছোঁয়ার বাইরে পিএসজি।

ইতালিয়ান সিরি ‘এ’তে মাউরো ইকার্দিকে ছেঁটে ফেলে সাম্পদোরিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলের ব্যবধানে জিতেছে ইন্টার মিলান। তবে নিজেদের মাঠে তোরিনোর বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে নাপোলি। এই ড্রতে শীর্ষে থাকা জুভেন্টাসের চেয়ে তারা পিছিয়ে পড়ল ১৩ পয়েন্টে। সমান ২৪ ম্যাচ শেষে জুভেন্টাসের পয়েন্ট ৬৬, নাপোলির ৫৩, ইন্টার মিলানের ৪৬ আর এসি মিলানের ৪২। ইএসপিএন

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা