kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

বার্সা দেয়াল ভাঙার চ্যালেঞ্জ লিঁওর

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বার্সা দেয়াল ভাঙার চ্যালেঞ্জ লিঁওর

ম্যানইউকে হারানোর পরপরই কিলিয়ান এমবাপ্পের হুঙ্কার, ‘আমি চাই অলিম্পিক লিঁও হারিয়ে দিক বার্সেলোনাকে। আমরা ওদের সমর্থন করব।’ লিঁও ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে পিএসজির প্রতিপক্ষ হলেও চ্যাম্পিয়নস লিগের মঞ্চটা আলাদা। ফরাসি ক্লাবগুলো ইউরোপের শ্রেষ্ঠত্বের টুর্নামেন্টটিতে সাদামাটা। এ জন্যই বিশ্বকাপজয়ী এমবাপ্পের চাওয়া এবার পিএসজি, লিঁওর মতো দলগুলো চ্যাম্পিয়নস লিগেও দাগ কাটুক। তাই আজ শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বার্সেলোনার বিপক্ষে লিঁওর জয় চান এমবাপ্পেসহ সব ফরাসি। তবে পরিসংখ্যান বলছে এই টুর্নামেন্টে কাতালানদের কখনো হারাতে পারেনি লিঁও। বার্সার দেয়াল ভাঙাই চ্যালেঞ্জ তাদের। এ ছাড়া আজ মুখোমুখি হচ্ছে ইউরোপের দুই পরাশক্তি লিভারপুল ও বায়ার্ন মিউনিখ। ম্যাচটি ঘিরে উত্তেজনায় কাঁপছে অ্যানফিল্ড।

অলিম্পিক লিঁওর স্বর্ণালি সময় ২০০২ থেকে ২০০৮ সাল। তাদের জেতা লিগ ওয়ানের সাত শিরোপার সবগুলো এই সময়ে। চ্যাম্পিয়নস লিগে সেরা সাফল্য একবার সেমিফাইনাল খেলাও ২০০৯-১০ মৌসুমে। সেবার নক আউটে রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়েছিল তারা। এর আগের মৌসুমে লিঁওর সবশেষ দেখা হয়েছিল বার্সেলোনার বিপক্ষে। নিজেদের মাটিতে ২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে ড্র করেছিল ১-১ গোলে। আর সব মিলিয়ে বার্সার বিপক্ষে পাঁচবারের দেখায় ড্র দুই ও হার তিনটি। তবে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে সবশেষ পাঁচ ম্যাচের চারটি জেতায় আত্মবিশ্বাসী লিঁও কোচ ব্রুনো জেনেসিও। চোটের জন্য নাবিল ফেকিরের না থাকাটা মাথাব্যথার কারণ হলেও বার্সাকে নিয়ে না ভেবে নিজেদের শক্তির ওপর আস্থা তাঁর, ‘বার্সেলোনা দুর্দান্ত দল, তবে আমরা নিজেদের সেরাটা চেষ্টা করব। দেপাই, তাঙ্গুই, দেম্বেলেরা ছন্দে আছে। তাঙ্গুইকে তো নতুন পগবা মনে হয় আমার।’

টানা তিন ড্রর বৃত্ত ভেঙে বার্সেলোনা ফিরেছে জয়ের ধারায়। লা লিগায় সবশেষ ম্যাচে লিওনেল মেসির পেনাল্টিতে হারিয়েছে রিয়াল ভায়াদোলিদকে। ছন্দে না থাকা মেসি সেই ম্যাচে মিস করেছেন আরো একটি পেনাল্টি। গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে পারেননি লুই সুয়ারেস ও কেভিন প্রিন্স বোয়াটেং। আজ এ ধরনের সুযোগ পেলে কোনোভাবে হাতছাড়া করতে চাইবে না কাতালানরা। তা ছাড়া একটা সময় লিঁওতে খেলতেন বলে তাদের হাঁড়ির খবর জানা স্যামুয়েল উমতিতির। চোটে পড়ে নভেম্বরের পর খেলা হয়নি ফরাসি এই ডিফেন্ডারের। তাঁর ফিট হয়ে দলে ফেরাটা স্বস্তির এরনেস্তো ভালভার্দের জন্য। আর্থার, রাফিনহা, সিয়েসেন, ভারমালেনরা চোটের জন্য না থাকলেও মেসি, সুয়ারেস, দেম্বেলেদের নিয়ে গড়া বার্সার আক্রমণভাগ যেকোনো দলের জন্যই হুমকির। তাঁদের আটকানোটাই চ্যালেঞ্জ লিঁওর।

‘মৃত্যুকূপে’ থাকা লিভারপুলকে এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগ ভুলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক তারকা গ্যারি নেভিল। রেড স্টার বেলগ্রেড ও পিএসজির কাছে টানা দুই হারে গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে পড়ার শঙ্কায় ছিল গতবারের রানার্স-আপরা। তবে মোহামেদ সালাহর গোলে শেষ ম্যাচে নাপোলিকে হারিয়ে নক আউট নিশ্চিত করে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। তখন থেকেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দাপট দেখিয়ে শীর্ষস্থান দখলে রেখেছে তারা (সমান পয়েন্ট নিয়ে সিটি গোল গড়ে এগিয়ে থাকলেও ম্যাচ খেলেছে একটি বেশি)। আজ অ্যানফিল্ডে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে আত্মবিশ্বাসী হয়েই নামবেন সালাহ, মানে, ফিরমিনোরা। তবে মৌসুমের শুরুতে ধুঁকতে থাকা বায়ার্ন যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে সেটা যেকোনো প্রতিপক্ষের জন্যই দুশ্চিন্তার। বুন্দেসলিগায় একটা সময় ৯ পয়েন্টে পিছিয়ে পড়া বায়ার্ন এখন শীর্ষে থাকা বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের সঙ্গে ব্যবধান কমিয়ে এনেছে ২ পয়েন্টে। এ ছাড়া ২০১৭ সালে পিএসজির কাছে হারার পর চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে হারেনি টানা আট ম্যাচ। লিভারপুল কি পারবে বায়ার্নের এই দৃঢ়তা টলাতে?

তবে বায়ার্ন কাল লিভারপুলে পা রেখেও স্বস্তিতে ছিল না, ইনফর্ম কিংসলে কোমানের খেলা নিয়ে যে অনিশ্চয়তা। অগসবার্গের বিপক্ষে আগের ম্যাচে ৩-২ গোলের অসাধারণ জয়ে জোড়া গোল ও অ্যাসিস্ট তাঁর। ওই ম্যাচেরই শেষদিকে গোড়ালিতে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়া ফরাসি উইঙ্গারের জন্য শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করার কথা তাদের। না হলে ফ্র্যাঙ্ক রিবেরির উড়ে যাওয়ার কথা। অসুস্থতায় ম্যাচের আগে সেন্টারব্যাক জোরোমে বোয়াটেংকেও হারিয়েছে বায়ার্ন। তাতে আজ ম্যাট হুমেলসের সঙ্গী হওয়ার কথা নিকলাস সুলের। মার্কা

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা