kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ

আজ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটের প্লেয়ার্স ড্রাফট। সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ আবারও আবাহনীর কোচের ভূমিকায়। খেলোয়াড় দলে নেওয়ার আগের দিন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে জাতীয় দলের সিংহভাগ ক্রিকেটারকে না পাওয়া প্রসঙ্গেও কথা বলেছেন তিনি

প্রশ্ন : কাল (আজ) তো প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফট, আবাহনীর কোচ হিসেবে খেলোয়াড় বাছাইয়ের ক্ষেত্রে আপনাদের পরিকল্পনা কী?

খালেদ মাহমুদ : ড্রাফট নির্ভর করে ভাগ্যের ওপর। কে কত নম্বর ডাক পাচ্ছে সেটার ওপর নির্ভর করে। মোসাদ্দেক, নাজমুল হোসেন শান্ত আর মাশরাফি তো আছে। বিদেশি খেলোয়াড়ও একজন আসবে। এরপর দেখব আমাদের যেসব জায়গায় খেলোয়াড় প্রয়োজন, সেটা আমরা যতটা পারি ড্রাফট থেকে নেওয়ার চেষ্টা করব, যদি ভাগ্য সহায়তা করে। জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা খেলতে পারবে না প্রিমিয়ার লিগের অনেকগুলো ম্যাচেই। ওইটা মাথায় রেখেই দল গড়তে হবে।

প্রশ্ন : জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা না থাকায় প্রিমিয়ার লিগ কি রং হারাল?

খালেদ মাহমুদ : ভালো খেলোয়াড়রা না খেললে তো একটু রং হারায়ই! এটাও ক্রিকেটেরই অংশ। এটা মানতেই হবে। জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের জন্য বসে থাকলে তো ঢাকা লিগ হবে না আসলে! আমাদের মৌসুম তো খুব অল্প সময়ের। ক্রিকেটাররা নিউজিল্যান্ড থেকে আসার পর যদি লিগ শুরু করা হতো তাহলে তো লিগ শেষ হবে না। এটা গুরুত্বপূর্ণ। সিসিডিএমের জন্যও সঠিক সময়। এটা সারা বিশ্বেই হয়, ভারতীয় ক্রিকেটাররা কয়টা তাদের রঞ্জি ট্রফি ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়? জৌলুস কমলেও আমি মনে করি নতুন কিছু খেলোয়াড় সুযোগ পাবে, এটাও একটা বড় দিক। যারা সুযোগ পাচ্ছে তাদের জন্য নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ।

প্রশ্ন : খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক নিয়ে নয়ছয় থেকেই যাচ্ছে। এবার কি পরিস্থিতি বদলাবে?

খালেদ মাহমুদ : ক্লাবগুলোর খেলোয়াড়দের সময় অনুযায়ী পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ড্রাফট করাতে ক্লাবের জন্যই ভালো হয়েছে। একটা দায়বদ্ধতা থাকে। একটা বাজেটের মধ্যে দল করতে পারছেন। এর পরও সেই টাকাটা যদি না দেয় তাহলে সেটা দুঃখজনক। এই জন্যই তো বিসিবি আছে, তাদের  সহায়তা করার জন্য। আমি মনে করি বিসিবির যতটুকু প্রয়োজনীয় সাহায্য করার ততটুকু অবশ্যই করবে। কিভাবে টাকাটা পায় সেটার দায়িত্ব বিসিবির। বিসিবি সেটাই চেষ্টা করছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা