kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

ফ্রাইলিঙ্কের ছয়ে জয় চট্টগ্রামের

২২ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফ্রাইলিঙ্কের ছয়ে জয় চট্টগ্রামের

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শেষ ওভারের নাটকীয়তায়, রবি ফ্রাইলিঙ্কের বীরত্বে লো স্কোরিং ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসকে হারাল চিটাগং ভাইকিংস। ঢাকার দেওয়া ১৪০ রানের লক্ষ্যে শেষ ওভারে চিটাগংয়ের প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। মোহর শেখের ওভারে ৩ ছয়ে সেই ম্যাচ শেষ করে দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটসম্যান।

৯ উইকেটে ১৩৯ রানের ছোট পুঁজিতেও ম্যাচটা ঢাকার দিকে হেলে ছিল সাকিব আল হাসান মাত্র ১৬ রান খরচায় ৪ উইকেট তুলে নিলে। কিন্তু ফ্রাইলিঙ্কই হিসাব-নিকাশ পাল্টে দিয়ে চিটাগংকে এনে দিয়েছেন ৩ উইকেটের জয়। এর আগে ঢাকার ব্যাটিং ব্যর্থতা ছিল একটি ম্যাচই। যেখানে রাজশাহী কিংসের ১৩৬ রানের জবাবে ৯ উইকেটে ১১৬ রানে থেমে যায় তারা। তা ছাড়া বিপিএলের অন্য ম্যাচগুলোয় সাকিব আল হাসানের দলের বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনীই দেখা গেছে। কাল চিটাগংয়ের বিপক্ষে তাদের ১৩৯ করাটা তাই একটু অবাক করাই।

ওপেনিংয়ে নামা রনি তালুকদার আউট হন একেবারে প্রথম ওভারে। দুই বিদেশি সুনীল নারিন ও হেইনো কুন সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ। দুজনই আউট ১৮ রান করে। আর আফগান রিক্রুট দরবিশ রাসুলও যখন ফিরে যান শূন্য রানে, ৫৬ রানে চার উইকেট হারিয়ে ঢাকা ডায়নামাইটসের দিশাহারা অবস্থা।

এ বিপর্যয়ে হাল ধরার দায়িত্ব পড়ে সাকিবের ব্যাটে। শুরুটা ভালো হলেও যখনই রানের চাকা দ্রুতলয়ে ঘোরানোর দাবি, তখনই তিনি আউট। ৩৪ বলে ৩৪ রান করে ফেরেন সাকিব। ২৭ রান করে নুরুল হাসান এবং ১ রানে আন্দ্রে রাসেল আউট হলে ঢাকা ডায়নামাইটসের বড় রান গড়ার আশা শেষ হয়ে যায়। তবু যে ১৩৯ রান পর্যন্ত যেতে পারে, তাতে শুভাগত হোমের ১৫ বলে ২৮ রানের অবদান সবচেয়ে বেশি।

এই অল্প রানের পুঁজি নিয়ে লড়াইয়ে টিকে থাকার জন্য শুরুতে উইকেট তুলে নেওয়া জরুরি। ঢাকা ডায়নামাইটস করে ঠিক তাই। প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই শুভাগতর দুর্দান্ত ক্যাচে মোহাম্মদ শাহজাদ আউট হলে উজ্জীবিত হয়ে ওঠে পুরো দল। চাপে পড়া চিটাগং ভাইকিংসের ক্যামেরন ডেলপোর্ট চালান পাল্টাআক্রমণ। তিনি আউট হওয়ার সময় দলের ৩২ রানের মধ্যে এই প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানের রানই ৩০; মাত্র ১২ বলে করেন তা। এরপর রান যেমন উঠেছে, তেমনি উইকেটও পড়েছে নিয়মিত বিরতিতে। মুশফিকুর রহিম (২২) আউট হলে জয়ের সম্ভাবনা সমানে সমান ছিল দুই দলের। ফ্রাইলিঙ্কই তাতে ব্যবধান গড়ে দিয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা