kalerkantho

মুখোমুখি প্রতিদিন

আমাদের সেরা শক্তি হচ্ছে মুস্তাফিজ

২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমাদের সেরা শক্তি হচ্ছে মুস্তাফিজ

মার্শাল আইয়ুবের খেলার ধরনের সঙ্গে টি-টোয়েন্টির মেজাজটা ঠিক মেলে না। রাজশাহী কিংসের দলে থাকলেও একাদশে সুযোগ হয়েছে কমই। সিলেটে ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে ম্যাচটিই ছিল এবারের বিপিএলে তাঁর প্রথম ম্যাচ। সেখানেই ৪৫ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে দলের জয়ে দারুণ অবদান রেখেছেন মার্শাল। ঢাকাতে একাদশে আরো নিয়মিত হওয়ার প্রত্যাশা এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের। কাল মিরপুরের একাডেমি মাঠে অনুশীলনের পর জানালেন সেটাই

 

প্রশ্ন : সিলেট থেকে ঢাকায় ফিরেছেন। অনুশীলন কেমন চলছে?

মার্শাল আইয়ুব : ঢাকায় এসে আমার অনুশীলনের সুযোগ হয়েছে। মিরপুরের উইকেট দুপুরের ম্যাচে একটু বোলারদের সাহায্য করে। এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট, আমরা এখানে দুই দিন আগে এসে নিজেদের প্রস্তুত করতে পেরেছি ভালোভাবে।

প্রশ্ন : তারকাঠাসা ঢাকা ডায়নামাইটসকে হারাতে পারায় মনোবল নিশ্চয়ই তুঙ্গে?

মার্শাল : অবশ্যই। টুর্নামেন্টের একটা শীর্ষস্থানীয় দলকে আপনি যখন হারাবেন তখন আপনার দলের চেহারাই অন্য রকম থাকে। সেটা আমাদের ভেতরেও আছে। পরের ম্যাচ বড় দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের বিপক্ষে। ওরা বড় দল ঠিক আছে, তবে মাঠে দেখা যাবে কী অবস্থা। অবশ্যই আমরা জোর লড়াই করব। ওদের সঙ্গে একটি ম্যাচে হেরেছি আমরা, এটা আমাদের প্রধান লক্ষ্য থাকবে প্রতিশোধ নেওয়া।

প্রশ্ন : সিলেট আর ঢাকার উইকেটের প্রধান পার্থক্য কী মনে হলো আপনার কাছে?

মার্শাল : সিলেট ও এখানকার উইকেটে পার্থক্য আছে। আর আমি মনে করি আমাদের সেরা শক্তি হচ্ছে মুস্তাফিজ। আপনি যদি আমাদের ম্যাচ দেখেন, ও-ই আমাদের বেশি ম্যাচ জিতিয়েছে। মুস্তাফিজ, মিরাজকে নিয়ে আমাদের বোলিং আক্রমণটা অবশ্য ভালোই। এটা আমাদের শক্তির জায়গা। মুস্তাফিজ রয়েছে, এটাও আমাদের জন্য ভালো।

প্রশ্ন : বোলিংটা ভালো হলেও ব্যাটিংটা তো ভালো হচ্ছে না রাজশাহীর। ব্যাটিংটা ভালো হচ্ছে না কেন?

মার্শাল : অবশ্যই ওরা (ব্যাটসম্যানরা) ব্যক্তিগত পর্যায়ে চেষ্টা করবে, আগের ম্যাচগুলোতে হয়তো হয়নি। পরের ম্যাচগুলোতে বড় ইনিংস খেলবে। সৌম্য পরীক্ষিত ক্রিকেটার। নেটে ও অনেক কষ্ট করছে। আমরা আশাবাদী ও কামব্যাক করবে, ও আর মমিনুলকে নিয়ে আশাবাদী।

মন্তব্য