kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৪ অক্টোবর ২০১৯। ৮ কাতির্ক ১৪২৬। ২৪ সফর ১৪৪১       

এবার বিশ্বকাপে চোখ ভারতের

২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এবার বিশ্বকাপে চোখ ভারতের

হঠাৎ দেখা : টেনিসের সর্বকালের সেরা প্রশ্নে রজার ফেদেরারকে নিয়ে দ্বিমত নেই কারো। বিরাট কোহলি যে গতিতে ছুটছেন তাতে ক্যারিয়ার শেষে সংখ্যায় ব্র্যাডম্যান-টেন্ডুলকারকে হয়তো পেছনেই ফেলে দেবেন। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন দেখতে ফুরফুরে মেজাজে কোহলি দম্পতি। দেখা হয়ে গেল ফেদেরারের সঙ্গেও। ছবি : এএফপি

ঐতিহাসিক এক সফর শেষ করলেন বিরাট কোহলিরা। ভারতের প্রথম দল হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাটি থেকে টেস্টের পাশাপাশি ওয়ানডে সিরিজ জিতেছেন তারা। বিশ্বকাপের বছরে যা অভাবনীয়। এমন সাফল্য বিশ্বকাপের জন্য আত্মবিশ্বাসের অক্সিজেনও। বিরাট কোহলি তাই স্বপ্ন দেখা শুরু করেছেন এখন থেকেই, ‘বিশ্বকাপ সামনে রেখে আমাদের দলটা ভারসাম্যপূর্ণ হয়ে উঠছে। আত্মবিশ্বাসও বাড়ছে সবার। টি-টোয়েন্টি, টেস্ট কিংবা ওয়ানডে তিনটি সিরিজেই আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। দলের কঠিন মানসিকতা ফুটে উঠেছে তাতে। বিশেষ করে বিশ্বকাপ যখন এত কাছে। বিভিন্ন পর্যায়ে যদি কেউ না কেউ অবদান রাখে তাহলে বড় টুর্নামেন্ট জিততেই পারেন আপনি।’

এমন সাফল্যে কোহলিদের প্রশংসায় ভাসিয়েছে ভারতের শীর্ষসারির দৈনিকগুলো। ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর গতকাল ‘দ্য মেইল টুডে’র শিরোনাম ‘স্বপ্নের সফরের নিখুঁত সমাপ্তি’। টাইমস অব ইন্ডিয়ার শিরোনাম ‘অনেক প্রথমের এক সিরিজ’। অভিনন্দন জানাচ্ছেন সাবেক তারকারাও। তাঁদের অন্যতম শচীন টেন্ডুলকার। কোহলির প্রশংসা করার পাশাপাশি তিন ওয়ানডেতে টানা তিন ফিফটি করা মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে টেন্ডুলকারের মুগ্ধতা, ‘আরো একবার দক্ষতার সঙ্গে ম্যাচ শেষ করার কার্যকারিতা দেখাল ধোনি।’ বিশ্বকাপের দলে ধোনি থাকবেন কি না এরই কঠিন পরীক্ষা ছিল অস্ট্রেলিয়া সফর। বিশেষ করে ঋষভ পান্ট যখন দুর্দান্ত খেলেছিলেন টেস্ট সিরিজে। তবে অভিজ্ঞ ধোনির জায়গা নেওয়ার মতো পরিণত যে পান্ট হননি জানিয়ে দিলেন ভারতীয় কোচ রবি শাস্ত্রী, ‘ধোনির বিকল্প হতে পারবে না কেউ। ঠাণ্ডা মাথায় ম্যাচ শেষ করার দক্ষতায় অনন্য ও।’

একই অভিমত অধিনায়ক বিরাট কোহলিরও। বিশ্বকাপে ধোনির জায়গায় অন্য কাউকে ভাবছেন না তিনি, ‘ধোনির রানের মধ্যে থাকাটা তৃপ্তি দিচ্ছে আমাদের। ভারতীয় ক্রিকেটের প্রতি ধোনির মতো নিবেদন দেখাতে পারবে না আর কেউ। সবার উচিত তাঁকে একটু রেহাই দেওয়া।’ অস্ট্রেলিয়া সফরে চার নম্বরে খেলে টানা তিন ফিফটি পেয়েছেন ধোনি। বিরাট কোহলি অবশ্য চার নম্বর জায়গাটিতে বেশি পছন্দ করেন আম্বাতি রাইডুকে। তাই দলের দরকারে ছয় নম্বরে ব্যাট করতে হলেও আপত্তি নেই ধোনির, ‘কত নম্বরে ব্যাট করছি এটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। দলের জন্য কতটা অবদান রাখতে পারছি এটাই আসল।’

এদিকে দারুণ এ সিরিজ জয়ী ভারতীয় দলের জন্য কোনো প্রাইজমানি না থাকার সমালোচনা করেছেন কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কার। সিরিজ সেরা মহেন্দ্র সিং ধোনি ও ম্যাচ সেরা যুযবেন্দ্র চাহাল দুজনই পেয়েছেন সমান ৫০০ ডলার, যা আবার দান করে দিয়েছেন চ্যারিটিতে। ভারতীয় দলের জন্য ট্রফি ছাড়া কোনো প্রাইজমানি না থাকায় অস্ট্রেলিয়ান বোর্ডকে একহাত নিলেন গাভাস্কার, ‘শুধু ট্রফিই দেওয়াটা দুঃখজনক। সম্প্রচার স্বত্ব থেকে অনেক অর্থ উপার্জন করে আয়োজকরা। তাহলে কেন ক্রিকেটারদের ভালো অঙ্কের অর্থ দেওয়া হবে না? উইম্বলডনে কী পরিমাণ টাকা দেওয়া হয় সেটা দেখা হোক (চ্যাম্পিয়ন পান প্রায় ২৫ কোটি টাকা)!’ পিটিআই

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা