kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

নিজের চেয়ে দলের কথাই বেশি ভাবি

১৯ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিজের চেয়ে দলের কথাই বেশি ভাবি

অনেকেরই মতে দেশের সেরা উইকেটরক্ষক সৈয়দ নুরুল হাসান, কিন্তু বেশ কিছুদিন হয় জাতীয় দলের বাইরে তিনি। বিশেষ করে সীমিত ওভারের খেলায়। সিলেটের বিপক্ষে ম্যাচে জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে এসে জানালেন নিজের চেয়ে দল নিয়েই বেশি ভাবনা তাঁর

প্রশ্ন : তারকাঠাসা ঢাকা ডায়নামাইটস জয়ের ধারাতেই ছিল। আগের ম্যাচটি হেরে যাওয়ার পর ফের জয়ের ধারায় ফিরতে কতটা আত্মবিশ্বাসী ছিলেন?

নুরুল হাসান : টি-টোয়েন্টিতে মোমেন্টাম (ছন্দ) অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আগের ম্যাচটি খুব বাজেভাবে হেরেছি। তবে আমাদের প্লেয়ারদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস ছিল এবং আলাদাভাবে এটা নিয়ে বসেছি। যার কারণে আমরা মোমেন্টামে ব্যাক করতে পেরেছি। জয় না, আমার কাছে মোমেন্টাম ও টিম স্পিরিট অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্ন : সাকিব আল হাসানের পারফরম্যান্স কেমন মনে হলো? এই বিপিএলে তো ব্যাট হাতে এটাই সাকিবের এখন পর্যন্ত সেরা ইনিংস।

নুরুল হাসান : আসলে সাকিব ভাই যেভাবে পারফরম করে, অন্য টিমের জন্য কঠিন হয়ে যায়। উনার ম্যাচে উনি যেকোনো দলকে হারাতে পারে। বোলিংয়ে আমাদের ওয়ার্নারের উইকেটটা দরকার ছিল। তিনি উইকেটটা পেয়েছেন এবং ব্যাটিংয়ে এই ইনিংস নিয়ে আসলে বলার কিছু নেই। সবাই দেখেছে। পুরো ম্যাচ জেতানো ইনিংস।

প্রশ্ন : আপনার নিজের পারফরম্যান্স তো এখন পর্যন্ত সাদামাটা। কখনো ব্যাটিং পাচ্ছেন না, পেলেও বা রান পাচ্ছেন না...

নুরুল হাসান : আমার কাছে নিজের জন্য কিছু করার চেয়ে দলের জন্য কিছু করতে পারা গুরুত্বপূর্ণ। আমার যদি মনে হয় দুটি রানই দলের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ, আমি দুই রানের জন্যই সর্বাত্মক চেষ্টা করব। একজন পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে আমি যেই দলের জন্যই খেলি না কেন, আমি আমার ভেতর ১০০ এর বেশি কিছু থাকলে সেটা দিতে চেষ্টা করি। আমার মনে হয় আমি নিজের প্রতি যদি সৎ না থাকি তাহলে জিনিসগুলো দূরে সরে যায়। এভাবে নিজেকে সব সময় ১০০ ভাগ দেওয়ার জন্য তৈরি করি।

প্রশ্ন : আপনার কিপিং দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন নেই। কিন্তু ব্যাটিংয়ে পিছিয়ে থাকার কারণেই কি জাতীয় দলে জায়গা হচ্ছে না?

নুরুল হাসান : কিপিং নিয়ে সব সময় কাজ করি, ব্যাটিং নিয়েও করি। এখন দল জয়ের ধারায় আছে। নিজের পারফরম্যান্সের চেয়ে এটাই বড় কথা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা