kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শেষ ম্যাচ খেলে ফেললেন মারে!

১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেষ ম্যাচ খেলে ফেললেন মারে!

প্রথম দুই সেটে হার। এরপর রূপকথার ফেরা। টাইব্রেকারে টানা দুই সেট জয় অ্যান্ডি মারের। গ্যালারির দর্শকরা অপেক্ষায় সাবেক এই নাম্বার ওয়ানের রোমাঞ্চকর জয়ের। কিন্তু শরীরটা টানল না আর। চোটের জন্য শেষ সেটে দাঁড়াতেই পারলেন না তিন তিনটি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী মারে। স্পেনের রবার্তো বাতিস্তা আগুত তাঁকে হারালেন ৬-৪, ৬-৪, ৫-৭, ৬-৭, ৬-২ গেমে। চোটের জন্য এটাই হয়তো শেষ ম্যাচ মারের। গ্যালারির দর্শকরা বিদায়ী অভিবাদনও দিলেন তাই। মারের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায়ের দিনে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সহজ জয় পেয়েছেন রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদাল, ক্যারোলিন ওজনিয়াকি, মারিয়া শারাপোভারা। তারকাদের মধ্যে বাদ পড়েছেন নবম বাছাই জন ইসনার।

চোটের সঙ্গে লড়াইয়ে হার মানা মারে আগেই জানিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের পর বিদায় বলতে পারেন টেনিসকে। তবে শরীর ঠিক থাকলে নিজের দেশের গ্র্যান্ড স্লাম উইম্বলডনে নিতে চান আনুষ্ঠানিক অবসর। সেই পর্যন্ত খেলবেন কি না নিজেই জানেন না মারে, ‘হয়তো আবার দেখা হবে আপনাদের সঙ্গে (অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে)। আবারও খেলতে চাইলে বড় ধরনের অস্ত্রোপচার করাতে হবে। এর পরও ফেরার নিশ্চয়তা নেই। যদি এটাই শেষ ম্যাচ হয় তাহলে বলব রোমাঞ্চ নিয়ে ইতি টানলাম। আমার পরিবার আর দলের সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

মারের কথার ধরনে স্পষ্ট গতকালই খেলে ফেললেন পেশাদার ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ। বিশাল টিভি পর্দায় দেখানো হলো তাঁর কীর্তিগুলো। ২০১২ সালে ইউএস ওপেনের পর ২০১৩ ও ২০১৬ সালে জিতেছিলেন উইম্বলডন। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনাল খেলেছেন পাঁচবার। ফ্রেঞ্চ ওপেনেও ফাইনালে পৌঁছেছিলেন ২০১৬ সালে। নাইটহুড উপাধি পাওয়া মারে টিভি পর্দায় দৃশ্যগুলো দেখতে দেখতে হয়ে পড়েছিলেন আবেগী, জল টলমল করছিল চোখে।

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রজার ফেদেরার অবশ্য সহজ জয়ে শুরু করেছেন এবারের অভিযান। ডেনিস ইস্তোমিনকে হারিয়েছেন সরাসরি ৬-৩, ৬-৪, ৬-৪ গেমে। রাফায়েল নাদাল ৬-৪, ৬-৩, ৭-৫ গেমে হারিয়েছেন জেমস ডাকওয়ার্থকে। এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা