kalerkantho

ভাগ্যবদলের আশায় ক্যারিবীয়রা

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভাগ্যবদলের আশায় ক্যারিবীয়রা

সিলেট থেকে প্রতিনিধি : ওয়ানডে সিরিজে হেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ; কিন্তু ‘জিতেছেন’ শাই হোপ। শেষ দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করায় পরাজিত দলে থেকেও ম্যান অব দ্য সিরিজ তিনি। টি-টোয়েন্টি সিরিজে ক্যারিবিয়ানদের জয়ের আশা বাড়ানোয় ওই ব্যাটসম্যানের খেলার বিকল্প নেই। শেষ ওয়ানডের শেষ ওভারে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বাউন্সারে মাথায় ব্যথা পেলেও হোপের খেলার প্রবল আশা অধিনায়ক কার্লোস ব্রাথওয়েটের।

‘শাই হোপ দারুণ ফর্মে আছে। দুটো অপরাজিত সেঞ্চুরির ফর্ম নিয়ে আসছে টি-টোয়েন্টিতে। শাইকে যদি স্ট্রেচারে করে নিয়েও ব্যাটিং করাতে হয়, তাহলে আমি সেই স্ট্রেচার বহন করতে রাজি আছি। ও ভালো অবস্থায় আছে। অনুশীলন করছে, আশা করছি শতভাগের কাছাকাছি ও থাকবে। শাই যদি কাল বেঁচে থাকে, তাহলে খেলবে’— বলতে বলতে হাসেন তিনি। কিন্তু ক্যারিবিয়ান দলে তাঁর গুরুত্বও তাতে প্রকাশিত।

আরেক গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার এভিন লুইস। যাঁর ব্যাটে ওঠে ধ্বংসের প্রমত্ত সুর। কুড়ি-বিশের ক্রিকেটে এই ওপেনারের খুনে ব্যাটিং ক্যারিবিয়ানদের সম্ভাবনার পালে লাগাতে পারে জোর হাওয়া। টেস্ট ও ওয়ানডে দলে না থাকা লুইসের দলে যোগদানে তাই উত্ফুল্ল ব্রাথওয়েট, ‘এভিনের দলের সঙ্গে যোগ দেওয়াটা আমাদের জন্য দারুণ ব্যাপার। ও বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান। গত ১৮ মাসে টি-টোয়েন্টিতে তিনটি সেঞ্চুরি করেছে। এ ছাড়া আঞ্চলিক ও ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটেও সেঞ্চুরি করেছে। আশা করছি, এ ম্যাচ এবং সিরিজেও ও দুর্দান্ত পারফরম করবে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের সব কিছুতেই এখন ভাটার টান। টেস্ট-ওয়ানডের মতো টি-টোয়েন্টি ফর্মও পড়তির দিকে। ভারতের বিপক্ষে সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজে ও যেমন হেরেছে তিন ম্যাচ। তাতেও ইতিবাচক অনেক কিছুই দেখছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক, ‘ভারতের বিপক্ষে সিরিজটি আমরা ০-৩ ব্যবধানে হেরেছি ঠিক। তবে প্রথম ও তৃতীয় ম্যাচে দেখিয়েছি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটে কতটা ভালো হতে পারে। আমাদের আবেগ, বিশ্বাস ও ইচ্ছার প্রতিফলন সেখানে। ছোট সংগ্রহ ডিফেন্ড করে লড়াই করেছি; আর তৃতীয় ম্যাচেও শেষ বল পর্যন্ত ম্যাচে ছিলাম।’ কিন্তু ওই জয়ের কাছাকাছি যাওয়াটা তো আর জয় নয়। সেটিও ভালোই জানা ক্যারিবিয়ান অধিনায়কের। এখানে ধারাবাহিকতা খুঁজে পাওয়ার আশা ব্রাথওয়েটের, ‘আমরা যদি আরো পেশাদার হই, বিশেষত ব্যাট হাতে—তাহলে ওই আবেগ ও ক্ষুধা আমাদের শুধু জয়ের কাছাকাছি নেবে না। জিতিয়ে দেবে। আরো ধারাবাহিকভাবে জেতার উপায় খুঁজে বের করতে হবে।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভালো করার অন্য আরেক গুরুত্বও আছে ব্রাথওয়েটের কাছে, ‘এখানে তিন ম্যাচে যদি কেউ ভালো খেলি, তাহলে আত্মবিশ্বাস নিয়ে বিপিএল খেলতে পারব। নিজের ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য দুর্দান্ত হয়ে উঠতে পারে, যা পরের বছরও দল পেতে সাহায্য করবে। আসলে প্রতিটি ম্যাচ গুরুত্বপূর্ণ, বিশেষত আন্তর্জাতিক ম্যাচ।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ সামনে রেখেও তাহলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চোখ ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট বিপিএলে! ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট তাহলে বেপথু কেন হবে না!

মন্তব্য