kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

কিশোরদের আবারও স্বপ্ন দেখাচ্ছে বাফুফে

৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : আলোচনায় আবার সিলেট বিকেএসপি, আবারও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল বিজয়ী কিশোরদের নতুন স্বপ্ন দেখাচ্ছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। তাদের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি করবে, প্রশিক্ষণ দেবে দীর্ঘ মেয়াদে, বেতন দেবে মাসে মাসে—এভাবেই তারা হয়ে উঠবে বড় ফুটবলার!

বাফুফে ভবনে গতকাল কিশোরদের ডেকে এমন স্বপ্নই দেখিয়েছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন, ‘তোমরা কেবল হাঁটি হাঁটি পা পা করছ, আরো বড় হতে গেলে এখনকার চেয়ে শতগুণ পরিশ্রম করতে হবে। যা কিছু টেকনিক্যাল সাপোর্ট লাগে, সবই আমরা দেব। এগুলো মূলহীন হয়ে যাবে যদি তোমরা আন্তরিক না হও।’ টেকনিক্যাল সাপোর্ট নিয়ে ফুটবল ফেডারেশনও তৈরি আছে বলে জানিয়েছেন ফেডারেশন সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ, ‘বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন তোমাদের নিয়ে অনেক বড় পরিকল্পনার কথা ভাবছে। বাফুফের কোচের তত্ত্বাবধানে রেখে তোমাদেরকে দীর্ঘ মেয়াদে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। আগামীকাল থেকে তোমাদের আবাসিক ট্রেনিং ক্যাম্প শুরু হবে সিলেট বিকেএসপিতে। তা ছাড়া বাফুফে তিন বছরের চুক্তি করবে এই খেলোয়াড়দের সঙ্গে এবং মাসিক বেতনও দেবে।’ ২৩ জনের দলটি সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফাইনালে পাকিস্তানকে হারিয়ে ফিরেছে দুদিন আগে। বাফুফে আজই তাদের পাঠিয়ে দিচ্ছে সিলেট বিকেএসপিতে। এদের ট্রেনিং হবে বাফুফের কোচের অধীনে। তাদের আগামী ডিসেম্বরে থাইল্যান্ডে একটি টুর্নামেন্ট খেলতে পাঠানোর প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন বাফুফে সম্পাদক। 

২০১৫ সালে এই বিকেএসপিতে শুরু হয়েছিল বাফুফে একাডেমি। তবে ফিফা গোল প্রজেক্টের আওতায় এই একাডেমি আট মাস পরেই বন্ধ হয়ে যায় বাফুফের অর্থাভাবে। সংগত কারণেই বাফুফের তাদের নতুন উদ্যোগ নিয়ে সংশয় থাকছে। কারণ কিশোরদের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি, দীর্ঘ মেয়াদে ট্রেনিং, মাসিক বেতন দেওয়ার কথা বললেও দৃশমান করা খুব কঠিন। সম্পাদক অবশ্য দাবি করেছেন, তাঁরা বিভিন্নভাবে অর্থের ব্যবস্থা করবেন এবং আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে পরিকল্পনা চূড়ান্ত হয়ে যাবে।



সাতদিনের সেরা